ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৬ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

২০১৯ সাল: বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ শরণার্থী সংকট

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১ জানুয়ারি ২০১৯ মঙ্গলবার, ১২:০২ পিএম
২০১৯ সাল: বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ শরণার্থী সংকট

বিদায়ী বছরের বাধা-বিপত্তি পেছনে ফেলে সবাই নতুন বছরের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করছে। নিঃসন্দেহেই বিশ্বের একেকটি অঞ্চল একেক ধরনের চ্যালেঞ্জের মুখে রয়েছে। তবে একটি বিষয়ে সবগুলো অঞ্চলই এক বিন্দুতে এসে মিলে যাচ্ছে, তা হলো- শরণার্থী সংকট। ইউরোপ, আমেরিকা, এশিয়া এমনকি আফ্রিকাতেও শরণার্থী সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। রাজনৈতিক, সামরিক, জাতিগত ও মতাদর্শের ভিন্নতার কারণে বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা বাড়ছে, সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে শরণার্থীর সংখ্যাও।

মাত্র ৫৬ হাজার বর্গমাইলেরও কম আয়তনের বাংলাদেশে বর্তমানে অবস্থান করছে ১১ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর জাতিগত নিধনের শিকার হয়ে বিভিন্ন সময়ে এরা নিজেদের বসতভিটা ছাড়তে বাধ্য হয়। বর্তমান বিশ্বের শরণার্থী সমস্যার সবচেয়ে দুঃখজনক চিত্র এটি।

গৃহযুদ্ধ, সামরিক আগ্রাসন ও জঙ্গী তৎপরতার কারণে আরব বিশ্বের লাখ লাখ মানুষ নিজের দেশ ছেড়েছে। এর মধ্যে শুধু সিরিয়া থেকেই অন্যদেশে আশ্রয় নিয়েছে অন্তত ৫৫ লাখ মানুষ। তুরস্কে বর্তমানে ২৫ লাখ সিরিয়ান শরণার্থী রয়েছে।  এছাড়া লেবানন, জর্ডান, জার্মানি, সৌদি আরব, ইরাক, কুয়েত, মিসর, সুইডেন, হাঙ্গেরী, কানাডা, ক্রোয়েশিয়া, গ্রিস, অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড, সার্বিয়া, সিঙ্গাপুরসহ আরও বেশ কয়েকটি দেশে আশ্রয় নিয়েছে তারা।

বর্তমানে শরণার্থী হিসেবে জীবন কাটাচ্ছে প্রায় ৩ কোটি মানুষ। এসব শরণার্থীর অর্ধেকেরই বয়স ১৮ বছরের নিচে। এখনো ১ কোটি মানুষের কোনো পরিচয় নেই। কোনো দেশই এদের নাগরিক অধিকার ও স্বীকৃতি দিচ্ছে না। তাদের সঙ্গে এমন আচরণ করা হচ্ছে যেন তারা পৃথিবী নামক গ্রহের কেউ নয়। এই শরণার্থীরা পায় না শিক্ষা, স্বাস্থ্য, চাকরি ও স্বাধীনভাবে চলাফেরার অধিকার।

সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, বিশ্বের কোথাও না কোথাও প্রতি মিনিটে অন্তত ২০ জন মানুষ ঘরবাড়ি, দেশ সব ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে অন্য কোথাও। বেছে নিচ্ছে অনিশ্চিত জীবন। অনেক উন্নত দেশই এই শরণার্থীদের নিজেদের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে চিহ্নিত করছে। ইউরোপের কোনো দেশে আশ্রয়ের আশায় দেশ ছেড়ে ভূমধ্যসাগরে সলিল সমাধি ঘটছে অনেকের।

নিজ দেশকে অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে শক্তিশালী করা যে কোনো রাষ্ট্রনেতার  জন্যই বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু ক্রমবর্ধমান এই শরণার্থীদের পুনর্বাসন করাটা কি সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ নয়?

বাংলা ইনসাইডার/এএইচসি/এমআর