ঢাকা, বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ঈদের এই লম্বা ছুটিতে ঘুরতে যেতে পারেন যেসব স্থানে

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার, ০৩:৪৬ পিএম
ঈদের এই লম্বা ছুটিতে ঘুরতে যেতে পারেন যেসব স্থানে

যান্ত্রিক কোলাহলের এই নগর থেকে কয়েকটি দিন দূরে চলে গেলে কেমন হয়? ঈদের ছুটির দিনগুলো কাজে লাগিয়ে ঘুরে আসতে পারেন কোনো রিসোর্ট থেকে। পরিবারের সঙ্গে কাটাতে পারেন সুন্দর কিছু সময়। বাংলাদেশ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা দেশ। আপনি চাইলেই ঘুরে আসতে পারেন নিরিবিলি কোথাও।

শাহ্ মেরিন রিসোর্ট

একটি পূর্ণাঙ্গ জাহাজের আদলে গড়ে তোলা হয়েছে রিসোর্টটি। যেখানে ঢুকলে আপনার মনে হবে, জাহাজটি আপনাকে ভাসিয়ে নিয়ে যাবে উত্তাল ঢেউ তোলা সাগরে। রিসোর্টের একপাশে ধলেশ্বরীর জল আছড়ে পড়ে। কান পাতলে শোনা যাবে জলের কলকল শব্দ। সুইমিং পুলেও সারাদিন সারারাত যখন খুশি তখনই ঝাঁপিয়ে পড়তে পারেন নীল জলে। অতিথিদের জন্য নানা আয়োজনে সাজানো থাকে এ রিসোর্ট। শাহ মেরিনে একরাত থাকতে হলে আপনাকে গুনতে হবে ৫৬০০ টাকা।

সাইরু হিল রিসোর্ট

বান্দরবান জেলা থেকে চার কিলোমিটার দূরে চিম্বুক সড়কে মিলনছড়িতে আছে হিল সাইড রিসোর্ট। এখানে থাকার জন্য রয়েছে বেশ কয়েকটি মনোরম কটেজ ও ডরমিটরি। রয়েছে বম ঘর, মারমা ঘর, বাঁশের তৈরি ঘর।

হিমছড়ি আর ইনানী বিচের মাঝামাঝি প্যাঁচার দ্বীপে এর অবস্থান। রোমাঞ্চপ্রিয় ব্যক্তিরা কক্সবাজার থেকে সাগর ধরে হেঁটে গেলে ঘণ্টা দুইয়ের মধ্যে পৌঁছে যাবেন। সিএনজি অটো রিকশাতেও যাওয়া যায়। পানির ওপর বাঁশের কুঁড়েতে থাকার ব্যবস্থা আছে। দুপুর বা রাতে সি-ফুড, ইউরোপীয়, ক্যারিবীয় ও দেশি খাবার পাবেন।

যমুনা রিসোর্ট

বঙ্গবন্ধু বহুমুখী যমুনা সেতুর নিকটবর্তী যমুনা নদীর কোল ঘেঁষে পূর্ব পাশে  যমুনা  রিসোর্ট অবস্থিত। রিসোর্টি ঈদের ঘোরাফেরার জন্য অন্যত্তম জায়গা বেক্তিগত  ভ্রমণ, পারিবারিক ট্যুর, পিকনিক, সব কিছুই খুব্ আনন্দের সাথে করতে পারবেন। রিসোর্টের ভেতরে সুইমিংপুল, জিম, হেলথ ক্লাব, বেকারী, সুভ্যেনির শপ, ফরেন মানি এক্সচেঞ্জ এবং ইনডোর আউটডোর গেমসের ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে হল হিসাবে রুম ভাড়া হয়।

পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহার

প্রথমেই পাহাড়পুর বিহার। এটার প্রকৃত নাম সোমপুর বিহার। এটি বাংলাদেশসহ নওগাঁ জেলার আন্তর্জাতিক পরিচিতি বহন করে।

জায়গাটি নওগাঁ সদর থেকে ৩৪ কিলোমিটার উত্তর দিকে বদলগাছি উপজেলায় আবার জয়পুর হাটের জামালগঞ্জ স্টেশন থেকে ৫ কিলোমিটার পশ্চিম দিকে এই বিহার। আপনি চায়লেও এখানে ঘুরে আসতে পারেন।

কক্সবাজার সুমদ্র সৈকত

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের শাণিত রূপ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার। ১২০ কিলোমিটারের সমুদ্র সৈকত ঘিরে প্রচীন ঐতিহ্য এবং দর্শনীয় স্থানের কারণে প্রতি বছর কক্সবাজারে ছুটে আসেন বিপুল সংখ্যক পর্যটক। আর শুধু সমুদ্র সৈকত নয় পাশাপাশি রয়েছে বেশ কয়েকটি দর্শনীয় স্থানও।

থাকার সুন্দর ব্যবস্থা আছে এখানে। প্রচুর হোটেল আছে আপান ইচ্ছে করলেই পরিবার সহ থকতে পারবেন। আপনার সাধ্যের মধ্যেই সবকিছু পাবেন।

বাংলা ইনসাইডার/বিকেডি