ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

এই গরমে এসি ছাড়াও ঘর ঠান্ডা রাখবেন যেভাবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৯ এপ্রিল ২০২১ বৃহস্পতিবার, ০৭:৫৬ এএম
এই গরমে এসি ছাড়াও ঘর ঠান্ডা রাখবেন যেভাবে

বৈশাখ মাসে শুরু থেকেই তাপমাত্রা বেড়েই চলেছে। গত ৭ বছরের তাপমাত্রার রেকর্ড পর্যন্ত ভেঙ্গেছে এবার। লকডাউনে ঘর থেকে বের হবারও উপায় নেই যে বাইরের খোলা বাতাসে গিয়ে একটু ঘুরে আসবেন। তাছাড়া অধিকাংশ বাসাতেই এসি নেই। আবার বাড়িতে বা অফিসে সারাক্ষণ এসি চালিয়ে রাখায় গরম অনুভূতি হয়তো কমছে, কিন্তু সঙ্গে বাড়ছে শারীরিক নানা সমস্যা। তাই প্রাকৃতিকভাবে ঘর ঠান্ডা রাখার চেষ্টা করা উচিত। কীভাবে এমনটি করা যায় সে বিষয়ে রইল কিছু পরামর্শ-

বেলা বাড়লে জানালা বন্ধ করে পর্দা টেনে দিন: 
সকালের মিষ্টি রোদের মেয়াদ বেশিক্ষণ নয়। তাই ঘড়ির কাঁটা ১১টা ছাড়ালে জানালা বন্ধ করে পর্দা টেনে দিন। এতে ঘরে তাপ কম ঢুকবে। ফ্যান চালিয়ে রাখলেও আরাম পাবেন। আবার বিকেলের দিকে জানালা খুলে দিন। মুখোমুখি জানালা থাকলে ঘরে হাওয়া-বাতাস চলাচল করবে ভালো।

ঘর আবছা অন্ধকার রাখুন: 
ঘরে আলো কম হলে ঠান্ডা ভাব থাকে বেশি। যারা কম্পিউটারে কাজ করছেন, তাদের কম আলোয় অসুবিধা হলে টেবিল ল্যাম্প জ্বেলে নিন। টিউবলাইটের চেয়ে সিএফএল ল্যাম্পের আলো বেশি ঠান্ডা । সম্ভব হলে তা বদলে নিতে পারেন।

সুতি বা লিনেনের পর্দা ব্যবহার করুন: 
হালকা রঙের সুতি বা লিনেনের মতো প্রাকৃতিক ফেব্রিকের পর্দা এবং বেডশিট ব্যবহার করুন। এতে চাদর আর পর্দা তাপ প্রতিফলিত করবে, তার ফলে ঘর ঠান্ডা রাখতে সুবিধা হবে। চাদর আর পর্দা বেশি ময়লা হওয়ার আগেই কেচে ফেলুন।

ঘরে গাছ রাখুন: 
ঘরের মধ্যে গাছ রাখলে তা দেখতেও সুন্দর লাগে, তাপও শুষে নেয়। মানিপ্লান্ট, অ্যালোভেরা, স্নেক প্লান্ট, অ্যারিকা পাম ঘরে রাখতে পারেন।

রান্নার সময় এগজস্ট ফ্যান চালু রাখুন: 
রান্না করার সময় ঘর গরম হয়ে যায়। তাই অবশ্যই এগজস্ট ফ্যান চালিয়ে রাখুন। সম্ভব হলে তাপ বাড়ার আগেই রান্না সেরে ফেলুন।

ঘর মুছে নিন: 
সম্ভব হলে দিনে দুবার ঘর মুছে ফ্যান চালিয়ে দিন। এর আগে জানালা বন্ধ করে পর্দা টেনে দিন। ঘর ঠান্ডা থাকবে।

ঘর থেকে অপ্রয়োজনীয় জিনিস সরিয়ে ফেলুন:
ঘর থেকে অপ্রয়োজনীয় জিনিস সরিয়ে ফেলুন। নজর রাখুন, ঘরে যেন খবরের কাগজ স্তূপাকৃত ভাবে না থাকে। সিল্কের জিনিসপত্র সরিয়ে ফেলুন। মেঝেতে উলের কার্পেট পাতা থাকলে তুলে ফেলুন। কাচের পাত্রে বা পাথরের থালা অথবা বাটিতে জল ঢালুন। জল ভর্তি পাত্রে কিছু পাথর রাখুন। কিছু ফুল দিয়ে দিন। এবার যে দরজা বা জানলা দিয়ে সবচেয়ে বেশি হাওয়া আসে, তার সামনে রেখে দিন।  

এছাড়া, ফ্যানের সামনে বাটিভর্তি বরফ রাখুন। এটা অত্যন্ত সহজ পদ্ধতি। এতে বরফে লেগে ফ্যানের হাওয়া আরও ঠান্ডা হবে এবং সেই ঠান্ডা বাতাস ঘরে ছড়িয়ে যাবে।