ইনসাইড বাংলাদেশ

শাহজালালের ভিসি কি সরে যাবেন?

প্রকাশ: ০৮:০০ পিএম, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail শাহজালালের ভিসি কি সরে যাবেন?

আজ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উত্তেজনা কিছুটা হলেও কমেছে। সাত দিন পর আজ শিক্ষার্থীরা অনশন ভঙ্গ করেছেন। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল এবং তার স্ত্রী ইয়াসমিন হক গিয়ে এই অনশন ভঙ্গ করান। তবে শিক্ষার্থীরা বলেছেন যে, তারা আন্দোলন অব্যাহত রাখবেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে মোঃ জাফর ইকবাল বলেছেন যে, তোমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবে এবং তোমাদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার জন্য তোমাদের অনশন প্রত্যাহার করতে হবে। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মোঃ জাফর ইকবালের আবেগঘন দৃশ্য পুরো জাতিকে আবেগ আপ্লুত করেছে। প্রশ্ন হল যে, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সংকটের কি এর মধ্য দিয়ে সমাধান ঘটল। শিক্ষার্থী এবং অভিভাবক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্টরা বলছেন মোটেও নয়। বরং এর মধ্য দিয়ে শাহজালাল বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দিন আহমেদের একটি সম্মানজনক বিদায়ের পথ উন্মুক্ত হল। যদি অনশনের মুখে শেষ পর্যন্ত তিনি পদত্যাগে বাধ্য হতেন তাহলে এটি তার জন্য যেমন অসম্মানজনক হত তেমনি সরকারের জন্য এটি হতো একটি বিব্রতকর পরিস্থিতি। সরকার এই বিব্রতকর পরিস্থিতি থেকে উদ্ধার পেতে চেয়েছে। আর এই কারণে শেষ পর্যন্ত এই সংকট নিরসনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উদ্যোগের উপর নির্ভরশীল হয়েছেন। তিনি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক কে দায়িত্ব দিয়েছিলেন সংকট নিরসনে রাজনৈতিক উদ্যোগ গ্রহণের জন্য। 

জাহাঙ্গীর কবির নানক বিভিন্ন মহলের সঙ্গে কথাবার্তা বলেছেন এবং পরবর্তীতে তারা মোঃ জাফর ইকবালকে অনুরোধ করেছেন তার বাসায় গিয়ে যে তিনি যেন শিক্ষার্থীদের কাছে যান এবং শিক্ষার্থীদের অনশন প্রত্যাহারের অনুরোধ করেন। জাহাঙ্গীর কবির নানকসহ শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, আওয়ামী লীগের নেতা অসীম কুমার উকিল এবং সুভাষ সিংহ রায় মোঃ জাফর ইকবাল স্যারের বাড়িতে যান এবং জাফর ইকবাল সিলেট যাওয়ার আগে শিক্ষার্থীদের সাথে কথাও বলেছিলেন। কিন্তু প্রশ্ন হল যে, জাফর ইকবাল কেন সিলেটে যেতে রাজি হলেন এবং তার সঙ্গে আওয়ামী লীগের নেতাদের কি কথা হয়েছিল। জাফর ইকবাল নিজেই বলেছেন যে, তার বাসায় এসেছিলেন সরকারের প্রভাবশালী ব্যক্তিরা এবং তারা অনুরোধ করেছেন এবং তারা আশ্বস্ত করেছেন যে তারা শিক্ষার্থীদের ব্যাপারে সহানুভূতি দেখাবেন। মোঃ জাফর ইকবাল এটিও বলেছেন যে, আমি আশা করি যে, তারা আমাকে যে কথা দিয়েছেন সেই কথা রাখবেন। কি কথা দিয়েছিলেন জাহাঙ্গীর কবির নানকের নেতৃত্বে যে টিম বাসায় জাফর ইকবালের বাসায় গিয়েছিলেন তারা। এ ব্যাপারে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা কিছু বলেননি। তবে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, এই সংকট সমাধানের কেন্দ্রবিন্দু হলেন বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য। তিনি এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কিভাবে বিদায় নিবেন তার একটি সম্মানজনক সমাধানের পথ খোঁজার প্রক্রিয়া শুরু করবেন খুব শিগ্রই সরকার। আর সেই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হলে এই সংকটের সমাধান সম্ভব হবে। 

