ঢাকা, বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বিশ্ব রাজনীতিতে তারুণ্যের জয়জয়কার

মোস্তাকিম ভুঞা
প্রকাশিত: ১২ আগস্ট ২০২০ বুধবার, ১০:০১ এএম
বিশ্ব রাজনীতিতে তারুণ্যের জয়জয়কার

জাসিন্ডা আরডার্ন, নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে কম বয়স্ক প্রধানমন্ত্রী তিনি। কিন্তু ইউরোপীয় এই প্রধানমন্ত্রী যতোটা না আলোচিত তার বয়সের কারণে। তারচেয়ে বেশি আলোচিত ও প্রশংসিত তার নানাবিধ ইতিবাচক সিদ্ধান্তের জন্য। এমন আরেক তরুণ প্রধানমন্ত্রী হলেন কানাডার জাস্টিন ট্রুডো। নিজ মহাদেশ ছাড়িয়ে মুসলিম বিশ্বেও ব্যাপক জনপ্রিয় তিনি। আর পরিচিতি তো সারা বিশ্বব্যাপী। ইয়ুথ পার্টিসিপেশন ইন ন্যাশনাল পার্লামেন্ট ২০১৬ এর গবেষণা অনুযায়ী, বিশ্বে ৩০ বছরের কম বয়সীদের মাত্র ১ দশমিক ৯ শতাংশ তরুণ সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছেন। ১২৮টি দেশের সাংসদদের উপাত্ত নিয়ে এই গবেষণার জরিপ কাজ করা হয়েছে। গবেষণায় দেখা গেছে, বিশ্বে তরুণ সাংসদদের প্রতিনিধিত্বের হার বেশি সুইডেনে। সেখানকার ১২ দশমিক ৩ শতাংশ সাংসদের বয়স ৩০ বছরের মধ্যে। তবে আশার কথা হচ্ছে, ধীরে ধীরে বিশ্ব রাজনীতিতে এমন তরুণ রাজনীতিকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

অসরো মাউরিন

২০১৬ সালে মাত্র ২৬ বছর বয়সে উগান্ডার সাংসদ নির্বাচিত হন অসরো মাউরিন। তার পরিবারের কোন সদস্যই রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিল না। ফলে এমনভাবে রাজনীতিতে উঠে আসাটা তার জন্য খুব সহজ ছিল না। সেইসাথে অবিবাহিতা মাউরিনকে বিব্রতকর নানা প্রশ্নেরও মুখোমুখি হতে হয়েছে। তরুণদের রাজনীতিতে আসার ক্ষেত্রে উগান্ডার এই রাজনীতিক জানান, কেউ যদি দেশের কথা, দেশের মানুষের কথা ভাবেন এবং তাদের জন্য কাজ করতে চান তাহলে অবশ্যই রাজনীতিতে আসা উচিত। তরুণরা রাজনীতির পরিবেশ পছন্দ করেন। কিন্তু তারা যদি এগিয়ে না আসেন, পরিস্থিতি পাল্টাবে না।

মহুয়া মৈত্র

মহুয়া মিত্র পশ্চিমবঙ্গের একজন তরুণ রাজনীতিবিদ। তিনি অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেসের একজন নেত্রী। তিনি কলকাতায় চর্চিত স্কুল পর্যায়ে এবং পরে মাউন্ট হোলিয়োক কলেজ স্নাতক, সাউথ হ্যাডলি ও যুক্তরাষ্ট্রের এমআইটি থেকে গণিত ও অর্থনীতিতে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। তিনি নিউইয়র্ক সিটি ও লন্ডনে জেপি মরগানের জন্য বিনিয়োগ ব্যাংকার হিসাবে কাজ করেন। সেইসাথে সুন্দরী এই তরুণী রাজনীতিতে সক্রিয় প্রবেশের আগে তিনি জেপি মরগানের ডেপুটি চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নাদিয়া জেলার করিমপুর আসনে ২০১৬ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত প্রতিনিধিত্ব করেন।

জাসিন্ডা আরডার্ন

জাসিন্ডা আরডার্ন ২০১৭ সাল থেকে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। মাত্র ৩৭ বছর বয়সে দেশটির ৪০তম প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন তিনি। ২০০১ সালে ওয়াইকাটো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক সম্পন্ন করে আরডার্ন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী হেলেন ক্লার্কের দপ্তরে গবেষক হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারের নীতি-নির্ধারণী উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেন। আর এভাবেই নানা অভিজ্ঞতা অর্জনের মধ্যে দিয়ে নিজেকে অনেক সমৃদ্ধ করেন তরুণ এই রাজনীতিক। সেইসাথে নিজের রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের জন্য সারা বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হচ্ছেন তিনি।

ঋষি সুনাক

বরিস জনসনের মন্ত্রীসভায় ব্রিটেনের নতুন অর্থমন্ত্রীর হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ঋষি সুনাক। এর আগে তিনি দেশটির রাজস্ব বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। জানা গেছে, ৩৯ বছর বয়সী ঋষি সুনাক ভারতীয় বংশোদ্ভূত। তিনি ভারতীয় তথ্য প্রযুক্তি সংস্থা ইনফোসিসের চেয়ারম্যান নারায়ণমূর্তির জামাতা। ইংল্যান্ডের হ্যাম্প শায়ারে জন্ম হয়েছে ঋষি সুনাককের। ২০১৫ সাল থেকে ইয়র্কশায়ারের রিচমন্ডের এমপি তিনি। এর পাশাপাশি স্থানীয় প্রশাসনের একটি দপ্তরের জুনিয়র মন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্বে ছিলেন তিনি।

জাস্টিন ট্রুডো

জাস্টিন ট্রুডো কানাডার লিবারেল পার্টির নেতা হিসেবে ২০১৫ সালে দেশটির ২৩তম প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। জানা যায়, জো ক্লার্কের পর তিনি কানাডার দ্বিতীয় কমবয়সী প্রধানমন্ত্রী। অটোয়াতে জন্ম নেওয়া ট্রুডো কলেজ জঁ-দ্য-ব্রেবফে পড়ালেখা করেন। তিনি ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯৪ সালে এবং ১৯৯৮ সালে ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলাম্বিয়া থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন। আর স্নাতক শেষে ভ্যানকুভারের ব্রিটিশ কলম্বিয়ায় শিক্ষক হিসেবে কাজ করেন তিনি। অনেকটা হুট করেই এক সময় রাজনীতিতে চলে আসেন ট্রুডো। আর তরুণ এই রাজনীতিকের জনপ্রিয়তা এখন পুরো বিশ্বব্যাপী।

এর বাইরেও সারা বিশ্ব জুড়ে অসংখ্য তরুণ রাজনীতিক রয়েছে। বাংলাদেশ, ভারতসহ ইউরোপের অনেক দেশেই রাজনীতিতে তরুণদের অংশগ্রহণ দিনকে দিন বাড়ছে।