ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৮ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বাংলাদেশে অফিস খুলছে ইউটিউব

বিজ্ঞানপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সোমবার, ০৩:৪৩ পিএম
বাংলাদেশে অফিস খুলছে ইউটিউব

বাংলাদেশে অফিস চালু করতে যাচ্ছে সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং পোর্টাল ইউটিউব। সামনের মাসেই এই অফিস চালুর একটি সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে। আর তাই আগামী সপ্তাহে ইউটিউবের একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফরে আসছে। প্রতিনিধি দলে থাকবেন ইউটিউবের শীর্ষ কর্মকর্তারা। তারা সফরকালে সরকারের একাধিক মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট একাধিক পক্ষের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানা গেছে।

বিশ্বের ৬১তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশে অফিস খুলছে ইউটিউব। ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি, ডিজিটাল বিপণনের বড় ক্ষেত্র তৈরি, বাজেট বৃদ্ধি, কনটেন্ট বৃদ্ধি, চ্যানেলের সংখ্যা বৃদ্ধির লক্ষ্যেই তাদের অফিস খোলার উদ্যোগ গ্রহণ। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে ভারতের পরেই বাংলাদেশ অবস্থান করছে বলে মনে করে ইউটিউবের কর্মকর্তারা। বর্তমানে বিভিন্ন উৎসব আয়োজনকে কেন্দ্র করে ইউটিউব চ্যানেলে নাটক প্রচার, কিছু গান অসংখ্য লোক দেখার কারণেই বাংলাদেশের বাজারকে সম্ভাবনাময় মনে করছে ইউটিউব।

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এ বিষয়ে জানান, আশা করা হচ্ছে যে দুইমাসের মধ্যেই বাংলাদেশে ইউটিউবের অফিস চালু হবে। ইউটিউব মনে করছে, বাংলাদেশ তার জন্য নতুন বিজনেস হাব হবে। ইউটিউব এলে তাদের কাছ থেকে সাড়া পাওয়া সহজ হবে।

মন্ত্রী জানান, একটি স্যাটেলাইট চ্যানেলের কর্ণধার সূত্রে তিনি জানেন যে তারা সম্প্রতি ইউটিউব থেকে একটি ‘গোল্ডেন বাটন’ পেয়েছেন। এমনকি, কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম এর দায়িত্বও পেয়েছেন। মন্ত্রীকে ইউটিউব সূত্রে জানানো হয়েছে যে ঠিকমতো পরিচর্যা করলে বাংলাদেশ ইউটিউবের জন্য একটি স্বর্ণ খনি। ইউটিউবে বাংলাদেশের কনটেন্ট কম বলে টিভি চ্যানেলগুলো নাটকসহ অন্যান্য কনটেন্ট দিয়ে চলছে। এর বাইরে কনটেন্টের প্রচুর চাহিদা। এই সুযোগটাকে এখন কাজে লাগানো হবে।

উল্লেখ্য যে, কোনো চ্যানেল যদি ১০ লাখ গ্রাহকের মাইলফলক অর্জন করে তবে ইউটিউবের পক্ষ থেকে গোল্ডেন প্লে বাটন দেওয়া হয়। দেশের একাধিক স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলে ইউটিউবে তাদের চ্যানেলের গ্রাহকপ্রিয়তার কারণে গোল্ডেন প্লে ও সিলভার প্লে বাটন পেয়েছে। সবমিলিয়ে বাংলাদেশে ইউটিউবের অফিস খোলা আমাদের জন্য সুখবর। এতে আমরা বুঝতে পারি যে বাংলাদেশকে ইউটিউব বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে।

সংশ্লিষ্টরা সূত্রমতে, ইউটিউব দেশে অফিস করলে কনটেন্ট ফিল্টারিং, কনটেন্ট প্রত্যাহার, বিজ্ঞাপন দেওয়া ইত্যাদি বিষয়গুলো সহজ হবে। ব্যক্তি এবং প্রাতিষ্ঠানিক উদ্যোগে ইউটিউবে চ্যানেল তৈরিকারীরা সরাসরি পোর্টালটির সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের আয়, চ্যানেল ব্লক বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে পারবে।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ/জেডএ