উপাচার্যের পদত্যাগ ছাড়া এ সংকটের স্থায়ী সমাধানের কোনো পথ নেই বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা। কারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একজন উপাচার্যের যে সম্পর্ক থাকা উচিত ছিল সেই সম্পর্কে এখন অনেকটাই চিড় ধরেছে। আর একারণেই উপাচার্যের প্রস্থানে ভালো উপায়। এখন উপাচার্যের প্রস্থান কিভাবে হবে সেটি নিশ্চয়ই সরকার আলাপ-আলোচনা করেই নির্ধারণ করেছে। কিন্তু ফরিদ উদ্দিন যে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য থাকছেন না এটি এখন মোটামুটি নিশ্চিত হয়েছে। এখন দেখার বিষয় যে কিভাবে তার প্রস্থান পথ তৈরি হয়।


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

টানা বৃষ্টির কারণে চালের দাম কিছুটা বাড়তি: খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৩:৪২ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail টানা বৃষ্টির কারণে চালের দাম কিছুটা বাড়তি: খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, মৌসুমের শুরু ও শেষের সন্ধিক্ষণ এবং টানা বৃষ্টির কারণে চালের দাম কিছুটা বাড়তি।

বুধবার (১৮ মে) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, বছরের শেষ ও শুরুর সন্ধিক্ষণ। অটো রাইস মিল মালিকরা ধান কিনছেন। তারা উৎপাদনে যায়নি। আর হাসকিং মিলওয়ালারা বৃষ্টির জন্য যে ধান দুদিনে শুকাতো সেটা ৫-৭ দিন লাগছে। তবে চিন্তার কিছু নেই। খুব শিগগির দাম সহনীয় হবে। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রেখেছি।

খাদ্যমন্ত্রী আরও বলেন, চালের যোগান কম নেই। কোনোভাবেই দেশে খাদ্য ঘাটতির সম্ভাবনা নেই।


বৃষ্টি   চালের দাম   বাড়তি   খাদ্যমন্ত্রী  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

বন্যার্তদের কথা সরকার সবসময় ভাবে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৩:৪০ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail বন্যার্তদের কথা সরকার সবসময় ভাবে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেছেন দেশের বিভিন্ন জেলায় বৃষ্টি আকস্মিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের নগদ অর্থ এবং ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হবে

বুধবার (১৮ মে) সকালে ঢাকার সাভার উপজেলার দোসাইদ এলাকার অধন্য কুমার স্কুল অ্যান্ড কলেজের চারতলা ভবন উদ্বোধন শেষে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমানবলেন, দেশের বিভিন্ন জেলায় আকস্মিক বন্যা দেখা দিয়েছে। এ বন্যায় ওইসব জেলার মানুষ দুর্ভোগে পড়েছেন। তাদের কথা সরকার সবসময় ভাবে। বন্যার্তদের পাশে দেশের সরকার রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সরকারের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে একটি মহল উঠে পড়ে লেগেছে। কিন্তু তাদের স্বপ্ন কোনোদিন পূরণ হবে না। দেশের মানুষ সরকারের পাশে রয়েছেন।

পরে প্রতিমন্ত্রী আশুলিয়ার পাড়াগ্রাম ও মনোহরদি গ্রামের বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- আশুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন সরকার, দোসাইদ অধন্য কুমার স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন, আশুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মন্ডল।

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী   ডা. এনামুর রহমান  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

হজে যেতে না পারলে জমাকৃত টাকা তুলে নেওয়ার নির্দেশ

প্রকাশ: ০৩:০০ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail হজে যেতে না পারলে জমাকৃত টাকা তুলে নেওয়ার নির্দেশ

সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজে যেতে নিবন্ধন করে রাখা কেউ হজে যেতে না পারলে জমাকৃত টাকা তুলে নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।  

বুধবার (১৮ মে) মন্ত্রণালয়ের এক নির্দেশনা সংশ্লিষ্টদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, যেসকল হজযাত্রী ইতোমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন/অসুস্থ আছেন অথবা ৬৫ বছর ঊর্ধ্ব বয়সসীমার কারণে এ বছর হজে যেতে পারছেন না, তার পরিবর্তে প্রতিস্থাপিত ব্যক্তি তার নিবন্ধন বাবদ জমাকৃত অর্থ সমন্বয় করতে পারবেন না।  

