কালার ইনসাইড

প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে পরীমনির অভিযোগ!

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০১:৩৭ পিএম, ১৭ জুন, ২০২১


Thumbnail

চিত্রনায়িকা পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার ঘটনায় করা মামলার এজহারের বর্ণনার সঙ্গে পরীমনি বক্তব্যের মিল পাচ্ছন না তদন্ত-সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। ঘটনার দিন রাতের সিসিটিভি ফুটেজও প্রকাশ হয়েছে। সিসিটিভির ফুটেজর চুল চেরা বিশ্লেষণ চলছে। ঘটনার দিন রাতে ঢাকা বোট ক্লাবের দায়িত্বরত নিরাপত্তাকর্মীদের সঙ্গেও কথা বলেছেন তদন্ত-সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। তবে প্রাথমিক তদন্তে বোট ক্লাবের ঘটনার সঙ্গে পরীমণির অভিযোগের অনেক অমিল খুঁজে পাচ্ছেন তারা। 

পরীমণি সাভার থানায় দায়ের করা মামলায় বলেছেন, সেই রাতে পূর্ব পরিচিত অমিসহ কয়েকজন পরিকল্পিতভাবে দুই মিনিটের কাজ আছে বলে পরীমণিকে ঢাকা বোট ক্লাবের সামনে নিয়ে যান। সেখানে তারা গাড়িতে অপেক্ষা করেন। ছোট বোন বনির প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ায় তারা বারের পাশের একটি টয়লেট ব্যবহার করতে ভেতরে প্রবেশ করেন। কিন্তু ঢাকা বোট ক্লাবের প্রবেশ পথ ও অভ্যর্থনা কক্ষে থাকা সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, বোট ক্লাবের সামনে গাড়ি এসে থামার সঙ্গে সঙ্গেই স্বাভাবিকভাবেই পরীমণি ও তার সঙ্গীরা ক্লাবের ভেতরে প্রবেশ করেন। পরীমণি ক্লাবে প্রবেশ করেন ১২টা ২২ মিনিটে, আর ক্লাব থেকে তাকে ধরাধরি করে বের করা হয় ১টা ৫৯ মিনিটে।

রিমান্ডের জিজ্ঞাসাবাদে অমি বলেছেন, তারা ক্লাবের ভেতরে গিয়ে নাসির ইউ মাহমুদসহ একসঙ্গে মদ পান করেন। শেষে একটি বোতল নেওয়া নিয়ে প্রথমে একজন কর্মচারীর সঙ্গে পরীমণি বিতণ্ডা করেন। সেই বিতণ্ডায় যোগ দেন নাসির ইউ মাহমুদসহ আরও কয়েকজন। এছারাও, ঢাকা বোট ক্লাবে যাওয়ার আগে পরীমণির বনানীর বাসায় বসেই এক বোতল মদ পান করেন তারা সবাই। এসময় বাসাতে নাট্যপরিচালক চয়নিকা চৌধুরীও ছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছেন অমি। 

গোয়েন্দা পুলিশের কাছে অমি স্বীকার করেছেন, মদ্যপ অবস্থায় নাসির ইউ মাহমুদ পরীমণিকে কয়েকটি চড় দিয়েছিলেন। এসময় মেঝেতে পড়ে যান পরীমণি। মদ্যপ থাকায় পরীমণিকে তারা ধরাধরি করে গাড়িতে এনে তোলেন। তিনি দুই পক্ষকেই ঠাণ্ডা করার চেষ্টা করেছেন। ঘটনার পর পরীমণিকে একাধিক ক্ষুদেবার্তাও পাঠানো হয়। তবে জিজ্ঞাসাবাদে চড় দেওয়ার কথা অস্বীকার করেছেন নাসির ইউ মাহমুদ।

ঢাকা বোট ক্লাবের ওই ঘটনায় পরীমণির সঙ্গে থাকা কস্টিউম ডিজাইনার জিমি বিতণ্ডার সময়ের ১৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও করেছিলেন। সেই ভিডিওতে চিৎকার-চেঁচামেচির সময়ে নাসির ইউ মাহমুদকে বলতে শোনা যায়, `অমি তুমি এগুলাকে আর ক্লাবে আনবা না।`

অপরদিকে মামলার এজাহারে পরীমণি অভিযোগ করেন, বোট ক্লাবে বারের টয়লেট ব্যবহার শেষে নাসির তাকে কফি খাওয়ার অফার করেন। বিষয়টি এড়িয়ে গেলে নাসির মদের বোতল তার মুখে ঠেসে ধরেন। এতে তিনি দাঁত ও ঠোটে ব্যথা পান। তদন্ত সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা জানান, তদন্ত কর্মকর্তা ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পরীমণির সঙ্গে কথা বলবেন। এমনকি আলাদা আলাদা করে তার সঙ্গীদের সঙ্গেও কথা বলা হবে।

এদিকে এজাহার দায়েরের আগে বাসায় সংবাদ সম্মেলন ও গোয়েন্দা কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পরীমণি বলেছেন, তাকে পানীয়র সঙ্গে জোর করে কিছু খাওয়ানো হয়েছিল। যাতে তার গলা ও বুক জ্বলছিল। সেটির কারণেই ঘটনার দিন রাতে বনানী থানায় গিয়ে তিনি অসংলগ্ন আচরণ করেছিলেন। 

পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী দুই দিন আগে গণমাধ্যমে বলেন, `৮ জুন রাত সাড়ে তিনটার পর পরীমণি বনানী থানায় গিয়ে অভিযোগ করতে চান। কিন্তু তিনি অপ্রকৃতিস্থ থাকায় ও অসংলগ্ন কথাবার্তা বলায় পুলিশের একটি দল তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে পৌঁছে দেয়। পরদিন তাকে সুস্থ হয়ে থানায় আসতে বলা হয়। কিন্তু তিনি পরদিন আর থানায় আসেননি।`

এদিকে নতুন করে প্রশ্ন তৈরী করছে গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে পরীমনির ভাঙচুরের ঘটনা। তাছাড়া এদিন তার সঙ্গে সেই ব্যক্তি সাবেক প্রেমিক তামিম হাসানও ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। তাছাড়া পরীমনির বাসায় বিদেশি মদ থাকার খবরও শোনা যাচ্ছে বিভিন্ন গনমাধ্যমে। এই জলঘোলা পরিস্থিতিতে এবার প্রশ্নবিদ্ধ হতে শুরু করেছে পরীমনির অভিযোগ। এখন তদন্তের চুড়ান্ত ফলাফলে জল কোনদিকে গড়াবে সেটাই দেখার পালা। 



মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

শাখা-সিঁদুর-আলতায় প্রথমবার দেবী দুর্গাকে বরণ করলেন মিম

প্রকাশ: ০২:২৮ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail শাখা-সিঁদুর-আলতায় প্রথমবার দেবী দুর্গাকে বরণ করলেন মিম

শুরু হয়েছে হিন্দু ধর্মালম্বীদের বড় উৎসব দূর্গাপূজা। আজ মহা সপ্তমী। মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে পূজার আয়োজন। বিয়ের পর এটিই চিত্রনায়িকা বিদ্যা সিনহা মিমের প্রথম দূর্গাপূজা। দেবী দূর্গাকে বরণ করতে সাদা জামদানি পরে শাখা-সিঁদুর-আলতায় সেজেছেন তিনি।

রোববার (২ অক্টোবর) ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড পেজে পূজার সাজে বেশ কিছু ছবি পোস্ট করেছেন মিম। কাশবন ও দূর্গা মণ্ডপে তোলা ছবিগুলো নেটিজেনদের নজরে এসেছে। তারা নায়িকার অপরূপ লুকে মুগ্ধ, মন্তব্যের ঘরে এমনটাই জানিয়েছেন।



সাদামাটা শাড়িটির সঙ্গে উৎসবের জমকালো ভাব আনতে লাল রঙের গর্জিয়াস ব্লাউজ বেছে নিয়েছেন অভিনেত্রী। অসাধারণ ডিটেইলিং করা আছে ডিপ নেকের এই ব্লাউজে। এই ব্লাউজের পিঠজুড়ে রঙের দারুণ কারুকাজের দেবী দুর্গার অবয়ব। হাতায় আর পেছনে রয়েছে কড়ির কাজ। জরি, বুটি, স্টোন দিয়ে সাজানো হয়েছে পুরো ব্লাউজ। যা সাদা জামদানির সঙ্গে কন্ট্রাস্ট সৃষ্টি করতে সফল হয়েছে। 

গয়না হিসেবে গলায় বড় লেকলেস জড়িয়েছেন মিম। কানে পরেছেন ঝুমকা। সোনালি রঙা গয়না, ব্লাউজের কাজের সঙ্গে মেলবন্ধন তৈরি করেছে। হাতে শাঁখা-পলার পাশাপাশি সোনার বালাও পরেছেন তিনি। 

এদিকে সপ্তমীর শুভেচ্ছা জানিয়ে মিম লিখেছেন, শুভ মহা সপ্তমী। এবারের পূজা আমার জন্যে এক অন্যরকম অনুভূতি। শাখা, সিঁদুর, জামদানি শাড়ী,আলতা পরানো হাতে প্রথমবার বরণ করলাম দেবী দূর্গাকে!



তিনি আরও লেখেন, শরতের কাশফুল আর নিজের নতুন সাজ সবকিছুতেই কেমন যেন একটা স্নিগ্ধতা! আশা করি, সবার পুজো এ রকম সুন্দর কাটবে। 

উল্লেখ্য, পরাণ সিনেমা দিয়ে নিজের জাত চিনিয়েছেন মিম। এদিকে চলতি মাসে মুক্তির অপেক্ষায় আছে নির্মাতা রায়হান রাফির 'দামাল' ছবিটি। 

মিম   দূর্গাপূজা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

বিনা পারিশ্রমিকে চিরঞ্জীবীর সিনেমা করছেন সালমান

প্রকাশ: ০১:৫২ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail বিনা পারিশ্রমিকে চিরঞ্জীবীর সিনেমা করছেন সালমান

বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। তেলেগু সিনেমার মেগাস্টার চিরঞ্জীবী অভিনীত ‘গডফাদার’ সিনেমায় অতিথি চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। তবে চিত্রনাট্য না শুনে ও পারিশ্রমিক ছাড়াই এই সিনেমায় অভিনয়ের বিষয়ে রাজি হয়েছিলেন ‘দাবাং’ অভিনেতা।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এ প্রসঙ্গে চিরঞ্জীবী জানান, তিনি সালমানকে মেসেজ পাঠিয়েছিলেন। ‘বজরঙ্গি ভাইজান’খ্যাত এই তারকা উত্তরে বলেন, “হ্যাঁ চিরু গারু, আপনার জন্য কী করতে পারি?’ চিরঞ্জীবী বলেন, আমি তাকে বলেছিলাম, একটি ছোট চরিত্র করতে হবে কিন্তু খুবই সম্মানজনক। চাইলে লুসিফার সিনেমাটি দেখতে পারেন। তিনি বলেন, ‘না, না চিরু গারু, আমি এটি করব। শুধু আপনি কোনো ব্যক্তিকে পাঠান, যার সঙ্গে শিডিউল ও অন্য বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করতে পারি।’ দুই-তিন মিনিটের মধ্যে তিনি রাজি হয়েছিলেন।”

