ঢাকা, রোববার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

সুখ-দুঃখ, মিলে-মিশে একাকার সুবর্ণার

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ বুধবার, ০৩:০৭ পিএম
সুখ-দুঃখ, মিলে-মিশে একাকার সুবর্ণার

বাবার মৃত্যুর দিনে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করলেন সুবর্ণা মুস্তাফা। একুশে পদক গ্রহণ করবেন বিকালে। তবে এটা কাকতালীয় বলছেন তিনি। সুবর্ণা মুস্তাফা বলেন, ‘কাকতালীয়ভাবে জীবনের সুখ-দুঃখ মিলে-মিশে একাকার হয়ে যায়। আমারও হয়ে গেল।’

আজ বুধবার সংরক্ষিত নারী আসনে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ শেষে জাতীয় সংসদ ভবনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

২০০৩ সালের এই দিনে মৃত্যুবরণ করেন তাঁর বাবা গোলাম মুস্তাফা। বেতার, টিভি, মঞ্চ ও চলচ্চিত্র- চার মাধ্যমেই সুঅভিনয়ের স্বাক্ষর রেখেছেন তিনি। ১৯৩৪ সালের ২ মার্চ বরিশালের দপদপিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

পরিণত বয়সে ষাটের দশকের শুরুতে গোলাম মুস্তাফা নাট্যাভিনয় শুরু করেন। ঢাকা টেলিভিশনের জন্মলগ্ন থেকে তিনি অভিনয় করছেন। ১৯৬০ সালে ‘রাজধানীর বুকে’র মাধ্যমে সিনেমায় নাম লেখানো। প্রথম ছবি থেকেই তিনি খলনায়ক চরিত্রের অপ্রতিদ্বন্দ্বী অভিনেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। গোলাম মুস্তাফা বাংলা ও উর্দু মিলে প্রায় তিনশত চলচ্চিত্রে নায়ক, সহনায়ক, খলনায়কসহ বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন।

জীবনে অনেক পুরস্কার প্রাপ্তি মিলেছে তাঁর। ১৯৮০ সালে এমিলের গোয়েন্দা বাহিনী চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য সেরা পার্শ্বচরিত্রের অভিনেতা, ১৯৮৬ সালে ‘শুভদা’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। চলচ্চিত্রে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি ২০০১ সালে একুশে পদক সম্মানে ভূষিত হন। তিনি বাচসাস পুরস্কারও লাভ করেন। তাঁর যোগ্য কন্যা সুবর্ণা মুস্তাফা। তিনিও নাটক সিনেমার জনপ্রিয় মুখ। এবার তিনি সংসদ সদস্য হিসেবেও শপথ গ্রহণ করলেন।



বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