ঢাকা, শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

একই তারিখে জন্মদিন হিটলার - ড. কামালের

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২০ এপ্রিল ২০১৯ শনিবার, ১২:১০ পিএম
একই তারিখে জন্মদিন হিটলার - ড. কামালের

আজ ইতিহাসের অন্যতম স্বৈরশাসক আডলফ হিটলারের জন্মদিন। কাকতালীয়ভাবে ড. কামাল হোসেনেরও আজ জন্মদিন। ৮৩ তম জন্মদিনে ড. কামাল চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন। এখনও দেশে ফেরেননি তিনি।  

গ্রহে-নক্ষত্রে কিংবা রাশিচক্রে যারা বিশ্বাস করেন তারা জানেন যে, একই দিনে জন্মদিন হলে চারিত্রিক কিছু সাদৃশ্য থাকে। কিছু না কিছু মিল খুজে পাওয়া যায়। সিংহ রাশি, কন্যা রাশি বা বিভিন্ন রাশিচক্রে যেমন কিছু মিল থাকে ঠিক তেমনিভাবে একই দিনে জন্মদিনেও কিছু মিল থাকে। ড. কামাল হোসেন এবং হিটলারের জন্মদিন একই দিনে। এই দুইজনের মধ্যে কি আদৌ কোনো মিল আছে?

আমরা যদি দেখি দুজনের চেহারা, ভাবভঙ্গি, চাহনী, দৃষ্টিভঙ্গিতে কিছুটা সামঞ্জস্য আছে। কিন্তু তাঁদের মধ্যে চারিত্রিক কোনো মিল আছে কিনা সেটা যদি আমরা খুঁজে দেখার চেষ্টা করি তাহলে আমরা দেখবো যে- হিটলারের সঙ্গে আসলে পৃথিবীর কারোরই তুলনা চলে না। হিটলার একজন নরপিশাচ, স্বৈরশাসক। যেভাবে তিনি স্বেচ্ছাচারীভাবে গণহত্যা করেছেন সেটার সঙ্গে কারও তুলনা হয়না। কিন্তু কিছু ছোট ছোট বিষয় মিলে যায় হিটলারের সঙ্গে ড. কামাল হোসেনের। যেহেতু দুজনের জন্ম একইদিনে আমরা কিছু মিল খুঁজে দেখার চেষ্টা করি।

প্রথমত; হিটলার এবং ড. কামাল হোসেনের মধ্যে একটি অদ্ভুত মিল রয়েছে। হিটলারের মত ড. কামালও শর্ট টেম্পার্ড। আমরা যদি পেছনে ফিরে তাকাই তাহলে দেখবো যে, ৩০ শে ডিসেম্বর নির্বাচনের আগে ড. কামাল সাংবাদিকদের ‘খামোশ’ বলে কণ্ঠরোধ করতে চেয়েছেন। হিটলারের মানসিকতাও এমনই ছিল। হিটলার কারও প্রতি নাখোশ হলে তাঁকে মেরে ফেলতেন আর ড. কামাল তাঁকে ‘খামোশ’ বলেন। পার্থক্য এতটুকুই।

দ্বিতীয়ত; হিটলার গণতন্ত্রের কথা বলে বিপুল জনপ্রিয়তা নিয়ে বিজয়ী হয়েছিল। কিন্তু তাঁর দলের মধ্যেই গণতন্ত্র ছিল না। হিটলারের কথাই শেষ কথা ছিল তাঁর দলে। ঠিক তেমনিভাবে কামাল হোসেন গণফোরাম করেছেন। গণফোরামের মধ্যে তিনি গণতন্ত্র গণতন্ত্র করেন কিন্তু গণফোরাম মানেই হলো কামাল হোসেন, কামাল হোসেন মানেই হলো গণফোরাম। একে অন্যের পরিপূরক। এখানে কামাল হোসেনের কথাই শেষ কথা। হিটলার যেমন তাঁর রাজনৈতিক জীবনে নীতি আদর্শের কথা বলতো এবং সেটারই বিরোধীতা করতো সবচেয়ে বেশি ঠিক তেমনিভাবে ড. কামাল হোসেনও মুখে জামাত, স্বাধীনতা বিরোধীদের কথা বলেন আবার তাঁদের সঙ্গে নিয়েই নির্বাচনে যান।

তবে আমরা কখনোই মনে করি না যে, ড. কামাল হোসেন হিটলারের মতো। কিন্তু একই তারিখে জন্মদিনের জন্য যেকোনো পাঠকেরই মনে হতে পারে তাঁদের মধ্যে মিল অমিলগুলো কী কী। পাঠকের প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই এই মিলগুলো তাঁদের সামনে তুলে ধরা হলো।

বাংলা ইনসাইডার/এসআর