পরবর্তী সময়ে অভিনেতা রাম চরণ সালমান খানের সঙ্গে দেখা করেন। তাকে সালমান বলেন, চরণ, তুমি আমার ভাই। অবশ্যই সিনেমাটিতে অভিনয় করব। লুসিফার দেখতে হবে না। শুধু একজনকে বলো যেন আমার চরিত্রটি কী হবে সেটি আমাকে বর্ণনা করেন।

‘গডফাদার’ সিনেমার জন্য কোনো পারিশ্রমিকও নেননি সালমান খান। চিরঞ্জীবী বলেন, “যখন সিনেমার প্রযোজক তার কাছে যান এবং কিছু পারিশ্রমিকের প্রস্তাব দেন, তিনি সেটি গ্রহণ করেননি। এমনকি পরিমাণ কত সেটিও জানতে চাননি। তিনি বলেছিলেন, ‘রাম চরণ ও চিরঞ্জীবী গারুর প্রতি আমার ভালোবাসা কিনতে পারবেন না।” 

মালায়ালাম ভাষার ‘লুসিফার’ সিনেমার রিমেক ‘গডফাদার’। মূল সিনেমায় অভিনয় করেছেন মোহনলাল।

চিরঞ্জীবী-সালমান ছাড়াও ‘গডফাদার’ সিনেমায় আরো আছেন নয়নতারা। আগামী ৫ অক্টোবর সিনেমাটি মুক্তি পাবে।

সালমান খান  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

তাঁদের ‘বিয়ে বাণিজ্য’

প্রকাশ: ০১:৩৭ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail তাঁদের ‘বিয়ে বাণিজ্য’

‘মনপুরা’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে আলোড়ন তোলা নায়িকা ফারহানা মিলি। এবার তার সঙ্গে জুটি বাঁধলেন অভিনেতা রাশেদ সীমান্ত। ‘বিয়ে বাণিজ্য’ নাটকে তাদের প্রথমবারের মতো একসঙ্গে দেখা যাবে। টিপু আলম মিলনের গল্পে সুবাতা রাহিক জারিফার চিত্রনাট্যে নাটকটি পরিচালনা করেছেন এবি রোকন। এতে আরো অভিনয় করেছেন- অলিউল হক রুমি, শফিক খান দিলুসহ অনেকে।

গল্পকার টিপু আলম মিলন বলেন, নাটকের নায়ক জগলুল হায়দার তথ্য গোপন করে করে একের পর এক বিয়ে করেন এবং কিছুদিন পর পর তার অবস্থান পরিবর্তন করেন। জগলুল হায়দার কোনো সাধারণ মানুষকে বিয়ে করেন না। তিনি দূরারোগ্য রোগে আক্রান্ত অসহায় গরীব মেয়েদের বিয়ে করেন এবং তাদের ভালোমন্দ খাওয়া-দাওয়া দেখাশোনা সর্বোপরি সকল দায়িত্ব নিজ কাঁধে তুলে নেন। এভাবে একের পর এক বাড়তে থাকে জগলুল হায়দারের বিয়ের সংখ্যা। এতে তাকে সাহায্য করেন তার সহকারী সিদ্দিক।

নাটকের গল্প নিয়ে তিনি আরো বলেন, যে জগলুল হায়দারকে নতুন নতুন বিয়ের জন্য পাত্রীর খোঁজ এনে দেয় তাকে সম্মানী দেয় জগলুল হায়দার। ১৬তম বিয়েতে জগলুল হায়দারের ঘরে স্ত্রী হয়ে আসে লাবণী। লাবণীও দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত কিন্তু অন্য দশটা সাধারণ মেয়ের মত লাবণী চায় তার স্বামীর সেবা করতে যা জগলুলের অতীতের কোন স্ত্রী করেনি। অবাক হয় জগলুল। ধীরে ধীরে লাবণীর প্রতি একধরনের ভালো লাগা কাজ করতে থাকে জগলুলের। এভাবে গল্প এগিয়ে যায়।

রাশেদ সীমান্ত হাতেগোণা যে কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছেন প্রায় প্রতিটি ইউটিউবে কোটি কোটি ভিউ ছাড়িয়ে গেছে। সম্প্রতি ঢাকার উত্তরায় ‘বিয়ে বাণিজ্য’ নাটকটির শুটিং হয়েছে। এটি নিয়ে দারুণ আশাবাদী রাশেদ সীমান্ত। খুব শিগগির বৈশাখী টেলিভিশন চ্যানেলে নাটকটি প্রচার হবে।

মিলি   রাশেদ সীমান্ত  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

বুবলীর আড়ালে শাকিবের বিরুদ্ধে এক সহপ্রযোজককে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশ: ০৯:৪৭ পিএম, ০১ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail বুবলীর আড়ালে শাকিবের বিরুদ্ধে এক সহপ্রযোজককে ধর্ষণের অভিযোগ

শাকিব খান ও বুবলীর প্রেম ও বিয়ের বিষয়টা সামনে আসার পর থেকে এই নায়ককে নিয়ে নানান সমালোচনা শুরু হয়। সামনে আসে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের সাথে ও বিচ্ছেদের বিষয়টি। এছাড়াও আলোচনা হয় পূজা চেরির সাথে প্রেম নিয়েও। সেই সাথে যুক্ত হয় রাত্রি নামে এক চলচ্চিত্র শিল্পীর সাথে বিয়ের কথাও। এবার প্রকাশ্যে এলো অস্ট্রেলিয়ায় একটি ছবির শুটিংয়ে সময় এক সহপ্রযোজককে শাকিব খানের ধর্ষণের অভিযোগ। 

শনিবার (১ অক্টোবর)  মিলি সুলতানা নামের এক প্রবাসী সাংবাদিক এই অভিনেতার বিরুদ্ধে নিজের ফেসবুকে এই বিস্ফোরক তথ্যটি প্রকাশ করেন। স্ট্যাটাস দিয়ে তিনি লেখন, অথর্ব খানের "সুপারহিরো" সিনেমার শ্যুটিং হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ায়। নায়িকা ছিলেন বুবলী। প্রযোজকের কাছে খান সাহেবের ফরমায়েশ ছিল, হোটেলে তার ঠিক পরের কামরা যেন বুবলীর জন্য দেয়া হয়। যাতে বুবলীর সাথে তিনার লারেলাপ্পা মার্কা রোমান্স নির্বিঘ্নে কন্টিনিউ করতে পারে। হলোও তাই- সিনেমার শ্যুটিংয়ের সাথে ধুমায়ে চলতে লাগলো তাদের হোটেল রোমান্স। ২০১৮ সালে তার জন্য বিপদ হয়ে এলো এক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এক অস্ট্রেলিয়ান নারী। জানা গেছে শাকিবের একটি ছবির সহপ্রযোজক ছিলো সেই নারী। তার নাম অ্যানি সাবমেরিন। সেই রমণীকে দেখে মজে যান ঢালিউডের প্রেমকুমার। ভাবলেন, ফ্রি'তে হাড়িপ্পা হাড়িপ্পা খেললে মন্দ কি? অ্যানি সাবমেরিন বিবাহিতা। তার স্বামী পেশায় চিকিৎসক ছিলেন।