এরূপ ব্যক্তি বা মৃত হজযাত্রীর ক্ষেত্রে তার প্রতিনিধি নিবন্ধন বাবদ জমাকৃত অর্থ ফেরত পাওয়া জন্যে www.hajj.gov.bd-এ প্রবেশ করে ‘নিবন্ধন রিফান্ড সিস্টেমে’ আবেদন করে জমাকৃত অর্থ উত্তোলন/ফেরত নিতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রতিস্থাপিত হজযাত্রীকে প্যাকেজের সম্পূর্ণ অর্থ পরিশোধ করে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে।


হজে   জমাকৃত   টাকা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

চট্টগ্রামে অগ্নিকাণ্ডে ১ জনের মৃত্যু

প্রকাশ: ০২:৫৪ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail

চট্টগ্রাম নগরের ইপিজেড থানাধীন কলসি দীঘির পাড়ের ধুমপাড়া এলাকায় দোকান ও বসতঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এই অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে আব্দুল করিম নামের একজন বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। 

বুধবার (১৮ মে) দুপুর ১টার দিকে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার নিউটন দাস। 

তবে আগুন লাগার কারণ এখনও নিশ্চিত হতে পারিনি। ফায়ার সার্ভিসের তিনটি স্টেশনের ১৩টি ইউনিট প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় বেলা সাড়ে ১২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। 

ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক মো. ফারুক হোসেন বলেন, নগরের ইপিজেডের কলসি দীঘির পাড়ে কয়েকটি দোকান ও বসতঘরে সকাল সোয়া ১১টার দিকে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। আগুনে পুড়ে আব্দুল করিম নামের ওই বৃদ্ধ মারা গেছেন।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, তিনি শতবর্ষী এবং কানে শোনেন না ও চোখে দেখেন না। আমরা তার লাশ উদ্ধার করেছি।


চট্টগ্রামে   অগ্নিকাণ্ডে   মৃত্যু  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির জন্য আন্তর্জাতিক বাজার দায়ী: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ০২:১১ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির জন্য আন্তর্জাতিক বাজার দায়ী: বাণিজ্যমন্ত্রী

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম না কমলে কিছুই করতে পারবো না। কারণ দেশে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির জন্য আন্তর্জাতিক বাজার দায়ী।

বুধবার (১৮ মে) দুপুরে সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দ্রব্যমূল্য ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত টাস্কফোর্স কমিটির সভায় তিনি এ কথা বলেন।

নিত্যপণ্যের দাম কবে মানুষের নাগালে আসবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এ প্রশ্নের উত্তর আমার জানা নেই। এটির উত্তর জানতে হলে আমার আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলে যেতে হবে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম না কমা পর্যন্ত আমরা কিছুই করতে পারবো না। কলকাতায় খবর নিন সেখানে কত দামে তেল বিক্রি হচ্ছে। মানুষকে বৈশ্বিক অবস্থা জানাতে হবে।

ডলারের দাম বাড়ায় সমস্যা তৈরির বিষয়ে তিনি বলেন, আমাদের দুই বছর আমদানি কম ছিল। এখন খুলে যাওয়ায় ক্যাপিটালে প্রভাব পড়েছে, দুই বছরের চাপ পড়েছে একসঙ্গে। সবকিছু মিলে একটা প্রভাব পড়েছে। আমাদের বৈদেশিক রিজার্ভে চাপ পড়েছে। গত দুই বছর আমদানি কমায় বেড়েছিল রিজার্ভ। এখন চাপ পড়ায় এই সমস্যা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, শ্রীলঙ্কায় বিপদ বলে আমাদের বিপদ তা তো নয়। আমরা তো তাদের সহায়তা করেছি। আমাদের ঘাবড়ানোর কোনো কারণ নেই। প্রধানমন্ত্রী এটি নিয়ে সুন্দরভাবে বলেছেন আমাদের দেশে বৈশ্বিক প্রভাব পড়েছে, সাশ্রয়ী হতে হবে।


আন্তর্জাতিক   বাজার   দায়ী   বাণিজ্যমন্ত্রী  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন