ইনসাইড বাংলাদেশ

রায়ে 'স্থিতাবস্থা', এখন কী করবেন আন্দোলনকারীরা?

প্রকাশ: ০১:২২ পিএম, ১০ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

সরকারি চাকরিতে নিয়োগে ‘অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক’ কোটা বাতিল এবং সংবিধানে উল্লেখিত অনগ্রসর গোষ্ঠীর জন্য সংরক্ষিত কোটাকে ন্যূনতম মাত্রায় এনে সংসদে আইন পাস করার দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

আজ বুধবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে শিক্ষার্থীদের একটি দল শাহবাগ মোড়ের সড়ক অবরোধ করেন। এতে এই মোড় হয়ে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তৈরি হয় তীব্র যানজট।

কোটা নিয়ে আদালতের রায়ের পর প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, কোটার বিষয়ে স্থায়ী সমাধানের আগ পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবেন তারা। বুধবার (১০ জুলাই) সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের রায়ের পর প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় এ তথ্য জানান বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের নেতারা।

সরকারি চাকরিতে কোটা নিয়ে হাইকোর্টের রায়ের ওপর স্থিতাবস্থা থাকবে বলে আজ রায় দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের আপিল বিভাগ। তবে এই রায়কে ঝুলন্ত সিদ্ধান্ত হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

তারা বলছেন, পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য ন্যূনতম (সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ) কোটা রেখে নির্বাহী বিভাগ থেকে সব ধরনের বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল না করার আগ পর্যন্ত রাজপথে থাকবেন।

এ প্রসঙ্গে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক আব্দুল হান্নান মাসউদ বলেন, আমরা কোনো ঝুলন্ত সিদ্ধান্ত মানছি না। আমাদের এক দফা দাবি- সংসদে আইন পাস করে সরকরি চাকরির সব গ্রেডে শুধু পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য ন্যূনতম (সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ) কোটা রেখে সব ধরনের বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল করতে হবে।

আজ মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল রেখে হাইকোর্টের দেয়া রায়ে এক মাসের স্থিতাবস্থা জারি করেছেন আপিল বিভাগ। এ সময় আদালত জানান, আগামী চার সপ্তাহ পর পূর্ণাঙ্গ রায় ঘোষণা করা হবে। পূর্ণাঙ্গ রায়ের পর চূড়ান্ত শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।  

আপিল বিভাগের রায়ের পর শাহবাগে অবস্থান নেয়া বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের নেতারা সাংবাদিকদের জানান, আদালতের প্রতি সম্মান আছে। তবে কমিশন গঠন করে কোটা পদ্ধতির সংস্কার ও স্থায়ী সমাধান  হওয়ার আগে পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

তারা আরও বলেন, হাইকোর্টের সিদ্ধান্তকে সম্মান করি। আমরা ২০২৪ সালে এসে শুধু প্রথম ও দ্বিতীয় নয়, সকল চাকরি থেকে কোটা তুলে নেয়ার এক দফা দাবি আমাদের। আমাদের দাবি হাইকোর্টের কাছে নয়, সংসদের কাছে। সংসদে আইন পাশ করে সকল চাকরি থেকে কোটা তুলে নিতে হবে। আইন অনুসারে ৫ শতাংশ কোটা রেখে সব তুলে নিতে হবে। আমরা স্থায়ী সমাধান চাই। স্থায়ী সমাধান না পাওয়া পর্যন্ত রাজপথ ছাড়ব না, আন্দোলন চালিয়ে যাব।

এদিকে অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন বলেছেন, আদালতের রায়ের পর আন্দোলন করার আর কোনো যৌক্তিকতা নেই।

২০১৮ সালে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণে সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিল করে সরকার। পরে ২০২১ সালে কয়েকজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হাইকোর্টে এর বিরুদ্ধে রিট করেন। গত ৫ জুন হাইকোর্টের এক রায়ের মাধ্যমে আবারও ফিরে আসে কোটা ব্যবস্থা।

এরপর গত ১ জুলাই বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের ব্যানারে আন্দোলনে নামে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এর ধারাবাহিকতায় শনিবার রাজধানীর শাহবাগ থেকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা 'বাংলা ব্লকেড' কর্মসূচি ঘোষণা করেন। সে অনুযায়ী রোববার ও সোমবার টানা দুদিন বিকেলে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকটি পয়েন্টে অবস্থান ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করেন আন্দোলনকারীরা। এছাড়া দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও নিজ নিজ এলাকা থেকে এ কর্মসূচি পালন করেন। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আজ বুধবার সারাদেশে সকাল সন্ধ্যা বাংলা ব্লকেড কর্মসূচি চলছে।

অন্যদিকে আজ সকাল থেকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডসহ বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে আরেকটি কর্মসূচি পালিত হচ্ছে ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল রাখার দাবিতে।


মুক্তিযোদ্ধা   কোটা   বহাল   রায়   স্থিতাবস্থা   আন্দোলনকারীরা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

দিনভর সংঘর্ষে রণক্ষেত্র ঢাকা, রাজধানীতে ৮ জন সহ সারাদেশে নিহত ১০

প্রকাশ: ০৫:৪৭ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

কোটা সংস্কার আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে  উত্তরায় আরও চারজন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। এই চারজনের মরদেহ রয়েছে রাজধানীর উত্তরার বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে।হাসপাতালটির পরিচালক মিজানুর রহমান সংবাদ মাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে উত্তরায় পুলিশ ্যাবের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষে দুজন নিহতের খবর পাওয়া যায়। তাঁদের একজন উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার আগেই মারা যান এবং আরেকজন উত্তরা ক্রিসেন্ট হাসপাতালে মারা যান। দুই হাসপাতালের চিকিৎসকেরা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সব মিলিয়ে উত্তরায় ছয়জনের মৃত্যু নিশ্চিত হওয়া গেছে হাসপাতাল সূত্রে। ছাড়া রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজের এক শিক্ষার্থী, রামপুরায় একজন, সাভারে একজন মাদারীপুরে একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সব মিলিয়ে মৃত্যুর খবর পাওয়া গেল ১০ জনের।


রাজধানী   সারা   দেশে   নিহত ১০  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

কোটা সংস্কারে প্রয়োজনে সংসদে আইন পাস করা হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৫:২৯ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বিকেলে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান। মন্ত্রী বলেন, ‘কোটা সংস্কারে আদালতের রায় অনুযায়ী কাজ করবে নির্বাহী বিভাগ। সর্বোচ্চ আদালতের রায় বা সিদ্ধান্তই আইন হিসেবে গণ্য হবে।’

প্রয়োজন হলে সংসদে আইন পাসও করা হতে পারে। আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টির সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলেও জানান ফরহাদ হোসেন।

এদিকে, জাতীয় সংসদ ভবনের টানেলের নিচে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আন্দোলনকারীদের আলোচনার প্রস্তাবকে স্বাগত জানায় সরকার। আমাকে ও শিক্ষামন্ত্রীকে দায়িত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ওরা চাইলে আমরা আজকেই আলোচনায় বসতে রাজি।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আগামী ৭ আগস্ট ২০২৪ সালে যে মামলাটার শুনানি হওয়ার কথা ছিল সেই শুনানি এগিয়ে আনার জন্য ব্যবস্থা নিতে। আমি সেই মর্মে বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেলকে নির্দেশ দিয়েছি যে, আগামী রোববার বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালতের আপিল বিভাগে আবেদন করবেন যাতে মামলার শুনানির তারিখ তারা এগিয়ে আনেন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘গতকাল (বুধবার) প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে বিচার বিভাগীয় তদন্তের কথা ঘোষণা দিয়েছিলেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে আমরা হাইকোর্টের বিচারপতি খন্দকার দিলুরুজ্জামানকে দিয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি করেছি। এই প্রস্তাব প্রধান বিচারপতির কাছে যাবে। আমার বিশ্বাস তিনি এ প্রস্তাব রাখবেন।’


কোটা   সংস্কার   প্রয়োজন   সংসদ   আইন   পাস   জনপ্রশাসনমন্ত্রী  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

সাভারে এক কোটা আন্দোলনকারী নিহত

প্রকাশ: ০৫:১৬ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

ঢাকার সাভারে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশ ও ছাত্রলীগের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় গুলিতে এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বিকেল ৩ টা ৪০ মিনিটে নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এনাম মেডিকেলের ডিউটি ম্যানেজার ইউসুফ আলী। 

নিহত ওই শিক্ষার্থী ঢাকার মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে।

