ঢাকা, রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

শিশুদের অভিনয়ই আইটির সৌন্দর্য

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ রবিবার, ০৪:১৬ পিএম
শিশুদের অভিনয়ই আইটির সৌন্দর্য

বিখ্যাত ঔপন্যাসিক স্টিফেন কিংসের একটি উপন্যাস ‘আইটি’। যেখানে একজন অতিপ্রকৃতিক ক্ষমতাসম্পন্ন (সুপারন্যাচারাল) এক ব্যক্তি শিশুদের ভয় দেখিয়ে বেড়ান। গল্পে তাঁকে একজন ভাঁড় (জোকার) হিসেবে দেখা যায়। চলচ্চিত্রের কাহিনী উপন্যাস অবলম্বনে আবর্তিত হতে থাকে।

এর বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন জেডেন লিবাহার, জেরেমি রয় টেলর, সোফিয়া লিল্লিস, ফিন ওয়ালফারড, চোজেন জ্যাকবস, জ্যাক ডিলান গ্রাজার, ওইয়াট অলেফ, বিল স্কারজার্ড। ভৌতিক ধাচের এ ছবিটির পরিচালক অ্যান্ডি মুশিয়েটি।      

একজন অভদ্র যৌন নিপীড়ক বাবা, একজন দুঃখী ও রক্ষণশীল মা এবং একজন ইহুদি পন্ডিত ব্যক্তি, যাঁরা তাদের ছেলেদের কঠিন হওয়ার প্ররোচনা দেন। হিংস্র শহরের এক দল দস্যু স্কুলবালক এক বিকেলে, এক বালকের পেটে একটি নাম খোদাই করে দিলে দর্শক জোকারের কর্মকাণ্ডে বিশ্বাস আনতে শুরু করেন। সবাই দরজা বন্ধ করে দেয়, যেন কোনোভাবেই কারো কোনো দাঁত না পড়ে যায়। সাত শিশু এ কারণে আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে পড়ে।

অ্যান্ডি মুশিয়েটি শুরুটা ভালোই করেছিলেন, হলুদ রেইনকোট পরা এক বালক ঝুম বৃষ্টির দিনে একটি নর্দমার পাশে নীল চোখ ও ধূসর চুলের একজন জোকারের সঙ্গে কথা বলছে। কয়েক মিনিট পর, রাস্তার সব কিছুই লাল হয়ে গেল। এ ছবিতে শিশুদের হিংস্র বা ভয়ঙ্করভাবে উপস্থাপন করা হয়নি। এরপরও মুশিয়েটির মুনশিয়ানায় এক ঝলকে দর্শক দেখতে পান আহত বাহু, একটি ছাগলছানার হামাগুড়ি দেওয়ার দৃশ্য এবং সেই লাল রঙের রাস্তা।   

আইটি একটি ভৌতিক ছবি হওয়ার পরও মাত্রাতিরিক্ত ভয়ঙ্কর উত্তেজনা কিংবা থরথর আতঙ্ক সৃষ্টি করেনি। কিংসের উপন্যাসটি প্রায় এক হাজার পৃষ্ঠার। মুশিয়েটি ওই হাজার পৃষ্টার গল্প অবলম্বনে সাত জন কিশোরকে ভয় দেখানোর ব্যর্থ চেষ্টা করে গেছেন। জোকার সে চেষ্টাকে অব্যহত রাখে। ফলে ভয়ের বিষয়গুলো কিংবা আইটির দৃশ্য বর্ণনা এলোমেলো হলেও জুতসই হয়েছে। যদিও দৃশ্যত সাত বালকের লক্ষ্যের ধারাবাহিকতা অপরিষ্কার রয়ে গেছে পুরোপুরিভাবে।

ছবিকে ভরাডুবি থেকে বাঁচিয়েছে শিশুদের অভিনয়। ওদের কাজ বেশ সহজাত হয়েছে। বৈশিষ্ট্যগত কারণেই শিশুরা বারবার ভয় পায়। পাশাপাশি যৌন নিপীড়ক বাবার চরিত্র এবং লিল্লিসের সচেতন এবং হৃদয়বিদারক দশা প্রশংসার দাবি রাখে।

ছবির শেষে, গৃষ্মের দিনে সাত শিশু ঘুরতে বের হয়। বাতাসে শিশুতোষ বন্ধুত্বের সুবাস ছড়িয়ে তারা খাঁদের জলে প্রাণখুলে সাঁতরায়।   

বাংলা ইনসাইডার/আরজে/জেডএ