ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

একজন অনুকরণীয় মানুষ

সাকিব রহমান
প্রকাশিত: ০৫ অক্টোবর ২০১৯ শনিবার, ১২:০১ পিএম
একজন অনুকরণীয় মানুষ

পেয়েছিলেন ৫ কোটি টাকা মূল্যের রেঞ্জ রোভার গাড়ি। গাড়ি সম্পর্কে যারা খোঁজখবর রাখেন তারা নিশ্চয়ই ভালো করেই জানেন গাড়িভক্তদের এই গাড়ির প্রতি কেমন আকর্ষণ। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে জানালেন সেই গাড়ি নিচ্ছেন না তিনি। কিন্তু সেই গাড়ি বাদ দিয়ে অন্য একটি গাড়ি নিলেন। তবে সেটা নিজের জন্য নয়। নিজের এলাকার দুস্থ পীড়িত অসুস্থ মানুষের যাতে হাসপাতালে যেতে কষ্ট না হয় তার জন্য এ্যাম্বুলেন্স।

ঘটনাটা ২০১৭ সালের। রংপুর রাইডার্সকে বিপিএল শিরোপা এনে দেন বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক। এতে বসুন্ধরা গ্রুপ খুশি হয়ে তাঁকে ৫ কোটি টাকা মূল্যের রেঞ্জ রোভার গাড়ি উপহার দিতে চেয়েছিল। মাশরাফি বিন মর্ত্তুজা বসুন্ধরা গ্রুপের কাছ গাড়ি নিয়েছেন ঠিকই। তবে সেটা রেঞ্জ রোভার না, গাড়িটি একটা শীততাপ নিয়ন্ত্রিত এ্যাম্বুলেন্স।  

বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক, দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দলের নমিনেশনে জেতা সংসদ সদস্য। নামে, পদ পদবীতে আমাদের সামাজিক প্রেক্ষাপটে অনেক এগিয়ে। কিন্তু সেই মানুষটির বন্ধুই কিনা একজন মুচি। হ্যাঁ, সত্যিই ধরেছেন। মাশরাফির নিজের একজন বন্ধু আছে যে কিনা মুচি! রাস্তার পাশে জুতা সেলাই করে ব্যক্তিজীবনের কোনদিন তাকে বন্ধু হিসেবে অস্বীকার করেনি বরং সব বন্ধুর মতন তাকেও কাছে বসিয়ে বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানে নিয়ে আড্ডা দেন। তাঁর বোনের বিয়ের জন্য দিয়েছিলেন দুই লক্ষ টাকা।

পৃথিবীর বিখ্যাত শল্যবিদ বলেছিলেন চিরতরে তাঁর পঙ্গু হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। খেলা বন্ধ করার পরামর্শও দিয়েছিলেন। কিন্তু মাশরাফি দমে যাওয়ার পাত্র নন। এক সাংবাদিক প্রশ্ন করলে জানিয়েছিলেন,’একজন দেশপ্রেমিক মুক্তিযোদ্ধা আহত হয়েও যদি দেশের জন্য জীবন দিতে প্রস্তুত থাকে তাহলে আমি কেন দেশের জন্য খেলতে পারবো না?’ একজন সত্যিকারের নায়ক হতে আর কি লাগে?

এমপি হিসেবে নয়। এমপি হওয়ার অনেক আগের কথা। সড়ক দুর্ঘটনায় ঘনিষ্ঠ বন্ধু ক্রিকেটার মানজারুল ইসলাম রানার পরিবারের পাশে দাঁড়ান মাশরাফি। সৈয়দ রাসেল, মোশাররফ রুবেলরা অসুস্থ হলে তাদের পাশেও দাঁড়ান তিনি। আর্থিক প্রয়োজনে কিংবা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ক্রিকেটারের পাশে গিয়ে দাড়িয়েছেন ম্যাশ। নিজের বাড়ির গৃহকর্মীর গ্রামের বাড়িতে গিয়ে ঈদ করা, তাকে বাড়ি করে দেওয়া, নিজের বন্ধুদের ব্যবসায় বিনিয়োগ করা সহ সাধ্যের মধ্যে যেভাবে পারেন পাশে থাকার চেষ্টা করেন তিনি।

শুধু মাত্র ক্রিকেট যে একজন মানুষকে এত জনপ্রিয় করে তুলতে পারে তা মাশরাফিকে দেখে বিশ্ব বুঝেছে।

দেশের প্রধানমন্ত্রী এবং দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার দেয়া অর্পিত দায়িত্ব কখনো ভুলে যাননি ম্যাশ। জনগণের প্রয়োজনে জনগণের পাশে থাকছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে ক্রিকেটের দলপতি। শুধু দলপতি নয়, সিনেমায় আমরা যেমন দেখি একজন নায়ক শত বাধা বিপত্তির পরও আবার পুনরায় মাথা উচিয়ে বুক চিতিয়ে লড়ে যাচ্ছে, মাশরাফি নামটাও তেমনই। সারাদেশে যখন শুদ্ধি অভিযান নিয়ে তোলপাড় চলছে, মিডিয়া ঝুঁকে আছে সেইসব খবর প্রচারে, তখনই আমরা মাশরাফিকে খবরের শিরোনামে পাই। তবে সেটা ক্রিকেট দিয়ে নয়। মাশরাফি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গিয়েছিলেন নিজের এলাকার ফায়ার সার্ভিসের জন্য গাড়ি চাইতে, নিজের এলাকার পুলিশ ফাঁড়ির সংস্কার করাতে। আমরা একজন নায়ককে দেখি যিনি মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন।

নদীতে সাঁতার কাটা,বাইক নিয়ে উড়ে বেড়ানো বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেওয়া সহ ডানপিটে এই ছেলেটি যে বাংলাদেশের মাশরাফি হবে কেইবা জানতেন? শুধু ক্রিকেট নয়, শুধু দলপতি নয় একজন সত্যিকারের নায়ক হিসেবে নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাচ্ছন। এদেশের মানুষ একজন মাশরাফিকে দেখে না, শুধু একজন দলপতিকে দেখে না, মানুষ ২২গজে কিংবা ২২ গজের বাইরে একজন সত্যিকারের নায়ককে খুঁজে পায়। যিনি বাংলাদেশে ক্রিকেট দলকে এবং প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

আজ সেই নায়কের জন্মদিন। শুভ জন্মদিন মাশরাফি।

বাংলা ইনসাইডার/এসআর