ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৫ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ছুটির দিনে বই

হোসেন আবদুল মান্নান
প্রকাশিত: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ শুক্রবার, ১০:০১ এএম
ছুটির দিনে বই
তাঁর মহাপ্রয়ানের দিন ৩১ আগস্ট ২০২০ খৃষ্টাব্দ  বা ১৬ ভাদ্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, আমার কাছে সংরক্ষণে থাকা অনেক বাংলা ইংরেজি গ্রন্হরাজির ভেতর থেকে সে মূল্যবান বইটি কিছুতেই খুঁজে পাইনি। সেদিন অফিসে গিয়ে দু`একজন সহকর্মীকে বলি, জনাব প্রণব মুখার্জি স্বাক্ষরিত ও আমার জন্য প্রেরিত তাঁর একটি বই ছিল । তবে এখন আর খুঁজে পাচ্ছি না।  অবশ্য কে যেন  বলেছিলেন, একদিন অপ্রয়োজনে খুবই আকস্মিকভাবে পেয়ে যাবেন স্যার। এবং তা-ই হলো। আজ হঠাৎ করেই একে পেয়ে যাই। 
 
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ খৃষ্টাব্দ তারিখে তাঁর সবুজ কালিতে স্বাক্ষর করা নিজের আত্মজীবনীমূলক বই  `The Dramatic Decade` The Indira Gandhi Years।  বইটি দেওয়ার পূর্বে  বাংলাদেশ থেকে যাওয়া তাঁর এক স্নেহভাজন যুবক রানার ফোনে তিনি আমার সঙ্গে কথা বলারও ইচ্ছে পোষণ করেন। সেদিন আমি একই সাথে আনন্দিত ও বিস্মিত হয়েছিলাম।  জানা নেই, পরিচয় নেই বাংলাদেশের একজন সিভিল সার্ভেন্ট এর সাথে তিনি অকপটে ও শতভাগ সারল্য প্রদর্শন করে বেশ খানিকটা সময় নিয়ে কথা বললেন। মৃদুস্বরে অসাধারণ মানের প্রমিত বাংলা ভাষায় তিনি আমার পারিবারিক খোঁজ খবর নিলেন। আমার জেলা, উপজেলা সম্পর্কেও জানতে চাইলেন। সেদিন আমি মোটেও ভাবতে পারি নি যে, ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি এবং সে দেশের কিংবদন্তিতুল্য রাজনীতিবিদ তথা বরেণ্য শিক্ষাবিদ ড.প্রণব মুখার্জি স্বয়ং আমার সাথে কথা বলেছেন। 
 
দু`দিন পর বই নিয়ে রানা আমার ডিসিহিল বাংলোতে এসে হাজির। আমি তখন বিভাগীয় কমিশনার, চট্টগ্রাম বিভাগ হিসেবে কর্মরত। সে জানালো, আপনার সাথে কথা বলে মহোদয় বেশ আনন্দ অনুভব করেছিলেন। আপনি বাঙালির ইতিহাস, বাঙালির জয়গান গেয়েছেন বলে তিনি খুব খুশি হয়েছেন। বাঙালি জাতিসত্তা, বাঙালির ঐক্য এবং বাঙালির স্বাধীনতা ইত্যাদিতে তাঁর আগ্রহ ছিল প্রবল। আমার একান্ত ধারনা, এই একটি কারনেই বোধকরি তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব এর প্রতি আমৃত্যু দুর্বল ও কৃতজ্ঞ ছিলেন। জীবনভর দিল্লিতে বাস করে এবং মহাভারতের রাজনীতির অলিগলি চষে বেড়িয়েও বাংলার প্রতি তাঁর গভীর শ্রদ্ধাবোধ, নিবিড় মমত্ববোধ, অকৃত্রিম ও অকৃপণ ভালোবাসা অটুট থেকে যায়। একেই বলে মাতৃভূমির প্রতি আজন্ম ঋণী হয়ে বেঁচে থাকা। 
 
৩১০ পৃষ্ঠার বইটিতে শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধীর সমসাময়িক অসংখ্য রাজনৈতিক  ব্যক্তিবর্গের সাথে তাঁর পরিবারের সদস্যসহ নানা স্মৃতিময় ঘটনাবলী বিবৃত হয়েছে। রোমন্থন করা হয়েছে বিচিত্র ভাবনার আর অম্লমধুর সব অভিজ্ঞতার। সচিত্র বর্ণনা থাকায় এতে গোটা সত্তুরের দশকের মহান নেতৃবৃন্দের সন্ধান পাওয়া যায়। ১৫২ পৃষ্ঠায় বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের সময়ে তাঁর বাসভবনে দেশি-বিদেশি সাংবাদিকগনের সাথে আলোচনা করতে দেখা যায়। 
 
প্রণব মুখার্জি ছিলেন বাঙালির চিরকালীন বন্ধু, বাঙালির পরমাত্মার আত্মীয়। আজ আমি বাংলাদেশের এই সুহৃদ,শুভাকাঙ্ক্ষীর মৃত্যুহীন প্রাণের প্রতি জানাই প্রগাঢ় ভালোবাসা ও সশ্রদ্ধ অভিবাদন।