ঢাকা, শনিবার, ২০ জানুয়ারি ২০১৮ , ৭ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider
Bangladesh Tri-Nation Series 2018
MATCH-3: BANGLADESH vs SRILANKA
SRILANKA: 157/10 (32.2/50ov)
BANGLADESH: 320/7(50.0ov)
Target: 321(BAN WON BY 163 RUNS)

সব ভোটারের সঙ্গে সংযুক্ত হবেন শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯ জানুয়ারি ২০১৮ মঙ্গলবার, ১০:০০ পিএম
সব ভোটারের সঙ্গে সংযুক্ত হবেন শেখ হাসিনা

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলটির সভাপতি শেখ হাসিনার ইমেজ এবং জনপ্রিয়তাকে পুরোদস্তুর কাজে লাগাতে চায়। দলটির নির্বাচনী প্রচারণার মূল অস্ত্র হবেন শেখ হাসিনা। তাঁর উপর নির্ভর করেই নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চায় আওয়ামী লীগ। এ কারণেই সকল ভোটারের সঙ্গে সংযুক্ত হবেন শেখ হাসিনা। এমন নির্বাচনী পরিকল্পনা তৈরি করছে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বাংলা ইনসাইডারকে বলেন, ‘শেখ হাসিনা এই মুহূর্তে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তি। মানুষ তাঁকে বিশ্বাস করে, তাঁকে আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার মনে করে। আমরা নির্বাচনী পরিচালনায় তাঁর বার্তা ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে চাই।’ আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র বলছে, শুধু জনসভা নয়। এর বাইরেও আধুনিক এবং তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর প্রচারণার মাধ্যমে শেখ হাসিনা ঘরে ঘরে মানুষের কাছে নির্বাচনী বার্তা পৌঁছে দেবেন।

আওয়ামী লীগের সূত্রগুলো বলছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনের প্রচারাভিযানের সময় অন্তত তিনবার সকল ভোটারের কাছে ক্ষুদেবার্তা পাঠাবেন। ক্ষুদেবার্তায় নির্বাচনে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে আওয়ামী লীগকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার কিছু আকর্ষণীয় বার্তা দেওয়া হবে। অন্তত একটি ভয়েস মেসেজ পাঠানো শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে। সেখানে তাঁর কণ্ঠে ভোটারদের বিনম্র অনুরোধ জানানো হবে। তরুণ ভোটারদের আকৃষ্ট করতে শেখ হাসিনার এই বার্তাগুলো সোশ্যাল মিডিয়া যেমন ফেসবুক ইউটিউবেও ছড়ানো হবে। আওয়ামী লীগ নির্বাচন উপলক্ষে আলাদা এক বা একাধিক ফেসবুক পেজ খুলবে। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বার্তা ও বক্তব্য এসবে প্রচার করা হবে।

নির্বাচনী প্রচারাভিযানে শেখ হাসিনা সকল নির্বাচনী এলাকার সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হবেন। বিশেষ করে যেসব নির্বাচনী এলাকায় সময়ের স্বল্পতায় শেখ হাসিনা যেতে পারবেন না, সেই সময় নির্বাচনী এলাকায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি যুক্ত হবেন। তবে এখানে শুধু তিনি বক্তব্যই রাখবেন না। এলাকার মানুষের সঙ্গে তাঁদের সমস্যা এবং সমাধানের পথ নিয়েও প্রশ্নোত্তর পর্বের মতো খোলামেলা কথা বলবেন।

শহরের ভোটার এবং তরুণ ভোটারদের কাছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ই-মেইল পাঠাবেন। আওয়ামী লীগের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, নির্বাচনী প্রচারণায় জনগণ তাঁদের প্রিয় মানুষকে সব সময় কাছে পাবেন। জনগণ বুঝতে পারবেন তিনি (শেখ হাসিনা) জনগণের কত কাছের।

Read in English- http://bit.ly/2FlZO8j

বাংলা ইনসাইডার/জেডএ