ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

বেফাঁস মন্তব্যে তারকা কুপোকাত

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৯ এপ্রিল ২০১৯ শুক্রবার, ১০:০০ পিএম
বেফাঁস মন্তব্যে তারকা কুপোকাত

তারকা বলে কথা। মন্তব্যটা করতে হবে বুঝেশুনে। একটা মন্তব্য নিয়ে তোলপাড় হয়ে যেতে পারে। দেখা গেল তিনি কোন আলোচনাতেই নেই, একটা বেঁফাস মন্তব্যে তিনি আলোচনার কেন্দ্রে চলে আসবেন। আর এই আলোচনায় আসার অন্যতম মাধ্যম ফেসবুক।

দেখা যায় কোনো তারকা একটি মন্তব্য করে বসলেন। এমন মন্তব্য মেনে নিতে পারছেন না নেটিজেনরা। তখন শুরু হয় নোংরামো, আলোচনা-সমালোচনা। দল বেঁধে তাকে গালাগাল শুরু করে। হুমকির মুখে পড়ে সেই তারকার ইমেজ। রোষানল থেকে বাঁচতে ক্ষমাও চাইতে হয় শেষ পর্যন্ত। ছোটপর্দার তারকা সাফা কবির একটি রেডিও অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন। সেখানে এক শ্রোতা প্রশ্ন করে বসেন, মৃত্যুর পরের জীবন তথা পরকাল নিয়ে। সাফা সরল মনে জানিয়ে দিলেন তিনি মৃত্যুর পরের জীবন বিশ্বাস করেন না। যদিও প্রশ্নটাই ছিল অবান্তর, সাফা সেটি এড়িয়ে যেতেও পারতেন। তা না করে তিনি কিছু একটা জবাব দিলেন, যার ফলস্বরূপ তাকে নেটিজেনদের কাছ থেকে নাস্তিক উপাধি পেতে হলো। তার ফেসবুক আইডি হ্যাক হলো, তিনি বাধ্য হলেন ক্ষমা চাইতে। নিজেকে প্রমাণ করতে হলো মাফ চেয়ে তিনি ধর্মভীরু। তার অনেক সহকর্মী অনেক উদাহরণ দিয়ে তাকে ধর্মভীরু প্রমানের চেষ্টাও করেন।

দেশের জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম বেসরকারি একটি চ্যানেলে সামাজিক সচেতনতা বিষয়ক একটি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করতেন। সেখানে ‘ধর্ষণের জন্য নারীর পোশাক দায়ী’ এ বিষয়ে কথা বললেন তিনি। উদাহরণ দিলেন, যেখানে বোরকা পড়া মেয়ে, শিশু মেয়ে ধর্ষণের শিকার হচ্ছে, সেখানে এমন যুক্তি অবান্তর। যা নিয়ে তোপের মুখে পড়লেন প্রিয় এই অভিনেতা। তার ধর্মজ্ঞান নিয়ে রীতিমোত তোলপাড়। তিনিও শেষমেষ ছেড়ে দে মা কেঁদে বাচি বলে ক্ষমা চাইলেন।

অভিনেতা শাহরিয়ার নাজিম জয় উপস্থাপনায় এসেই আলোচিত হলেন। তার অনুষ্ঠানে মেহের আফরোজ শাওনকে মজার ছলে বিয়ের প্রস্তাব দিলেন। শাওন বিব্রত হলেও জয় বেশ মজা পেয়েছেন। সমালোচিত হন জয়। আবার ইউটিউবে বনানী অগ্নিকান্ডে আলোচিত শিশু নাঈমকে কেন্দ্র করে সমালোচনার জন্ম দিলেন তিনি। জয় অবশ্য যখন থেকে শো করা শুরু করেছেন, এমন সব বেঁফাস মন্তব্য করেই তিনি আলোচনায় থাকছেন।

একটি টেলিভিশনে চিত্রনায়িকা পূর্ণিমার অনুষ্ঠানে ধর্ষণ বিষয়ে কথা বলে বিতর্কের মুখে পড়েন ঢালিউডের জনপ্রিয় খলঅভিনেতা মিশা সওদাগর। সেখানেও এই ধর্ষণ নিয়ে মজার ছলে কথা বলতে গিয়ে রীতিমতো সমলোচনার মুখে পড়েন এই অভিনতা- অভিনেত্রী।

তারকারা নিজেদের ব্যক্তিগত রেষারেষির খবরও অনেক সময় ফেসবুকে পোস্ট করেন। গায়ক আসিফের সঙ্গে প্রীতম কিংবা শফিক তুহিনদের ব্যক্তিগত রেষারেষি ফেসবুকে দেখা যায়।  কলকাতায় ফেরদৌস প্রচারণায় গিয়ে কি তুলকালামই না ঘটালো।

শবনম ফারিয়া ও মেহজাবিনও এক সময় তুমুল দ্বন্দ্বে জড়িয়েছিলেন এই বেঁফাস মন্ত্যব্য নিয়ে। নওশাবা ফেসবুকে এক স্ট্যাটাস দিয়ে রীতিমতো নেই হয়ে গেলেন। এখন তিনি মিডিয়াতে অনিয়মিত শুধুমাত্র এই ফেসবুক স্ট্যাটাসের কারণে।

আজকাল এই মন্তব্যই যেন তারকাদের সবচেয়ে বড় শত্রু। কখন যে কি মন্তব্য করে বসেন, আর তা নিয়েই শুরু হয়ে যাবে তুলকালাম।

 

বাংলা ইনসাইডার