ইনসাইড এডুকেশন

হল খোলা রেখে অনলাইনে ক্লাস শুরু বুয়েটের

প্রকাশ: ০৫:২৫ পিএম, ১৫ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

বুয়েটে শুরু হয়েছে অনলাইন ক্লাস কিন্তু সশরীরে ক্লাস না হলেও খোলা রয়েছে ছাত্রদের হল। গত ১২ জানুয়ারি সশরীরে ক্লাস বন্ধের কথা জানায় বুয়েট।

এ বিষয়ে বুয়েটের ছাত্র কল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান বলেন, বিশ্ববিধ্যালয়ের পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অনলাইনে ক্লাস চালু হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত হল খোলা থাকবে।

তিনি আরও বলেন, হলগুলোতে কিছু শিক্ষার্থী করোনা আক্রান্ত হয়েছে বলে তথ্য এসেছে। যদি আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ে তাহলে পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে এখন পর্যন্ত হল বন্ধ করার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

উল্লেখ্য, গত ১২ জানুয়ারি সশরীরে ক্লাস বন্ধের কথা জানায় বুয়েট। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ে জুলাই ২০২১ টার্মের সকল লেভেল/টার্মের শিক্ষার্থীদের থিউরি ক্লাস, ক্লাস টেষ্ট এবং ল্যাবরেটরি ক্লাস অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানানো হয়।

অনলাইন   ক্লাস   বুয়েট  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

আন্দোলনরত শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ঢাকায় ডাকলেন শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশ: ০৫:২৪ পিএম, ২১ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) চলমান উদ্ভূত পরিস্থিতি সমাধানে আলোচনায় বসতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ঢাকায় ডেকেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

আজ শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরীর মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা বলেন অন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। আলাপকালে শিক্ষামন্ত্রী সমস্যা সমাধানে তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসার প্রস্তাব দিলে তাতে সাড়া দেন তারা।

শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে সরাসরি আলোচনা করতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী ঢাকায় আসতে বলেন। এ সময় প্রতিনিধি দলে কারা থাকবে এবং অন্যান্য প্রস্তুতি শেষ করতে শিক্ষামন্ত্রীর কাছে এক ঘণ্টার সময় চান শিক্ষার্থীরা।

প্রসঙ্গত, পুলিশের লাঠিচার্জের ঘটনায় উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগ দাবিতে ১৯ জানুয়ারি অনশনে বসেন ২৪ শিক্ষার্থী। এদিন বিকেল ৩টা থেকে উপাচার্যের বাসভবনের মূল ফটকের সামনে অনশন শুরু করেন তারা। তবে একজন শিক্ষার্থীর বাবা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় তিনি অনশন ভেঙে বাড়ি যান। বাকিদের মধ্যে ১২ জন হাসপাতালে ভর্তি আছেন আর অনশনস্থলে থাকা ১১ জনকে স্যালাইন দেওয়া হয়।

২০ জানুয়ারি রাতে প্রায় সহস্রাধিক শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে মশাল মিছিল করেন। এ সময় তারা উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি করে বিভিন্ন স্লোগান দেন। পরে দিনগত রাত ৩টার দিকে শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের কুশপুতুল দাহ করেন।

শিক্ষামন্ত্রী   শাবিপ্রবি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

করোনা সংক্রমণ কমলে আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশ: ০৫:১৬ পিএম, ২১ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার কমে গেলে আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। আজ শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাজধানীর জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের এক সভা শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। সংক্রমণের হার কমে গেলে আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে। তবে এখন অনলাইনে ক্লাস কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, হঠাৎ করেই শিশুদের মধ্যে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ বিষয়ে সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়, পরে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী স্কুল-কলেজ বন্ধ করা হয়েছে।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, স্কুল বন্ধের যে নির্দেশনা আমরা পেয়েছি, এটি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। এরপর ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের বিষয়ে মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নেবে।

শিক্ষামন্ত্রী   শিক্ষার্থী   শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান   করোনাভাইরাস  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

খোলা থাকবে ঢাবির আবাসিক হল

প্রকাশ: ০১:৩৬ পিএম, ২১ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

সরকারি সিদ্ধান্তের সঙ্গে মিল রেখে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো খোলা থাকবে। এছাড়া আগামীকাল (২৩ জানুয়ারি) থেকে অনলাইন ক্লাস শুরু হবে। সীমিত হবে প্রশাসনিক ভবনের কার্যক্রম।

আজ শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাবি উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল গণমাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ড. এএসএম মাকসুদ কামাল বলেন, আমাদের শ্রেণি কার্যক্রম চালু থাকবে। আগামী রোববার থেকে আমরা অনলাইন ক্লাসে যাচ্ছি। এ সময় পরীক্ষাও অনলাইনে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলের বিষয়ে মাকসুদ কামাল বলেন, এই মুহূর্তে আমরা আবাসিক হল বন্ধ করব না। শিক্ষার্থীরা যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি হলে অবস্থান করবেন। প্রশাসনিক ভবনের কার্যক্রমও আমরা সীমিত করব।

প্রসঙ্গত, এর আগে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও সেশনজট নিরসনে অনলাইন ক্লাস চলমান থাকবে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

ঢাবি   করোনাভাইরাস  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

সব পরীক্ষা স্থগিত করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশ: ০১:১৪ পিএম, ২১ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন সব পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। আজ শুক্রবার (২১  জানুয়ারি) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জেলা ও মাঠ প্রশাসন অধিশাখা থেকে জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে আবারও দুই সপ্তাহের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করার পর এ সিদ্ধান্ত নেয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ইতোমধ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জেলা ও মাঠ প্রশাসন অধিশাখা থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। প্রজ্ঞাপনে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিষয়ে বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিজ নিজ ক্ষেত্রে অনুরূপ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। প্রজ্ঞাপন জারির পর পরই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও এর অধিভুক্ত কলেজগুলো বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ধরণের পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসব পরীক্ষার সময়সূচি পরবর্তীতে জানানো হবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা সরকারি সিদ্ধান্তের আলোকে দুই সপ্তাহের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ও এর অধিভুক্ত কলেজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পরীক্ষাসমূহও এখন বন্ধ রাখায় সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে অনলাইনে ক্লাস চলবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

বন্ধ ঘোষণা করা হলো সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

প্রকাশ: ১১:৪৪ এএম, ২১ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

মহামারি করোনাভাইরাসের নতুন ধরণ ওমিক্রনের অতি সংক্রমণ পরিস্থিতিতে দেশ জুড়ে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী দুই সপ্তাহ বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। 

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে করোনার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে ব্রিফিংকালে এ তথ্য জানান তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা সংক্রমণ কিছুটা কমে আসায় আমরা স্কুল-কলেজ, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু করেছিলাম। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, স্কুল-কলেজে সংক্রমণের হার বেড়ে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীরা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নিতে আসছে। এটা আশঙ্কাজনক। এমন অবস্থায় আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে। আজ থেকে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আগামী দুই সপ্তাহ আমরা স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

পরিস্থিতি বুঝে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে বলেও জানান তিনি।

করোনা   ওমিক্রন   টিকা   শিক্ষা প্রতিষ্ঠান  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন