ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

বলিউডে তাঁদের উত্থান যেভাবে

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০১৯ সোমবার, ০৫:৩৪ পিএম
বলিউডে তাঁদের উত্থান যেভাবে

বলিউডে কাজ পেতে রীতিমত গলদঘর্ম হতে হয় স্বপ্নবাজ অভিনয়শিল্পীদের। তারকা সন্তানদের ক্ষেত্রে বিষয়টি সহজ হলেও অন্যদের ক্ষেত্রে কঠিন। এরমধ্যে কেউ জী-হুজুর-জাহাপনা, আবার কেউ অসামান্য প্রতিভার জোরে বলিউডে অভিনয়ের স্বপ্ন পূরণ করেছেন।

কোনরকম স্বজনপ্রীতি ছাড়াই বলিউডে প্রবেশ করেছেন ‘শাহেনশাহ’ খ্যাত অমিতাভ বচ্চন। কলকাতায় একটি কোম্পানি চাকরি করতেন। অভিনয়ের প্রতি প্রবল আগ্রহ থেকে চাকরিটা আর করা হয়নি। তাঁর ভরাট কণ্ঠস্বর মুগ্ধ করে বাঙালি পরিচালক মৃণাল সেন-কে। তাঁর পরিচালিত ছবি ‘ভুবন সোম’-এ ডাবিং দিয়ে শুরু চলচ্চিত্রে অমিতাভের পথচলা। এরপর ‘সাত হিন্দুস্তান’ ছবিতে তাঁকে অভিনয়ের সুযোগ করে দেন পরিচালক খাজা আহমেদ আব্বাস। এই ছবিতে অভিনয়ের জন্য তিনি সম্মাননা পেলেও তারকা হয়ে উঠতে পারেননি। অমিতাভের তারকা খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে মূলত ‘জাঞ্জির’ ছবির মাধ্যমে। এই ছবির পরিচালক প্রকাশ মেহরা একজন পুলিশ কর্মকর্তার চরিত্রের জন্য অমিতাভকে নির্বাচন করেন। এরপর বাকিটা ইতিহাস।

বলিউড বাদশা শাহরুখ খানেরও রয়েছে সংগ্রামী ইতিহাস। মধ্যবিত্ত পরিবারের সুদর্শন শাহরুখ তখন ছোট পর্দায় কাজ করতেন। সিনেমায় কাজ করার স্বপ্ন নিয়ে মুম্বাইয়ের অলিগলি চষে বেড়াচ্ছেন। শাহরুখের কথায়, ‘একদিন ফুটপাথে দাঁড়িয়ে বিরিয়ানি খাচ্ছিলাম। সে সময় প্রযোজক বিবেক ভাশ্বমির সঙ্গে দেখা হয়। তিনি আমাকে চলচ্চিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব দেন। এর পরের দিন তিনি আমাকে নিয়ে গেলেন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘জি পি সিপ্পি’-তে। ঠিক ওই দিনই পাঁচ পাঁচটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হই।’

সালমান খানের অভিনয়ে আসতে মোটেও বেগ পেতে হয়নি। তাঁর বাবা সেলিম খান সে সময়ের প্রথিতযশা চিত্রনাট্যকার। তারকা সন্তান হিসেবেই বেড়ে উঠেছেন তিনি। পরিচালক জে কে ভারি ছিলেন সালমানের বাবার বন্ধু। সেই সূত্রে সালমানের অভিষেক হয় তাঁর পরিচালিত ছবি ‘বিবি হ্যায় তো অ্যায়সি’ ছবির মাধ্যমে। এরপর সেলিম খানের আরেক বন্ধু পরিচালক সুরাজ বারজাত্যর বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করে তারকা হয়ে ওঠেন সালমান।

আমির খানও তারকা পরিবারের সন্তান। তাঁর বাবা তাহির খান ছিলেন নামী প্রযোজক। সেই সূত্রে ছোটবেলা থেকেই শিশু শিল্পী হিসেবে কাজ করতেন বলিউডে। এরপর চাচা মনসুর খানের পরিচালনায় ‘কেয়ামত সে কেয়ামত তাক’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে নায়ক হিসেবে আমিরের পথ চলা শুরু হয়।

অক্ষয় কুমারের অভিনয়ে আসাটাও কিছুটা কাকতালীয়। কখনো ভাবেননি তিনি অভিনেতা হবেন। রন্ধনশিল্পী হিসেবে দেশ বিদেশে চাকরি করতেন। এক সময় মার্শাল আর্ট শিখেছেন। মার্শাল আর্টের শিক্ষকও ছিলেন বেশ কিছুদিন। সেখানে তাঁর এক ফটোগ্রাফার ছাত্র তাঁকে মডেলিংয়ের প্রস্তাব দেন। সেখান থেকে শুরু। অভিনয়ে তাঁকে নিয়ে আসেন মূলত বাঙালি প্রযোজক প্রমোদ চক্রবর্তী। তিনি অক্ষয়কে পরিচালক রাজ সিপ্পি’র সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন। এরপর সিপ্পির ‘সুগন্ধ’ ছবির মাধ্যমে তাঁর বলিউড ক্যারিয়ার শুরু হয়।

রণবীর সিং একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় ‘কপি রাইটার’ হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন। চাকরির পাশপাশি তিনি বিভিন্ন জায়গায় অভিনেতা হওয়ার জন্য অডিশন দিতেন। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘যশরাজ ফিল্মস-এর একটি অডিশনে সেখানকার কাস্টিং ডিরেক্টর সনু শর্মা তাঁকে ‘ব্যান্ড বাজা বারাত’ ছবির জন্য নির্বাচন করেন।

আনুশকা শর্মাও যশরাজ ফিল্মস-এর অডিশনের মাধ্য দিয়ে ‘রাব নে বানাদে জুড়ি’ ছবির নায়িকা হিসেবে সুযোগ পান। আরক অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া তো ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ খেতাব জিতে বলিউডে প্রবেশের রাস্তা সহজ করে নেন।

দীপিকা পাড়ুকোনের উত্থান করিওগ্রাফার ও পরিচালক ফারহা খানের হাত ধরে। দীপিকার ‘লরিল’ ও ‘ক্লোজআপ’-এর বিজ্ঞাপনে মুগ্ধ হয়ে তাঁকে ‘ওম শান্তি ওম’ এর নায়িকা হিসেবে নির্বাচন করেন ফারহা

কঙ্গনা রনৌত মাত্র ১৬ বছর বয়সে অভিনয়ের স্বপ্নে বাড়ি ছেড়েছেন। দিল্লী ও মুম্বাইয়ের বিভিন্ন এজেন্সিতে ঘুরেছেন। একবার ‘গ্যাংস্টার’ ছবির জন্য অডিশন দেন। সেখানে বয়স কম বলে ওই ছবির প্রযোজক মহেশ ও মুকেশ ভাট তাঁকে বাদ দিয়ে দেন। কিন্তু ওই ছবির পরিচালক অনুরাগ বসু তাঁকে নায়িকা চরিত্রের জন্য পছন্দ করেন। এরপর শুরু হয় তাঁর বলিউড যাত্রা।

পরিনিতি চোপড়া পড়াশুনা শেষ করে যশরাজ ফিল্মস-এর মার্কেটিং বিভাগে চাকরি নেন। সেখানে থেকে তিনি ‘ইশাকজাদে’ ছবিতে সুযোগ পান। বিদ্যা বালানের উত্থান হয়েছে পরিচালক প্রদীপ সরকারের হাত ধরে। প্রথমে প্রদীপের একটি মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেন এরপর তাঁর পরিচালিত ‘পরিণীতা’ ছবির মাধ্যমে বিদ্যার বলিউড পথচলা শুরু হয়।

এছাড়া পরিবারের হাত ধরে বলিউডে পা রেখেছেন শহীদ কাপুর, কারিনা কাপুর, অভিষেক বচ্চন, সানি দেওল, ববি দেওল, রণবীর কাপুর, বরুণ ধাওয়ান, টাইগার শ্রফ, সাইফ আলী খান, সঞ্জয় দত্ত, অজয় দেবগণ, অক্ষয় খান্না, টুইঙ্কেল খান্না, ঋত্বিক রোশন ও রানী মুখার্জীসহ বহু উঠতি তারকা।

বাংলা ইনসাইডার/ এইচপি