ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

অবস্থা আশঙ্কাজনক, কিন্তু বেঁচে আছেন এন্ড্রু কিশোর

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫ জুলাই ২০২০ রবিবার, ০৪:৫৮ পিএম
অবস্থা আশঙ্কাজনক, কিন্তু বেঁচে আছেন এন্ড্রু কিশোর

সিঙ্গাপুর থেকে চিকিৎসা নিয়ে দেশে ফিরেছিলেন মাত্র ক`দিন আগে। ক্যান্সারের সাথে লড়াই করে সুস্থ হয়ে দেশে ফেরার পরেও যেন পুরোপুরিও সুস্থ হতে পারেননি। তাঁর অবস্থা এখনসঙ্কটাপন্ন। দিন দিন তার অবস্থার অবনতি হচ্ছে, দিতে হচ্ছে অক্সিজেন সাপোর্ট। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এন্ড্রু কিশোরের খালাতো ভাই রেমন্ড তপু।

তিনি বলেন, দাদা (এন্ড্রু কিশোর) দু`দিন ধরে কথা বলতে পারছেন না।

ক্যান্সারে আক্রান্ত প্লেব্যাক সম্রাট কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। আজ ৫ জুলাই দুপুর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চাউর হতে থাকে পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে পরপারে পাড়ি দিয়েছেন এন্ড্রু কিশোর। কিন্তু এর সত্যতা যাচাই করতে গিয়ে জানা যায়, বেঁচে আছেন সবার প্রিয় এই গায়ক।

তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। দীর্ঘদিন ধরে মরণব্যাধি ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করছেন তিনি। টানা ৯ মাস সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন থেকে গত ১১ জুন একটি বিশেষ ফ্লাইটে দেশে ফিরেছিলেন এন্ড্রু কিশোর। তারপর থেকে রাজশাহীতে বসবাস করছেন তিনি। সেখানে তার বোন শিখা বিশ্বাসের কাছে রয়েছেন তিনি।

এন্ড্রু কিশোরের বেঁচে থাকার খবর নিশ্চিত করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ জানিয়েছেন, ‘কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর এখনও বেঁচে আছেন। তবে তার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। কথা বলতে পারছেন না। এটা বিকাল ৪টার খবর; প্রার্থনা করুন সবাই।’

শরীরে নানা ধরনের জটিলতা নিয়ে এন্ড্রু কিশোর অসুস্থ অবস্থায় গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে দেশ ছেড়েছিলেন। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর গত ১৮ সেপ্টেম্বর তাঁর শরীরে নন-হজকিন লিম্ফোমা নামের ব্লাড ক্যানসার ধরা পড়ে। সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক লিম সুন থাইয়ের অধীনে তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়। এই কয়েক মাস ধরে সিঙ্গাপুরে তাঁর চিকিৎসা চলে।

এন্ড্রু কিশোরের এক ছেলে ও এক মেয়ে। তাঁরা দুজনেই অস্ট্রেলিয়া থাকেন। মেয়ে মিনিম এন্ড্রু সংজ্ঞা সিডনিতে গ্রাফিকস ডিজাইন ও ছেলে জে এন্ড্রু সপ্তক মেলবোর্নে ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ে পড়াশোনা করছেন।

সংগীতজীবনের শুরুতে আবদুল আজিজ বাচ্চুর অধীনে প্রাথমিকভাবে সংগীতচর্চা শুরু করেন এন্ড্রু কিশোর। চলচ্চিত্রে তাঁর প্লেব্যাক যাত্রা শুরু হয় ১৯৭৭ সালে আলম খান সুরারোপিত ‘মেইল ট্রেন’ চলচ্চিত্রের ‘অচিনপুরের রাজকুমারী নেই যে তার কেউ’ গানের মধ্য দিয়ে। এরপর তাঁর গাওয়া অনেক গান জনপ্রিয় হয়। বাংলা চলচ্চিত্রের গানে অবদান রাখার জন্য তিনি কয়েকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।