ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

‘দণ্ডিত হলে রাজনীতি ছাড়া উচিৎ বেগম জিয়ার’

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ মঙ্গলবার, ১০:০০ পিএম
‘দণ্ডিত হলে রাজনীতি ছাড়া উচিৎ বেগম জিয়ার’

৮ ফেব্রুয়ারির রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপির কর্মকাণ্ডে হতাশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একটি রাজনৈতিক দল যারা কিনা দুবার দেশ শাসন করেছে তাঁরা কীভাবে আগে থেকেই আদালতকে থ্রেট করতে পারে,এই ভেবে হতবাক প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ট দুজন উপদেষ্টা এবং একজন মন্ত্রীর সাথে আলাপকালে এই মন্তব্য করেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ট সূত্রগুলো এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, দেশের সামগ্রিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী তাঁর সহকর্মীদের সাথে কথা বলতে গিয়ে বলেন, ‘এতিমের টাকা মেরে খেয়েছে। অথচ তাদের এতোটুকু লজ্জা নেই। সামান্যতম লজ্জা থাকলে এই রায়ে দণ্ডিত বেগম জিয়ার পদত্যাগ করা উচিৎ। কিন্ত দেখেশুনে মনে হচ্ছে,তিনি (বেগম জিয়া ) উদোর পিণ্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপাতে চাইছেন।‘

প্রধানমন্ত্রী সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ‘এই রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপি জনগণকে জিম্মী করতে পারে। সন্তাস, নৈরাজ্যের পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারে।‘ এজন্য প্রধানমন্ত্রী এখন থেকেই সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।

আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জনগণের জানমালের হেফাজতে সব ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন বলেও ঐ সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে। প্রধানমন্ত্রী দলীয় নেতাকর্মীদের বিএনপির উস্কানীতে পা না দেয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেছেন, ‘এটা আইন শৃঙ্খলার বিষয়, কোনো রাজনৈতিক বিষয় নয়।`প্রধানমন্ত্রী অবশ্য দলের কর্মীদের সজাগ থাকারও নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী আলাপকালে বলেছেন, ‘জানি না কোর্টের রায় কি হবে। তবে ‘চোর’ প্রমাণ হলে তাঁর মানে মানে রাজনীতি থেকে সরে যাওয়া উচিত। ‘দুর্নীতিবাজ’ প্রমাণিত হবার পরও বেগম জিয়া যদি রাজনীতি করেন, সেটা হবে রাজনীতিবীদদের দুর্ভাগ্য। কারণ তখন তাঁর জন্য জনগণ রাজনীতিবীদদের খারাপ ভাববে।‘

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দুবারের প্রধানমন্ত্রী কিভাবে এতিমের টাকা চুরি করেন? তাঁদের কি সবকিছুই গেছে? বেগম জিয়া কি জানেন, তিনি রাজনীতির কতবড় ক্ষতি করেছেন?’

প্রধানমন্ত্রী অবশ্য আশাবাদী দেশের মানুষ এখন এসব বোঝে। বেগম জিয়া নিজে সরে না গেলেও জনগণই তাঁকে নির্বাচনের মাধ্যমে সরিয়ে দেবে।

৮ ফেব্রুয়ারি রায়ের দিন অবশ্য প্রধানমন্ত্রী ঢাকায় থাকবেন না, প্রাক-নির্বাচনী সফরে তিনি যাবেন বরিশাল।


বাংলা ইনসাইডার