ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

জটিলতায় ঈদের ছবি

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০১৭ মঙ্গলবার, ০৮:৩৬ পিএম
জটিলতায় ঈদের ছবি

অভিযোগ আর পাল্টা অভিযোগের খেলায় মেতেছে ঢালিউড। ঈদ সন্নিকটে, মুক্তি প্রচারনার চেয়ে মুক্তি বিড়ম্বনার গল্পই বেশি হচ্ছে। কোন ছবি মুক্তি পাবে ঈদে? হাতেগোনা কয়েক দিন থাকলেও তা এখন পর্যন্ত হল মালিকরাও বলতে পারে না নিশ্চিত হয়ে।

মুক্তির জন্য প্রযোজক সমিতিতে মাত্র একটি ছবির আবেদন জমা পড়েছে। ছবিটি হলো বুলবুল বিশ্বাস পরিচালিত শাকিব খান আর অপু বিশ্বাস অভিনীত ‘রাজনীতি’। মুক্তি প্রতিক্ষিত অন্য ছবিগুলো হলো, যৌথ প্রযোজনার জিৎ-ফারিয়া অভিনীত ‘বস টু’, শাকিব-শুভশ্রী অভিনীত ‘নবাব’, শাকিব-বুবলী অভিনীত ‘রংবাজ’ এবং একই জুটি অভিনীত ‘অহংকার’।

‘বস টু’ ছবিটি নিয়ে সম্প্রতি সেন্সর ও প্রিভিউ বোর্ড যৌথ প্রযোজনার নিয়ম না মানার অভিযোগ এনেছে। বোর্ড এ ছবির সেন্সর স্থগিত করে সিদ্ধান্তের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের দ্বারস্থ হয়েছে। এতে করে ঈদে ‘বস টু’ মুক্তি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জাজ কর্ণধার আব্দুল আজিজ। তিনি দাবি করেন, ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবার নামে যে একটা পরিবার, এটার ভিত্তি কি? যারা আমাদের ছবির বিপক্ষে অবস্থান নিচ্ছে। তাঁরা চলচ্চিত্র পরিচালক প্রযোজক হয়েও ছবি বানায় না, শুধু নেতাগিরি করে বেড়ায়। ছবি বানায় না কেন? বসে আছেন কেন তাঁরা? পরিচালক সমিতির সভাপতি গুলজার সাহেব ছবি বানায় না কেন?’

আব্দুল আজিজ আরও বলেন, ‘আমি নবাবের স্ক্রিপ্টটা জমা দিছি গত বছরের নভেম্বর মাসে এফডিসিতে। তারপর তারা কারেকশন দিল। আবার জমা করলাম। আবার কারেকশন দিল..আবার জমা করলাম। তারপর অনেকদিন ফেলে রাখল। তারা যেভাবে কারেকশন দিছে আমরা ওইভাবে করে স্ক্রিপ্ট জমা দিয়ে তারপর শুটিং এ চলে গেছি’।

আব্দুল আজিজ দাবি করেন, যদি বাংলাদেশে কোনো ছবি ঈদে রিলিজ হয়, তবে ‘বস টু’ এবং ‘নবাব’ রিলিজ হবেই। ‘বস টু’ এবং ‘নবাব’ ছবি আগে রিলিজ হবে, তারপর অন্য ছবি রিলিজ হবে। শিল্পী নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনো অসমতা নেই। ব্যাক্তিগত আক্রোশ থেকে এসব প্রতিবন্ধকতা হচ্ছে।’

তারই প্রেক্ষিতে কথা হয় প্রিভিউ কমিটিতে থাকা চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি গুলজার আহমেদের সঙ্গে। এই নির্মাতা জানান, জাজ যে অভিযোগ করলো তা আমি দেখেছি। যে ১৬ জন বাংলাদেশি শিল্পীর নাম তারা তালিকায় প্রকাশ করল তাদের অধিকাংশকে আমিসহ সেন্সর বোর্ড, প্রিভিউ বোর্ডের কেউ চিনে না। আর আমি যদি নাই চিনি, তাহলে তারা বাংলাদেশে কেমন শিল্পী? আমি এই ইন্ডাস্ট্রিতে ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে আছি। বাংলাদেশের শিল্পী হওয়া সত্ত্বেও সেখান থেকে কাউকেই আমি চিনি না। এটা কেমন কথা, বলেনতো? আমি একা হলে কথা ছিল, কিন্তু সেন্সর বোর্ডের মানুষওতো কাউকেই ওদের শিল্পী হিসেবে চিনল না। জাজ বলছে তারা নতুন শিল্পী নিছেন, কিন্তু তারা কারা? যে যতই হুঙ্কার দিক। কোন অপরাধ মেনে নেয়া হবে না।’

প্রিভিউ কমিটি আটকে দেওয়ায় জাজ এর ছবি মুক্তি আপাতত অনিশ্চিত। মুক্তি প্রতীক্ষিত অন্য ছবিগুলোর মধ্যে শাহাদাৎ হোসেন লিটন পরিচালিত শাকিব-বুবলী অভিনীত ‘অহংকার’ ছবিটি ঈদে মুক্তির জন্য নির্মাণ হলেও অবশেষে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের কথায় এটি ঈদে নয়, দুই ঈদের মধ্যবর্তী সময়ে মুক্তি দেওয়া হবে। শাকিব-বুবলীকে নিয়ে‘রংবাজ’ ছবিটি নির্মাণ হচ্ছিল ঈদকে ঘিরেই। ছবির শুটিং শুরুর আগেই ঘটে নানা বিপত্তি। অপু-শাকিব , শাকিব- পরিচালক সমিতি – রনি জটিলতার মুক্তি পাওয়া নিয়ে অনিশ্চিত ছিল। বর্তমানে সুইজারল্যান্ডে চলছে ছবির গানের চিত্রায়ন। ঈদের বাকি নেই দুই সপ্তাহও। এ সময়ের মধ্যে ছবিটি উৎসবে মুক্তি দিতে কতটা প্রস্তুত করা সম্ভব হবে তা নিয়ে সিনেমা হল মালিকদের মধ্যে সংশয় আছে। তবে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের আশাবাদ ‘রংবাজ’ অবশ্যই ঈদে মুক্তি পাবেই।

এদিকে বেশ কিছু প্রযোজনা সংস্থা তাদের নির্মিত কয়েকটি ছবি নিয়ে ঈদে দর্শকের সামনে আসতে চাইছে। তাদের কথায় এই ঈদে যেহেতু নানা সংকটে ছবির সংখ্যা কম, তাই আমাদের নির্মাণ শেষ ও সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়া ছবিগুলো ঈদে মুক্তি দিতে চাইছি। কিন্তু সিনেমা হল মালিকরা বলছেন ঈদে মানসম্মত ছবি মুক্তি দিতে হয়। কারণ দুই ঈদ আর বাংলা নববর্ষ হলো ছবি ব্যবসার প্রধান মৌসুম। আর এই মৌসুমে যদি মানসম্মত ছবি মুক্তি দেওয়া না যায় তাহলে দর্শক দেশি ছবির প্রতি আরও আগ্রহ হারাবে, ঈদে ভালো ছবি দেখতে না পেয়ে হতাশ হবে। তাই যেনতেন ছবি ঈদে প্রদর্শন না করাই ভালো।


বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