এনাম মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ডিউটি ম্যানেজার ইউসুফ আলী বলেন, এখন পর্যন্ত একজনকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। তার নাম ইয়ামিন। তিনি ঢাকার মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির (এমআইএসটি) শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। এর বেশি তথ্য নেই।

তিনি আরও জানান, ‘নিহত শিক্ষার্থীর শরীরে গুলির চিহ্ন রয়েছে। আহত আরও পাঁচজনকে এই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


জুলাই   এইচএসসি   পরীক্ষা   স্থগিত  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

‘কোটা আন্দোলনে নিহতের ঘটনা তদন্তপূর্বক ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে’

প্রকাশ: ০৫:১৬ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

কোটা আন্দোলনে নিহত হওয়ার প্রতিটি ঘটনা সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতি এ আহ্বান করা হয়।

বিবৃতি বলা হয়েছে, শিক্ষার্থীদের চলমান কোটা বিষয়ক আন্দোলনের সার্বিক পরিস্থিতি জাতীয় মানবাধিকার কমিশন গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। সৃষ্ট সংঘাতে কমিশন নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করছে। পাশাপাশি, কমিশনের পক্ষ থেকে আহতদের সুষ্ঠু চিকিৎসার জন্য সরকারকে জোর আহ্বান জানানো হচ্ছে।   

বিবৃতিতে কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, সংঘাত নিরসনে সকল পক্ষের ধৈর্য, সহমর্মিতা ও সহনশীলতার পরিচয় দেয়া গুরুত্বপূর্ণ। যেকোনো ধরনের প্রাণহানি ও হতাহতের ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত ও বেদনাদায়ক। প্রতিটি প্রাণ দেশ, জাতি ও পরিবারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ ক্ষেত্রে নিহত হওয়ার প্রতিটি ঘটনা সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি, নিহতদের পরিবারকে যথাযথ সহায়তার অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। কমিশন মনে করে, সকল শিক্ষার্থীর সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ গুরুত্বপূর্ণ। 

একদিকে যেমন সর্বোচ্চ আদালতের চলমান কার্যক্রম ও আপাতত নির্দেশনা কোটা সংস্কার বিষয়ক উদ্ভূত সংকট নিরসনে একটি উজ্জ্বল সম্ভাবনার সৃষ্টি করছে, অন্যদিকে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর পারস্পরিক আলোচনা ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে একটি স্থায়িত্বশীল ও যৌক্তিক সমাধানের রূপরেখা প্রণয়ন গুরুত্বপূর্ণ। অবরোধ, সংঘর্ষ ও সহিংসতা পরিহারপূর্বক জনদুর্ভোগ নিরসনের মাধ্যমে জনজীবনে শান্তি ও শৃঙ্খলা আনয়ন এবং স্বাভাবিক জীবনযাত্রা পরিচালনে সহায়তা করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কমিশন আহ্বান জানাচ্ছে। কমিশন বিশ্বাস করে, সকল পক্ষের আন্তরিক ও সর্বাত্মক প্রচেষ্টায় উদ্ভূত সমস্যার কাঙ্ক্ষিত সমাধান অচিরেই নিশ্চিত হবে।

কোটা আন্দোলন   জাতীয় মানবাধিকার কমিশন   ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

বিটিভিতে আগুন দিল আন্দোলনকারীরা

প্রকাশ: ০৫:০৪ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

রাজধানীর রামপুরায় বাংলাদেশ টেলিভিশনের (বিটিভি) ক্যানটিন, রিসিপশন গাড়িতে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুপুর ২টার দিকে সঠিক তথ্য না প্রচার করা সরকারের পক্ষে নিউজ করার অভিযোগ তুলে হামলা চালায় আন্দোলনকারীরা।

বিটিভির ক্যান্টিন, রিসিপশন গাড়িতে আগুন দেয় তারা। বাড্ডায় চলে দফায় দফায় সংঘর্ষ।

এদিকে কোটা সংস্কারের দাবিতেকমপ্লিট শাটডাউনেরমধ্যে রাজধানীর মেরুল বাড্ডা, রামপুরা, বনশ্রী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আন্দোলনকারী ব্যাপক সংঘর্ষ চলছে।  ঘটনায় শিক্ষার্থী-পুলিশসহ দুই শতাধিক আহত হয়েছেন।


বিটিভি   আগুন   দিল   আন্দোলনকারীরা  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন