ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ৯ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

পাসপোর্ট নিয়ে অজানা দশ

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪ জানুয়ারি ২০১৯ শুক্রবার, ১০:০৭ এএম
পাসপোর্ট নিয়ে অজানা দশ

নিজ দেশের বাইরে ভ্রমণের ক্ষেত্রে পাসপোর্ট এক অপরিহার্য দলিল। এটা কখনও কোন দেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে বাড়তি সুবিধা দেয়, আবার কখনও কোন দেশে প্রবেশাধিকার একেবারে বন্ধও করে দেয়। এখানে বিভিন্ন দেশের পাসপোর্ট নিয়ে মজার দশ তথ্য তুলে ধরা হলোঃ

পাসপোর্টে পারিবারিক ছবি!

অতীতে পাসপোর্ট তৈরির জন্য যে কোন ধরনের ছবি দিলেই চলতো। যে কেউ চাইলে পারিবারিক ছবিও ব্যবহার করতে পারতেন।

ইতিহাসের প্রথম পাসপোর্ট

পারস্যের রাজা প্রথম আরটাজেরেস তৎকালীন জুডিয়া নগরের ভেতর দিয়ে নিরাপদে চলাচলের জন্য এক সরকারি কর্মকর্তাকে একটি অনুমতিপত্র দিয়েছিলেন। একেই ইতিহাসের প্রথম পাসপোর্ট হিসেবে ভাবা হয়।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের আগে পাসপোর্টে ছবি লাগতো না

পাসপোর্টে ছবি লাগানোর প্রথা শুরু হয় প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার পর। সেসময়  এক জার্মান গুপ্তচর জাল আমেরিকান পাসপোর্ট নিয়ে ব্রিটেনে ঢুকে পড়েছিলেন। এরপর থেকেই ছবিযুক্ত পাসপোর্ট বাধ্যতামূলক করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রে ওজন কম-বেশি হলেই পাসপোর্ট নবায়ন

যুক্তরাষ্ট্রে কারো ওজন খুব বেশি কমে গেলে বা বেড়ে গেলে পাসপোর্ট নবায়ন করতে বলা হয়।

বেশিরভাগ মার্কিনিদের পাসপোর্ট নেই

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি হিসাব অনুযায়ী, দেশটির মোট নাগরিকের সংখ্যা ৩২ কোটি ১৩ লাখ ৬২ হাজার ৭৮৯। আর পাসপোর্টধারীর সংখ্যা মাত্র ১২ কোটি ১৫ লাখ ১২ হাজার ৩৪১ জন। অর্থাৎ দেশটির অর্ধেকেরও বেশি মানুষের কোনো পাসপোর্ট নেই।

পাসপোর্ট বিক্রি করেছে টোঙ্গা

পলিনেশিয়ান দ্বীপ রাষ্ট্র টোঙ্গা ২০ হাজার ডলারে বিদেশিদের কাছে পাসপোর্ট বিক্রি করেছে। দেশটির রাজা প্রয়াত চতুর্থ তৌফাহাউ টুপাউ রাষ্ট্রীয় তহবিল সংগ্রহের উদ্দেশ্যে বিদেশিদের কাছে পাসপোর্ট বিক্রি করেছিলেন বলে জানা যায়।

নিকারাগুয়ার পাসপোর্ট সবচেয়ে সুরক্ষিত

যুক্তরাষ্ট্র বা যুক্তরাজ্য নয়, নিকারাগুয়ার পাসপোর্ট জাল করা সবচেয়ে কঠিন। এই দেশটির পাসপোর্টে হলোগ্রাম এবং জলছাপসহ ৮৯টি নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে।

ব্রিটেনের রানীর কোন পাসপোর্ট নেই

ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের কোনো পাসপোর্ট নেই। তবে রানীর গোপন দলিলের জন্য পাসপোর্ট ইস্যু করা হয়। রানীর তরফে যেসব বার্তাবাহক রয়েছেন তারা নানা ধরনের গোপন দলিল সারা বিশ্বে পৌঁছে দেন। আর এই দলিলগুলোর জন্য পাসপোর্ট তৈরি করা হয়।

পাসপোর্ট নাকি ছবির ফ্লিপ-বুক?

ফিনিশ এবং স্লোভেনিয়ান পাসপোর্ট ছবির ফ্লিপ-বুক হিসেবে কাজ করে। এই দেশ দুটির পাসপোর্টের পাতা দ্রুত উল্টাতে থাকলে পাতার নীচের একটি ছবি দ্রুত নড়তে দেখা যায়।

স্ক্যান্ডিনেভিয়ান পাসপোর্টে দেখা যায় সুমেরু প্রভা

কোনো স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশের পাসপোর্ট ইউভি আলোতে রাখলে `নর্দার্ন লাইটস` বা সুমেরু প্রভার ছবি ভেসে ওঠে।

সূত্র: বিবিসি

বাংলা ইনসাইডার/এএইচসি/এমআর