ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কত গুণ জিরা পানির

স্বাস্থ্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৯ জুলাই ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৫:০৮ পিএম
কত গুণ জিরা পানির

জিরা বলতে আমরা মশলাকেই বুঝি, আর জিরা বাটা বা গুড়া না হলে আমাদের খাবার রান্না পরিপূর্ণ হয়না। এই জিরাতে ঔষধি গুণ থাকায় আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। কিন্তু এসব থেকে জিরা পানির যে গুণাগুণ আরও বেশি তা আমাদের জানা নেই। জিরা পানিতে ভিজিয়ে পান করলে কি কি উপকর মিলবে জানাবো আজ:  

ওজন কমাতে পারে জিরা পানি

যাদের ওজন বেশি তাদের জন্য এই পানি দারুণ কাজে লাগে। জিরা পানি পান করলে আমাদের ক্ষুধা নিবৃত্ত হয়। আর তাই প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এবং রাতে ঘুমানোর আগে জিরা পানি পান করতে পারেন। এতে খাওয়ার চাহিদা কমবে, ফলে ওজন কমাতে সাহায্য করবে।

শরীরের বিষক্রিয়া কমায়

আমাদের শরীরের টক্সিন বা বিষক্রিয়া কমাতে জিরা পানির তুলনা নেই। জিরা লিভার এবং পাকস্থলীর জন্য বেশ ভালো। কেননা জিরাতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় আমাদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গকে এটি বেশ সচল রাখতে পারে। শরীর থেকে ক্ষতিকর উপাদান বেরিয়ে আসতে পারে।

স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে দেয়

জিরা পানি স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে। যারা মনে করেন কিছু মনে থাকছে না বা কোনোকিছুতে মনোযোগ দিতে পারছেন না, তাদের জন্য জিরা পানি ভালো কার্যকর হতে পারে। বাল্যকাল থেকে এই পানি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা উচিৎ।

হজমশক্তি বাড়িয়ে দেয়

জিরা পানি হজমশক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। সকালে খালি পেটে জিরা পানি খেলে হজমজনিত সমস্যা দূর হয়ে যায়। সেই সঙ্গে অ্যাসিডিটি, কোষ্ঠকাঠিন্যজনিত সমস্যা দূর করে, খাবারে রূচিবোধ বাড়ে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

জিরার অনেক পুষ্টিগুণ রয়েছে। ফলে এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। আমরা সাধারণত মশলা হিসেবে জিরা খাই। মশলা হিসেবে জিরা খাওয়ার চেয়ে জিরা পানি  পান করা বেশি উপকারী।

রক্তস্বল্পতা দূর করে

অ্যানিমিয়া বা রক্তস্বল্পতা আমাদের একটি বড় সমস্যা। জিরাতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকে বলে রক্তশূন্যতা বা রক্তস্বল্পতা দূর করে। এছাড়া জিরা পানি রক্তে অক্সিজেন বহনকারী হিমোগ্লোবিন বাড়াতে পারে। ফলে রক্তের সরবরাহেও কোনো বাধা দেয় না।

অ্যাসিডিটির সমস্যা কমায়

জিরা পানি অ্যাসিডিটির সমস্যা দূর করতে সহায়তা করে। যাদের গ্যাস্ট্রিক, অ্যাসিডিটির বড় সমস্যা রয়েছে তারা ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিয়মিত জিরা পানি পান করতে পারেন।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে

খাবার ঠিকমতো হজম না হলে বা পাইলসের সমস্যা থাকলে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দেখা দেয়। এই সমস্যা দেখা দিলে দিনে দুইবার জিরা পানি পান করতে পারেন, উপকার পাবেন।

পানিশূন্যতা রোধ করে

জিরাতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। যা শরীরে পানি ধরে রাখতে সাহায্য করে। জিরা পানি পান করলে সেটি শরীরের পানিশূন্যতা রোধ করে।

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সরবরাহ করে

নিয়মিত জিরা পানি পান করলে দেহে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন এ, সি এবং ই পাওয়া যায়। এগুলো বার্ধক্যকে রুখতে পারে। আবার নিয়মিত জিরা পানিতে ব্রণের প্রকোপ কমায়, ত্বকের যত্নেও উপকারী। শরীরের জ্বালাপোড়া কমাতে পারে জিরা পানি।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ/জেডএ