২০১৮ সালে অ্যানি মারাত্মক ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ে দিলেন স্বঘোষিত কিং খানের উদ্দেশ্যে--তিনি কিং খানের অশ্লীল যৌনতার শিকার হয়েছেন। যার ফলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিলো। ডাক্তারের কাগজপত্রেও সেই উল্লেখ ছিল। অস্ট্রেলিয়ান পুলিশের কাছে খান সাহেবের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে অ্যানি সাবমেরিন। পুলিশ নায়ককে আটক করতে যাওয়ার আগে খবর পৌঁছে যায় তার কানে। ফোন করেন জনৈক প্রভাবশালী ইমিগ্রেশন ল'ইয়ারকে। সেই প্রভাবশালী ল'ইয়ার খান সাহেবের দোসর বনে যান, পুলিশের কার্যক্রম স্থগিত করে দেন। পুলিশের গ্রেফতার থেকে বেঁচে যান কিং খান। অ্যানি সাবমেরিন যে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলো সেই হাসপাতালে ডিউটি ডাক্তার ছিলেন তার স্বামী। স্ত্রীর চারিত্রিক স্খলন দেখে ডিভোর্স দেন। কিং খানের এক ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি গোপনে প্লেনের টিকিট কেটে তাকে প্লেনে বসিয়ে দেন। এভাবে অস্ট্রেলিয়া থেকে বাংলাদেশে চম্পট দেন কিং খান।

তিনি আরও লেখেন, আর রেপের বিষয়ে যখন তাকে জিজ্ঞেস করা হয় তিনি বলেছেন, "আমি কেন তাকে (অ্যানি) রেপ করতে যাবো? বরং সে-ই আমাকে ড্রিংক করিয়ে বেসামাল করে দেয়। তারপর যা হয়েছে তা দুজনের সম্মতিতেই হয়েছে। অ্যানি আমাকে প্রলুব্ধ করেছে। এমন অবস্থায় আমি কি তসবি পড়বো............?" মজার বিষয় বুবলীও তখন অস্ট্রেলিয়া ছিলেন। কিন্তু বুবলী ঘূর্ণাক্ষরেও বুঝতে পারেননি তার পিঠপিছে অ্যানি সাবমেরিনের সাথে লীলাখেলায় মেতেছিলেন তার প্রেমকুমার। হায়রে এভাবেও কেউ ঠক খায়??

শাকিব খান   বিয়ে   সন্তান   বুবলী  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

সন্তানকে প্রকাশ্যে আনতেই তাঁর নামে ফেসবুক পেইজ খুলেছেন বুবলী

প্রকাশ: ০৭:৪০ পিএম, ০১ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail

ভার্চুয়াল জগতে শুভেচ্ছা বার্তায় ভাসছেন শাকিব খান-বুবলীর সন্তান শেহজাদ খান বীর। সেখানে ঝড়ের গতিতে বাড়ছে তার লাইক-ফলোয়ার। বুবলীপুত্র বীরের নামে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি পেজ খোলা হয়েছে। ছেলের নামে পেজটি খুলেছে বীরের মা বুবলী। নায়িকার ভেরিফায়েড পেজে গেলেই জানা যাবে তার সত্যতা। ৪০ লাখ ৩০ হাজার ফলোয়ার থাকা বুবলীর পেজ থেকে একমাত্র ফলো করা পেজের নাম শেহজাদ খান বীর। তবে বাবা শাকিব খানের ভেরিফায়েড পেজ থেকে এখনও ছেলে বীরের পেজে ফলো করা হয়নি।



আনুষ্ঠানিকভাবে বাবা-মায়ের পেজে বীরের নাম ও ছবি প্রকাশের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তার পেজটি খোলা হয়েছে। এই পেজের অ্যাবাউটে লেখা রয়েছে বীরের বাবা-মায়ের নাম।

শেহজাদের পেজে মাত্র তিনটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে, যেগুলোতে এরই মধ্যে কয়েক হাজার লাইক-কমেন্ট করেছেন নেটিজেনরা। ছবিগুলো শেয়ারও করেছেন অনেকে। ইতোমধ্যে সেই পেজটি ছয় হাজার আইডি থেকে ফলো করা হয়েছে।



এদিকে কয়েক দিনের নানান জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শুক্রবার বীরের ছবি ও তার বাবার নাম প্রকাশ করেন নায়িকা শবনম বুবলী। সেদিনই একই ধরনের পোস্ট দিয়ে সন্তানের স্বীকৃতি দেন বাবা শাকিব খানও।

শাকিব খান   বিয়ে   সন্তান   বুবলী  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন