ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭ , ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

দেশ মাতাচ্ছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’, বিশ্ব মাতাবে `দ্য ফরেনার`!

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ অক্টোবর ২০১৭ বৃহস্পতিবার, ০৪:২৫ পিএম
দেশ মাতাচ্ছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’, বিশ্ব মাতাবে `দ্য ফরেনার`!

প্রতি সপ্তাহেই সারাবিশ্বে মুক্তি পায় বেশ কিছু আলোচিত সিনেমা। বাংলাদেশের পাশাপাশি হলিউড, বলিউডের সিনেমা নিয়েও থাকে এক ধরনের উন্মাদনা। সেই সব ছবির টুকিটাকি খোঁজখবর:

ঢালিউড মাতাচ্ছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’

বিগ বাজেটের সিনেমা সঙ্গে ব্যাবসাসফল সিনেমার তকমাও ইতোমধ্যে যোগ হয়ে গেছে। সারা বাংলাদেশের শতাধিক হলে মুক্তি পাওয়া সিনেমাটি এ সপ্তাহও টানা চলবে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহ গুলোতে।

ছবিটির মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন আরেফিন শুভ, মাহিয়া মাহি, এবিএম সুমন, নওশাবা, তাসকীন , শতাব্দী ওয়াদুদ সহ আরও অনেকে।

হলিউড এ সপ্তাহের আকর্ষন `দ্য ফরেনার`

এ সপ্তাহে হলিউডে মুক্তি পাচ্ছে বেশ কিছু সিনেমা। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্যভাবে বলা যায় ‘হ্যাপি ডেট ডে’, `দ্য ফরেনার`, ‘প্রফেসর মার্সটন অ্যান্ড দ্য ওয়ান্ডার ওম্যান’, ‘দ্যা বেবি সিটার,‘টম অব ফিনল্যান্ড’, ‘তে ইটা’। তবে এর মধ্যে আলোচনা তৈরী করতে পারে জ্যাকি চ্যান ও পিয়ার্স ব্রসনান অভিনীত `দ্য ফরেনার`।

জেমস বন্ড সিরিজের সঙ্গে যাদের পরিচয় আছে, তাদেরকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কিছু নেই পিয়ার্স ব্রসনানকে। তবে শুধু বন্ড তারকা হিসেবেই নন , নিজের দক্ষতা দেখিয়েছেন এর বাহিরেও। ছবিটিতে তার সঙ্গে আরও থাকছেন জ্যাকি চ্যান। আকর্ষটা অন্য কারণেও হতে পারে। জেমস বন্ড সিরিজের `গোল্ডেন আই` চলচ্চিত্রের পরিচালক মার্টিন ক্যাম্পবলের সঙ্গে আবারও একসঙ্গে কাজ করলেন ব্রসনান। আর এই ছবিটি তৈরি হয়েছে ১৯৯২ সালে স্টিফেন লেদারের লেখা উপন্যাস `দ্য সিনেমান` অবলম্বনে।

অ্যাকশন ও থ্রিলার ধাঁচের টানটান উত্তেজনার সিনেমা। মুক্তির আগে ব্রসনান জানালেন এক মজার অভিজ্ঞতা। বাস্তবিক তিনি জ্যাকি চ্যানের ফ্যান। কিন্তু এই সিনেমা শুরুর আগে তাদের কখনো সম্মুখ দেখা হয়নি। এমনকি একসঙ্গে শুটিংয়ের আগেও তাদের কখনো বসা হয়নি। অথচ তারাই এ সিনেমার মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

ছবিটিতে জ্যাকি অভিনয় করেছেন কুয়ান নামের এক চীনা ব্যবসায়ীর চরিত্রে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত একটি সন্ত্রাসী হামলায় নিজ মেয়েকে হারানোর পর কুয়ানের পর কুয়ান প্রতিশোধের নেশায় মাতে। একে একে খুঁজে বের করে হত্যা করতে থাকে হামলায় জড়িতদের। আর এমন সময় কুয়ানকে খুজে বের করতে মাঠে নামে ব্রিটিশ সরকারি গোয়েন্দা, যে চরিত্র করেছেন জেমস বন্ড খ্যাত পিয়ার্স ব্রসনান।

ছবিটিতে সেই চিরচেনা অ্যাকশন দৃশ্যতেই শুধু জ্যাকিকে দেখা যাবে না, ছবির অনেক আবেগগন দৃশ্যে দুচোখ ভারে কান্নাও করেছেন। ছবিটির চিত্রনাট্য জ্যাকির এমনই পছন্দ হয়েছে। তিনিও অর্থলগ্নি করেন।

পরিচালক মার্টিন ক্যাম্ববল কোনো বিষয়ে ছাড় দেননি। দৃশ্যগুলোর বাস্তবসম্মত করতে লন্ডনের ল্যামবেথ ব্রিজ রাস্তায় একটি দোতলা বাসে বিস্ম্ফোরণ ঘটিয়েছিলেন। সে সময় পুরা লন্ডনে নাকি আতঙ্ক ধরে গিয়েছিল। পুলিশও হাজির হয়ে গিয়েছিল। অবশ্য খুব বেশি সময় লাগেনি সবার ভুল ভাঙ্গতে। ভুল হবেই না কেন! বাসের উপর তলা উড়ে যায় বিস্ফোরনে। এতসব আয়োজন শেষে আগামীকালই বোঝা যাবে পিয়ার্স-জ্যাকি- ক্যাম্ববেল জুটি কেমন মাত করে।

এ সপ্তাহে বলিউডের একমাত্র সিনেমা `রাঁচি ডায়েরিজ`

আগামী সপ্তাহে দুই বড় ধামাকা আসছে তাই এ সপ্তাহটা `রাঁচি ডায়েরিজ’ এর মত ছোট ছবি দিয়ে পাড় হবে। ছবির সবচেয়ে বড় আকর্ষন এর প্রযোজক ও অভিনেতা অনুপম খের। বাকি সব সাদামাটা।

ছোট্ট এক শহরে বাস করা কিছু তরুনের গল্প। তার সঙ্গে মূল চরিত্রে থাকবেন এক তরুনী । গুডিয়া নামের তরুনীর সুপারষ্টার হওয়ার শখ। কিন্তু নজরে পড়ে স্থানীয় সন্ত্রাসী ঠাকুর ভাইয়ের। নায়ক মনীষ তো বাধা হবেই। ছোটবেলা থেকেই যে তারা একে অন্যকে ভালবাসে। ঠাকুরের মামলায় আসামি হয় মনীষ। গুডিয়া ও তার বন্ধুরা ক্রমেই নতুন নতুন ঘটনায় জড়িয়ে পড়ে। এসব ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে তারা ব্যাংক চুরির পরিকল্পনা করে। সেখানে সফল হয় না। বরং পুলিশের দৌড়ানি কপালে জোটে। হাসিঠাট্টার জীবন এক সময় হয়ে উঠে অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই।

মূলত কমেডিনির্ভর ছবি। তবে এ সময়ের প্রেম ভালবাসার গল্পও অনেকটা উপস্থিত থাকবে। সঙ্গে রাঁচির ঐতিহ্য ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এ ছবির মাধ্যমে পর্দায় উঠে এসেছে। রাচি নতুনভাবে পরিচয় পেয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটার মহেন্দ্র সিং ধোনির জন্মস্থান হিসেবে।

ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাসও ছবিটি নিয়ে বেশ আশাবাদী। সবসময়ই তিনি রাচির সৌন্দর্য্য সারা ভারতে তুলে ধরার জন্য নানা রকম কাজ করে থাকেন। তিনি ছবিটির প্রচারণায় আছেন। এমনকি সরকারী রাজস্ব ছাড়াই ঝাড়খন্ডের বিভিন্ন হলে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করে দেন তিনি।

ছবিটিতে অভিনয় করেছেন একঝাঁক নবীন অভিনয় শিল্পী। কারোই ফেইসভ্যালু নেই বললেই চলে। প্রধান নারী গুডিয়া চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাউন্দারিয়া শর্মা। ২০১৫ সালে `মিরুথিয়া গ্যাংস্টার` ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। ট্রেলারে গ্ল্যামার দেখিয়ে মুগ্ধ করেছেন। গীটার হাতে রকস্টার বনে যেতে চাওয়া এ তরুনী মুক্তির পর ছবির মূল আকর্ষন হতে পারে। তার বিপরীতে মনীষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন হিমেশ কোহলি। তিনি ২০১৪ সালে `আরিয়ান` ছবির মূলে অভিনয় করেছিলেন। `হামসে হ্যায় লাইফ` নামের একটি হিন্দি সিরিয়ালেও সকলের নজর কেড়েছেন। দীর্ঘদিন পর ছবির মাধ্যমে পর্দায় আসছেন জিমি শেরগিল। আর সন্ত্রাসীর ভুমিকায় আছেন অনুপম খের।

অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করছেন- তাহা শাহ, হারি বালা, পীতবাস, প্রদীপ সিং ও সতীশ কৌশিক। ছবিটির নির্মাতা ও চিত্রনাট্যকার সাত্ত্বিক মোহন্তও বেশ আশাবাদি ছবিটি নিয়ে। এটা তারও অভিষেক।


বাংলা ইনসাইডার/ এমআরএইচ