ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পদত্যাগ করলেন গুগলের পেজ-ব্রিন, দায়িত্ব বাড়লো পিচাইয়ের

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯ বুধবার, ০১:৫১ পিএম
পদত্যাগ করলেন গুগলের পেজ-ব্রিন, দায়িত্ব বাড়লো পিচাইয়ের

পদত্যাগ করেছেন বিশ্বখ্যাত প্রতিষ্ঠান গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ এবং সের্গেই ব্রিন। গুগলের মূল প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেটের প্রধান নির্বাহী এবং প্রেসিডেন্টের পদ ছাড়লেন তারা। তবে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদে থাকবেন পেজ এবং ব্রিন। টানা ২০ বছর গুগলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন এই জুটি।

মঙ্গলবার পেজ ও ব্রিন নিজেদের ব্লগ পোস্টে ঘোষণা করেন, দীর্ঘদিন ধরে কোম্পানির প্রতিদিনের ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে গভীরভাবে জড়িয়ে থাকতে পারাটা খুবই ভাগ্যের। আমাদের মনে হয়, এবার গর্বিত পিতা-মাতার ভূমিকা পালনের সময় এসেছে। যারা পরামর্শ দেবেন, ভালোবাসা দেবেন কিন্তু নিত্য বিরক্ত করবেন না।

আর এতে করে দায়িত্ব আরও বাড়ল সুন্দর পিচাইয়ের। গুগলের সিইও এবার ওয়েব সার্চ জায়ান্টের পেরেন্ট সংস্থা অ্যালফাবেটেরও সিইও পদে অভিষিক্ত হলেন।

ওয়েব সার্চের ক্ষেত্রে আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স সফটওয়্যারের উন্নতির ব্যাপারে জোর দিয়েছেন পেজ, ব্রিন ও পিচাই। বিশ্বজুড়ে যাতে এই প্রযুক্তির ব্যবহার করা যায়, সেই চেষ্টা অনেক আগেই শুরু করে দিয়েছেন দীর্ঘদিনের প্রডাক্ট লিটার পিচাই।

২০১৫ সালে জন্ম হয় অ্যালফাবেটের। ভারতীয় প্রযুক্তিবিদ সুন্দর পিচাই গুগলের সিইও হন। অ্যালফাবেটের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেন ল্যারি পেজ, প্রেসিডেন্ট হন সের্গেই ব্রিন।

গুগল ঘোষণা করে, তার সব সংস্থাই চলে আসবে অ্যালফাবেটের ছাতার তলায়। স্টক এক্সচেঞ্জেও গুগলের নাম বদলে যাবে। গুগল প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ এবং সের্গেই ব্রিনের অধীনে থাকা অ্যালফাবেটেরই প্রধান শাখা হবে গুগল। যার আওতায় থাকবে অ্যান্ড্রয়েড, সার্চ, অ্যাড (বিজ্ঞাপন), ইউটিউব, ম্যাপের মতো ব্যবসা।

এদিকে, সর্বসমক্ষে সরে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করলেও এখনও কোম্পানির ৫১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে পেজ ও ব্রিনের অধীনে। এপ্রিল পর্যন্ত পেজের দখলে ছিল অ্যালফাবেটের ভোটিং ক্ষমতার ২৬ শতাংশ। ব্রিনের ছিল ২৫ দশমিক ২৫ শতাংশ এবং পিচাইয়ের ছিল ১ শতাংশ-এরও কম।