ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

সেই ‘আশিকি’র নায়িকা এখন কোথায় আছেন?

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮ জুন ২০১৯ শনিবার, ০৭:১৬ পিএম
সেই ‘আশিকি’র নায়িকা এখন কোথায় আছেন?

জন্ম দিল্লিতে। কিন্তু চেন্নাইতে বড় হয়েছেন অনিতা আগরওয়াল। যিনি বলিউডে অনু আগরওয়াল নামেই পরিচিত। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সোশিওলজিতে সোনার মেডেল পাওয়ার পর ধীরে ধীরে শুরু করেন মডেলিং।

ধারাবাহিক ‘ইসি বাহানে’তে প্রথম অভিনয় করেন অনু। কিন্তু ১৯৯০ সালে সিনেমার পথচলা শুরু ‘আশিকি’তে শুরু। আর সেই আশিকির কথা তো নতুন করে কিছু বলার নেই।

শার্প লুক, লম্বা চেহারা, বাদামী ত্বকের রং তথাকথিত সুন্দরীদের ভিড়ে অনুকে বলিউডে আলাদা করে চিনিয়েছিল। তার সঙ্গে ছিল বোহেমিয়ান জীবনযাপন। পাবলিক প্লেসে মার্লবোরো লাইটসে স্বচ্ছন্দে টান দিতেন অনু। শর্ট স্কার্টে সাজাতেন নিজেকে।

‘১৯৯২’ সালে ‘গজব তামাশা’, ১৯৯৩ সালে ‘কিং আঙ্কেল’, ১৯৯৫-এ ‘জন্মকুণ্ডলী’, ১৯৯৬-এ ‘রিটার্ন অব জুয়েল থিফ’-একের পর এক ছবিতে অভিনয় করেন অনু।

অভিষেক সিনেমার মতো পরের ছবিগুলো তুমুল জনপ্রিয় না হলেও অনু ধীরে ধীরে বলিউডে নিজের পায়ের তলার মাটি শক্ত করছিলেন।

পাশাপাশি সমাজসেবার কাজও করতেন অনু। মুম্বাইয়ে পাঁচ থেকে ১৪ বছর বয়সী এইডস আক্রান্ত মেয়েদের প্রত্যক্ষ ভাবে সাহায্য করতেন তিনি। সমাজ সেবার লক্ষ্যে নিজস্ব ফাউন্ডেশন তৈরি করেছিলেন অনু। অনাথ শিশুদের পাশে থাকতেন। মুম্বাইয়ের বস্তি এলাকার শিশুদেরও অর্থ সাহায্য করতেন।

হঠাতই বিপর্যয়। ১৯৯৯ সালে এক ভয়ঙ্কর গাড়ি দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন অনু। সে সময় ২৯ দিন কোমায় থাকতে হয়েছিল তাঁকে।

পরবর্তীতে জানা যায়, ওই দুর্ঘটনার পর অতীতের সব কিছু ভুলে গিয়েছিলেন অনু। তাঁর চেন্নাইয়ের জীবন, মুম্বাইয়ে অভিনয় ক্যারিয়ার- কিছুই নাকি তখন আর মনে করতে পারতেন না।

যত দূর জানা যায়, এই মুহূর্তে বেঙ্গালুরুতে একাই থাকেন অনু। যোগাভ্যাস করেন নিয়মিত। শিশুদের যোগা শেখান কোনও পারিশ্রমিক ছাড়াই। ইদানিং ‘আশিকি’র নায়িকা অনু মুম্বাইতে গেলেও নাকি কাউকে জানাতে চান না। দুর্ঘটনার আগে এবং পরের অনু যেন দু’টো আলাদা মানুষ।


বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