ঢাকা, রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ইশতেহারের অপেক্ষায়

প্রণব সাহা
প্রকাশিত: ০১ ডিসেম্বর ২০১৮ শনিবার, ১০:৩০ পিএম
ইশতেহারের অপেক্ষায়

প্রথম হলো সিপিবি। সবার আগেই নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করলো দলটি। যদিও ভোটের মাঠে তাদের প্রভাব কম। কিন্তু এবার সিপিবিসহ বামদলগুলোর গণতান্ত্রিক বামজোট প্রার্থী দিয়েছে ১৩৫ আসনে। আর সিপিবি দলগতভাবে প্রার্থী দিয়েছে ৭৭টি আসনে। জাতীয় সংসদে দলের প্রতীক আর দলের নীতি-আদর্শ-লক্ষ্য ভোট পাওয়ার মূল বিষয়। কিন্তু আমরা দেখি রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনী ইশতেহার নিয়ে বেশি সিরিয়াস নয় । নির্বাচন যে এই সময়ে হবে সেটা সকল রাজনৈতিক দলেরই জানা ছিল। কিন্তু ভোটের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু হওয়ার আগে কোনো দলই তাদের ইশতেহার প্রকাশ করতে চান না ।

সিপিবি তাদের ইশতেহার ঘোষণা করে বলেছে এবার তাদের লক্ষ্য তারুণ্য। তারা ইশতেহারের শিরোনাম দিয়েছে ‘ভিশন-মুক্তিযুদ্ধ ৭১’। এই ইশতেহার বাস্তবায়ন করে বাহাত্তুরের সংবিধান প্রতিষ্ঠা করাই সিপিবির মূল লক্ষ্য। এদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের আগেই জানিয়েছিলেন যে ১৫ ডিসেম্বরের পর দলের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করা হবে। কিন্তু আওয়ামী লীগের প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপি কবে তাদের ইশতেহার প্রকাশ করবে, তা এখনো পরিষ্কার নয়। আবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট যদি জোটগত ইশতেহার ঘোষণা করেন, সেক্ষেত্রে বিএনপি আলাদা করে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করবে কি না, তাও স্পষ্ট নয় ।

নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী রাজনৈতিক দলগুলো ভোটারদের কাছে যাবে মূলত ইশতেহার নিয়ে। কিন্তু এত কম সময় ইশতেহার প্রচারণায় থাকে আর সাধারণ মানুষের বোঝার মত ইশতেহারও অনেক সময় দেওয়া হয়না। আসলে ইশতেহার বলতেই আমরা শুধু বুঝি কতগুলো প্রতিশ্রুতি মাত্র।

আমরা আশা করতেই পারি যে নির্বাচনে অংশ নেওয়া রাজনৈতিক দলগুলোর প্রকাশিত ইশতেহার নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হবে। নির্বাচন কমিশন সেই সব ইশতেহার জনসাধারণের জন্য প্রচারের ব্যবস্থা করবেন। যাতে জনসাধারণ সেই ইশতেহার বুঝে ভোটের সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

বাংলা ইনসাইডার/জেডএ