ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ৪ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ইতিহাসের এই দিনে: ১৬ সেপ্টেম্বর

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ রবিবার, ০৯:৩২ এএম
ইতিহাসের এই দিনে: ১৬ সেপ্টেম্বর

একটি দিন ২৪ ঘণ্টা। ১৪৪০ মিনিট। ৮৬ হাজার ৪০০ সেকেন্ড। সময়ের হিসেবে অতি অল্প সময়। আবার একটি ঘটনার জন্য যথেষ্ট সময়। ইতিহাস ঘেটে দেখা যায় বছরের প্রতিটি দিনে ঘটেছে অনেক উল্লেখযোগ্য ঘটনা। ইতিহাসের কৌতুহল উদ্দীপক ও উল্লেখযোগ্য ঘটনাগুলোকে স্মরণের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলা ইনসাইডার। ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া কিছু ঘটনার কথা জানালাম:

আজ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, রোববার, ১ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ২৫৯ তম দিন। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ কিছু ঘটনা।

ঘটনাবলী

১৯৩১ - হিজলি জেলে রাজবন্দিদের ওপর পুলিশ গুলি চালায়।

১৯৪০ - মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২১ থেকে ৩৫ বছর বয়স্ক পুরুষদের সেনাবাহিনীতে যোগদান বাধ্যতামূলক করা হয়।

১৯৪১ - ইরানের শাহ রেজা খান পাহলভি সিংহাসন ত্যাগ করেন।

১৯৫৩ - যুক্তরাষ্ট্রের রক্সি থিয়েটারে বিশ্বের প্রথম সিনেমাস্কোপ চলচ্চিত্র ‘দ্য রোব’ প্রদর্শিত।

১৯৬৩ - মালয়েশিয়া স্বাধীনতা অর্জন করে।

১৯৭৫ - পাপুয়া নিউগিনি স্বাধীনতা লাভ করে।

জন্মদিন

লরেন বাকল (১৯২৪ - ২০১৪)

লরেন বাকল ছিলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী। তিনি তাঁর ভিন্নধর্মী কণ্ঠ ও অস্বস্তিদায়ক চাহনীর জন্য পরিচিত। ১৯৯৯ সালে আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউট তাদের ধ্রুপদী হলিউড চলচ্চিত্রের সেরা নারী তারকা তালিকায় তাকে ২০তম স্থান প্রদান করে এবং ‘চলচ্চিত্রের স্বর্ণযুগে তাঁর কেন্দ্রীয় অবস্থানের স্বীকৃতি’ হিসেবে ২০০৯ সালে একাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস তাকে সম্মানসূচক অস্কার প্রদান করে।

মৃত্যুবার্ষিকী

রোনাল্ড রস (১৮৫৭ - ১৯৩২)

রোনাল্ড রস একজন স্কটিশ চিকিৎসক ছিলেন। ম্যালেরিয়া নিয়ে তাঁর গবেষণার জন্য ১৯০২ সালে তিনি নোবেল পুরস্কার পান। তিনিই প্রথম দেখান কি করে ম্যালেরিয়া ছড়ায়। তাঁর ভারতীয় সহ-গবেষক পাণিহাটি-নিবাসী ডাক্তার কিশোরীমোহন বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই কর্মের জন্য ব্রিটেনের সম্রাট এডোয়ার্ড স্বর্ণপদকে ভূষিত করেন।

জেমস হপউড জিন্স (১৮৭৭ - ১৯৪৬)

জেমস হপউড জিন্স একজন প্রখ্যাত ইংরেজ প্রাবন্ধিক ও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী লেখক। তিনি ক্যামব্রীজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেন এবং ১৯০৫ থেকে ১৯০৯ সাল নাগাদ আমেরিকার প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ে ফলিত গণিতের অধ্যাপক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৩৫ সাল থেকে শুরু করে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি রয়েল ইনস্টিটিউশন ইন ইংল্যান্ড-এ জোতির্বিদ্যা বিষয়ে অধ্যাপনা করেন। তিনি বিজ্ঞানের ওপর জাদুকরী ও মোহময় সব লেখা লিখেছেন। তাঁর জনপ্রিয় বইয়ের মধ্যে `আমাদের ঘিরে থাকা মহাবিশ্ব` এবং `রহস্যময় মহাজগৎ` চিরায়তের মর্যাদা পেয়েছে।

বাংলা ইনসাইডার/বিপি