ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৮ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আর কত অপেক্ষা করলে একটি শহর সাজানো গোছানো হবে?

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৮ জানুয়ারি ২০২০ মঙ্গলবার, ০৪:১৬ পিএম
আর কত অপেক্ষা করলে একটি শহর সাজানো গোছানো হবে?

জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ। তিনি ঢাকার উত্তরার বাসিন্দা। সেখানে সুন্দর একটি বাড়ি করেছেন। তিনি জোর দিয়ে বললেন, ‘কখনো কেউ এসে আমার বাড়ি নিয়ে অভিযোগ জানাতে পারেনি।’ সামনে ঢাকা সিটি নির্বাচন। তার আগে তার নিজের এলাকার সমস্যার কথা যেমন জানালেন। তেমনি বললেন সমগ্র ঢাকা নিয়ে।  

নিজের এলাকা নিয়ে বলেন,‘পানি নিস্কাশনের সঠিক ব্যবস্থা নেই। পানি জমে না যায় চলাফেরা করা। আর রোগবালাই তো হবেই। সবুজায়নের অভাব। ক্রমশ সবুজায়ন হারিয়ে যাচ্ছে উত্তরা থেকে। ময়লা পরিস্কারটা রেগুলার না। ময়লা উন্নত দেশগুলোতে যেভাবে পরিস্কার করা হয়। মানুষের মধ্যেও এটা নিয়ে চিন্তাভাবনা কম। মানুষ শুধু নিজের ঘরকেই ঘর মনে করে। বাকি সব ডাস্টবিন মনে করে। ময়লা কিভাবে ওখানেই নষ্ট করা যায়।’ 

পরামর্শ হিসেবে তিনি বলেন,‘ যারা বাইরে গিয়েছেন তারা নিশ্চয়ই দেখেছেন পর্যাপ্ত পরিমাণ কিভাবে একটা সিটিতে লাইটের ব্যবস্থা থাকে। সিসি ক্যামেরা ঘেরা থাকে। ফায়ার হাইড্রেন একটা শহরের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এটা কিন্তু কোন মেয়র মেনশন করেন না। পৃথিবীর প্রায় প্রত্যেকটি শহরেই এক একটা ব্লক পরপর ফায়ার হাইড্রেন থাকে যেখান থেকে কোন জায়গায় আগুন লাগলে সেটা যেন তাড়াতাড়ি নিষ্কাশন করা যায়। আমাদের এখানে পানি ট্যাংক আসবে। ফায়ার ব্রিগেডের গাড়ি আসবে। এটা কিন্তু কোন মেয়র এখন পর্যন্ত বলেনি। এলাকায় ইমার্জেন্সি কিছু সিকোয়েরিটি রাখা উচিত। যাদের কল দিলেই তাৎক্ষণিক এগিয়ে আসতে পারে। প্রতিটা মানুষের কাছে পুলিশের নাম্বার রাখা আর তাদের কল দিয়ে সব সময় সাহায্য চাওয়া সম্ভব হয় না। মেডিকেল, ফায়ার সার্ভিস, আইনগত সাহায্যে তারা যেন তাৎক্ষণিকভাবে এগিয়ে আসতে পারে। ঢাকার শহরে বিল্ডিং কোড অনুযায়ী ২০ শতাংশ বাড়ি আছে কিনা আমার সন্দেহ। এগুলো হয় ভাঙ্গবে না হয় জরিমানা নিবে। এগুলো কোন মেয়র করবে না। গাড়ি রাখার জায়গা নেই। কিন্তু জরিমানা করা হয়। উত্তরার প্রতিটা রাস্তা গাড়ি রেখে দখল করে রাখা হয়। কারও কিছু বলার নেই। কে গাড়ি থামিয়ে এটা নিয়ে কথা বলবে। সবাই কিছুটা অসুবিধা ভোগ করে পালায়। ক্যান্টনমেন্টে গাড়ি ঢুকলে কিভাবে সব সচেতন হয়ে যায়। আর কত বছর অপেক্ষা করলে একটি শহর সাজানো গোছানো হবে?’