ইনসাইড এডুকেশন

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির মেধাতালিকা প্রকাশ আজ

প্রকাশ: ১২:৫৬ পিএম, ২০ Jun, ২০২২


Thumbnail জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির মেধাতালিকা প্রকাশ আজ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের অনার্সে ভর্তির মেধাতালিকা আজ (২০ জুন) প্রকাশ হবে। বিকেল ৪টায় নির্বাচিতদের তালিকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া হবে। এছাড়া মুঠোফোনে এসএমএসের মাধ্যমেও ফল জানা যাবে।

সোমবার (২০ জুন) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকপূর্ব শিক্ষা বিষয়ক স্কুলের ডিন (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মো. নাসির উদ্দিন এসব তথ্য জানিয়েছেন।

অধ্যাপক ড. মো. নাসির উদ্দিন বলেন, আমাদের ফল প্রস্তুত আছে। বিকেল ৪টায় ওয়েবসাইটে ফল প্রকাশ করা হবে। ভর্তিচ্ছুরা মুঠোফোনে এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে পারবেন।

তিনি আরও জানান, ফল প্রকাশের পর থেকে ২৮ জুনের মধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি সংক্রান্ত ওয়েবসাইটে গিয়ে অনার্স অ্যাপ্লিকেন্ট লগ-ইন লিংকে গিয়ে সঠিক রোল নম্বর ও পিন নম্বর দিয়ে লগ-ইন করে চূড়ান্ত ভর্তি ফরম পূরণ করে এর প্রিন্ট কপি নিতে হবে।

জানা যায়, গত ২২ মে বিকেল ৪টা থেকে শুরু হয়ে ৯ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া চলে। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখার তিন ইউনিটে সর্বমোট ৫ লাখ ৪৮ হাজার ৪২৮ জন ভর্তিচ্ছু আবেদন করেছেন। এর মধ্যে বিজ্ঞানে ১ লাখ ৬০ হাজার ৮৮৪ জন, ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় ১ লাখ ১২ হাজার ৭৬৫ এবং মানবিকে ২ লাখ ৭৪ হাজার ৭৮২টি আবেদন পড়েছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়   মেধাতালিকা   প্রকাশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা কেন বেপরোয়া হয়ে উঠছে?

প্রকাশ: ০৯:০৬ পিএম, ০৩ Jul, ২০২২


Thumbnail শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা কেন বেপরোয়া হয়ে উঠছে?

সম্প্রতি সাভারের হাজী ইউনুছ আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী আশরাফুল আহসান জিতু তারই শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে ক্রিকেট স্ট্যাম্প দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এরপর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ওই শিক্ষক। শিক্ষকের অপরাধ ইভটিজিংসহ আচরণগত সমস্যার কারণে শৃঙ্খলা কমিটির প্রধান হিসেবে জিতুকে শাসন করা। জানা যায়, জিতু এলাকায় একটি কিশোর গ্যাং পরিচালনা করে বেড়াচ্ছিল। তার এভাবে বেড়ে ওঠার পেছনে অভিভাবকদের সমর্থন কিংবা নীরব ভূমিকা ছিলো। এ ধরণের কিশোর গ্যাং দেশে বেড়েছে বহুগুণে। অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই বখাটে, মেয়েদের উত্ত্যক্তকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের হুমকি-ধমকি দেওয়া ব্যক্তিদের নাম গণমাধ্যমে উঠে আসে। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রাবাসে এমন বেপরোয়া শিক্ষার্থীর আতঙ্কে বেশিরভাগ শিক্ষার্থীই শিক্ষাজীবন কাটান, দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকদের অনেকেই এ ধরনের বেপরোয়া শিক্ষার্থীর আচরণে বিব্রত হন। রাজনৈতিক পরিচয়ে এরা এমন বেপরোয়া হয়ে ওঠার সুযোগ পায় বলেও জানান অনেকেই। প্রশ্ন হচ্ছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এসব হচ্ছে কেন?

এই বিষয়ে শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, আমরা একটা অপসংস্কৃতির দিকে চলে যাচ্ছি। আগে সমাজের সব ক্ষেত্রে শিক্ষকদের আলাদা একটা মর্যাদার জায়গা ছিল। নানা কারণেই আমাদের সমাজের এখন অবক্ষয় হয়েছে। এখন শিক্ষকরা মর্যাদা তো পায় না বরং তারা নিপীড়নের শিকার হচ্ছেন বিভিন্নভাবে। সাম্প্রতিক সময়ে সাভারে যে ঘটনাটি ঘটছে তা রীতিমতো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। যে ছাত্র এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে তার নিজস্ব একটি কিশোর গ্যাং আছে। আমি মনে করি আমাদের ব্যর্থতার চেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরও একটা বড় ব্যর্থতা আছে। যেভাবে শিশু কিশোররা গ্যাং তৈরি করছে। তা বড় উদ্বেগের কারণ হয়ে উঠেছে। তাছাড়া এরা যে শুধু শিক্ষকদের ওপর হামলা চালাচ্ছে না নয়, এরা হরহমাশেই বিভিন্ন মানুষের ওপর হামলা করছে। সেটা হয়তো কোনো ব্যবসায়ীর ওপর করছে কিংবা কোনো মহিলাকে হেনেস্তা করছে। যে গুলো হয়তো সেভাবে সামনে আসেনি।

এদিকে আবার ধর্মীয় কিংবা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারিত গুজবে বিশ্বাসী হয়ে একদল শিক্ষার্থী শিক্ষকদের অপদস্থ করতে মোটেও দ্বিধা করে না। নড়াইলের মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে জুতার মালা পরিয়ে অপদস্থ করা, তিনজন শিক্ষকের মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়াসহ কলেজে ভয়ানক দাঙ্গা সৃষ্টির মতো পরিস্থিতি এর সাম্প্রতিক উদাহরণ। এর পেছনে অনেক শিক্ষক উসকানিদাতা ছিলো বলেই জানা যায়। অথচ ফেসবুকের সরাসরি ধর্ম-সংক্রান্ত নয় এমন একটি পোস্ট একজন শিক্ষার্থী শেয়ার দেওয়ার অপরাধে হিন্দু সম্প্রদায়ের কলেজশিক্ষকদের বিরুদ্ধে উত্তেজনা সৃষ্টি, শিক্ষককে এভাবে অপদস্থ করা, মেরে ফেলতে তেড়ে আসার বিষয়টি কতটা হিংসাত্মক মনোবৃত্তির পরিচয় বহন করে, তা সহজেই অনুমেয়।

কদিন আগে মুন্সিগঞ্জের বিনোদপুর রামকুমার উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষক হৃদয় মণ্ডলকে তাঁরই শ্রেণীকক্ষের কয়েকজন শিক্ষার্থী ধর্ম অবমাননার মিথ্যা অপবাদ দিয়ে দেশে তুলকালাম ঘটিয়ে দিয়েছে। এর কয়েক বছর আগে একজন সংসদ সদস্য ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অপবাদ দিয়ে একজন প্রধান শিক্ষককে কান ধরিয়ে ওঠবস করিয়েছিলেন। অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ ধরনের ঘটনা প্রায়ই ঘটছে। শিক্ষককে অপদস্থ করার পেছনে কখনো ছাত্র, কখনো পরিচালনা কমিটি, কখনো স্থানীয় প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ শিক্ষক অংশ নিচ্ছেন।

আবার উল্টো অভিজ্ঞতাও কম নয়। নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, তাঁর কয়েকজন সহকর্মী এবং লম্পট ছাত্র, স্থানীয় রাজনীতির কিছু ব্যক্তি জড়িত থাকার অভিযোগও প্রমাণিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে প্রায়ই শিক্ষকদের দ্বারা ছাত্রীদের যৌন হয়রানির কথা শোনা যায়। পত্রপত্রিকায় শিক্ষার্থীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন, ছাত্রাবাসে ছাত্রদের বলাৎকার, যৌন হয়রানি ইত্যাদিতেও জড়িত থাকার অসংখ্য ঘটনা বাংলাদেশে প্রায়ই ঘটে থাকে। কিন্তু শিশু শিক্ষার্থীর বলাৎকারের বিষয়টি এখন সমাজে বড় ধরনের দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনায় দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের বেশির ভাগই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আইন, বিধিবিধান জানেন না, মানেনও না। আবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগেও রয়েছে অনিয়ম, দুর্নীতি এবং অযোগ্যদের নানা ফাঁকফোকর। শ্রেণিপাঠের পরিবর্তে কোচিং, নোটবই, গাইডবই এবং পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের নানা ব্যবস্থা।

জিপিএ-৫ পাওয়া, দেশসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার দৌড়ে শিক্ষক এবং অভিভাবকদের মনোযোগ যেখানে, সেখানে শিক্ষার্থীর মানসগঠন, সাংস্কৃতিক বোধ, সমাজ ও বিশ্ববাস্তবতার জ্ঞান আহরণ হারিয়ে যেতে বসেছে। ফলে শিক্ষার নামে যা চলছে তাতে মেধাবী, যুক্তিশীল, উদার মানসিকতা, সৃজনশীলতা, উদ্ভাবনী ক্ষমতা শিক্ষার্থীদের মধ্যে হারিয়ে যেতে বসেছে। সেখানে ঝেঁকে বসেছে কার্যত অর্ধশিক্ষা, বখাটে হয়ে যাওয়া, বেকারত্ব এবং সমাজ ও সভ্যতাবিরোধী বিশ্বাসে বেড়ে ওঠা তরুণ-তরুণী। আর এর থেকে উত্তরণে পরিবার, অভিভাবক এবং শিক্ষকদের নজরদারি এবং ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছেন শিক্ষাবিদরা।


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

এসএসসি পরীক্ষার সময় পিছিয়ে আগস্টে

প্রকাশ: ০৩:৫৬ পিএম, ০৩ Jul, ২০২২


Thumbnail এসএসসি পরীক্ষার সময় পিছিয়ে আগস্টে

ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার জানিয়েছেন, সারাদেশের বন্যা পরিস্থিতি এখনও স্বাভাবিক না হওয়ায় জুলাই মাসে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা হবে না। তিনি বলেন, বন্যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসএসসি পরীক্ষা আগস্ট মাসে শুরু হবে।

রোববার (৩ জুলাই) দুপুরে তিনি বলেন, জুলাই মাসে এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে না। কারণ আমরা আজকে সবাইকে নিয়ে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দেখেছি যে, সিলেটের অর্ধেকেরও বেশি কেন্দ্র এখন আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। এগুলো সংস্কার করে পুনরায় পরীক্ষার উপযোগী করতে সময় লাগবে। তাই ‍জুলাই মাসে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে না। আগস্ট মাসে পরীক্ষা শুরু হবে। তবে  আগস্ট মাসের কত তারিখ পরিক্ষা শুরু হবে সে বিষয়ে ঈদের পর আলোচনায় বসবো।  

তাহলে কি এইচএসসি পরীক্ষা আরও পিছিয়ে যাবে, জানতে চাইলে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান বলেন, যেহেতু এইচএসসি পরীক্ষা এসএসসি পরীক্ষার সঙ্গে সম্পর্কিত, তাই এই পরীক্ষাও পিছিয়ে যাবে।

জানা যায়, রোববার (০৩ জুলাই) দুপুরে আন্তঃবোর্ডের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, দেশব্যাপী এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল গত ১৯ জুন থেকে। তবে সিলেটসহ দেশের কয়েকটি এলাকায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় ১৭ জুন এসএসসি পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা আসে। 

শিক্ষা বোর্ড   এসএসসি   আগস্টে  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

ঢাবি'র 'ক' ইউনিটের ভর্তি পরিক্ষার ফল প্রকাশ আগামীকাল

প্রকাশ: ০১:৫৩ পিএম, ০৩ Jul, ২০২২


Thumbnail ঢাবি'র 'ক' ইউনিটের ভর্তি পরিক্ষার ফল প্রকাশ আগামীকাল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের অধীনে প্রথম বর্ষে (স্নাতক সম্মান) ভর্তি পরীক্ষার ফল সোমবার (৪ জুলাই) প্রকাশ করা হবে।

দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রশাসনিক ভবনের অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে আনুষ্ঠানিকভাবে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

রোববার (৩ জুলাই) দুপুরে ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ফল প্রকাশ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ১১ জুন বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ঢাকা ও ঢাকার বাইরে সাতটি বিভাগীয় শহরে ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। বিজ্ঞান অনুষদের জন্য নির্ধারিত এই ইউনিটে মোট আসন রয়েছে ১৮৫১টি। এর বিপরীতে ১ লাখ ১৫ হাজার ৭০৮ জন শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল।

‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচ অনুষদ ও পাঁচ ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন বিভাগে ভর্তি নেওয়া হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়   ভর্তি পরিক্ষা   ফল প্রকাশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

ঢাবি'র ‘গ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, যেভাবে জানবেন ফলাফল

প্রকাশ: ০১:০৪ পিএম, ০৩ Jul, ২০২২


Thumbnail ঢাবি'র ‘গ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, যেভাবে জানবেন ফলাফল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে।

রোববার (০৩ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রশাসনিক ভবনের অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করেন।

এ বছর ‘গ’ ইউনিটে আবেদন করেছিলেন ৩০ হাজার ৬৯৩ জন। এরমধ্যে অংশগ্রহণ করেছেন ২৯ হাজার ৯৯৭ জন। পাস করেছেন মাত্র ৪২৮৯ জন শিক্ষার্থী। যা মোট শিক্ষার্থীর ১৪ দশমিক ৩ শতাংশ। বাকি ৮৫ দশমিক ৭ শতাংশ শিক্ষার্থীই ফেল করেছেন।

ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত এ ইউনিটে গতবার পাসের হার ছিল ২১.৭৫ শতাংশ। এবার এই ইউনিটের মাধ্যমে ৯৩০ জন শিক্ষার্থী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাবেন। এর আগে গত ৩ জুন ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও দেশের সাতটি বিভাগে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে একযোগে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

যেভাবে ফলাফল জানা যাবে

গ-ইউনিট ভর্তি পরীক্ষায় অবতীর্ণ শিক্ষার্থী তার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ডের নাম, পাসের সন এবং মাধ্যমিক পরীক্ষার রোল নম্বর এর মাধ্যমে https://admission.eis.du.ac.bd ওয়েবসাইট থেকে পরীক্ষার ফলাফল জানতে পারবে।

তাছাড়াও, আবেদনকারী রবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক অথবা টেলিটক নম্বর থেকে DU GA টাইপ করে ১৬৩২১ নম্বরে send করে ফিরতি SMS-এ তার ফলাফল জানতে পারবে।


শিক্ষার্থীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ তারিখসমূহ

(ক) মেধাক্রম ১ থেকে ১১০০ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদেরকে আগামী ০৬ জুলাই, ২০২২ বিকাল ৩:০০ টা হতে ২১ জুলাই, ২০২২ বিকাল ৫:০০ টা পর্যন্ত ভর্তিপরীক্ষার ওয়েবসাইটে বিস্তারিত ফরম ও বিষয়ের পছন্দক্রম ফরম পূরণ করতে হবে।

(খ) ভর্তিপরীক্ষায় উত্তীর্ণ বিভিন্ন কোটায় আবেদনকারীদের ০৬ জুলাই, ২০২২ হতে ২১ জুলাই, ২০২২ তারিখের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কোটার ফরম বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অফিস হতে সংগ্রহ করতে হবে এবং যথাযথভাবে পূরণ করে উক্ত সময়ের মধ্যে ডিন অফিসে জমা দিতে হবে।

(গ) ফলাফল নিরীক্ষণের জন্য ১০০০ (এক হাজার) টাকা ফি প্রদান সাপেক্ষে আগামী ০৬ জুলাই, ২০২২ হতে ২১ জুলাই, ২০২২ পর্যন্ত বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অফিসে আবেদন করা যাবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়   'গ' ইউনিট   ফল   প্রকাশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

রাবিতে ১৭ দিনের ছুটি, খোলা থাকবে আবাসিক হল

প্রকাশ: ০৯:১০ এএম, ০৩ Jul, ২০২২


Thumbnail

আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে আগামী ৭ জুলাই থেকে ২১ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ থাকবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ক্লাস ও পরীক্ষা। এছাড়া ২২-২৩ জুলাই শুক্র-শনিবার হওয়ায় ২৪ জুলাই থেকে যথারীতি ক্লাস-পরীক্ষা শুরু হবে। তাই প্রশাসনিকভাবে ১৫ দিনের ছুটি হলেও প্রকৃতপক্ষে ছুটি থাকছে ১৭ দিনের। তবে এবার ঈদে খোলা থাকছে রাবির আবাসিক হলগুলো।

শনিবার (০২ জুলাই) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাধ্যক্ষ পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক ফেরদৌসী মহল।

তিনি বলেন, প্রাধ্যক্ষ পরিষদের এক সভায় হল খোলা রাখার কথা জানান উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার। রোববার অফিসিয়ালভাবে বিষয়টি জানানো হবে এবং প্রত্যেক হলে নোটিশ পাঠানো হবে।

এদিকে হল খোলা রাখার সিদ্ধান্তে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রশংসা করছেন শিক্ষার্থীরা। অনেকেই প্রশাসনকে সাধুবাদ জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও পোস্ট করছেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়   ছুটি   ঈদুল আজহা  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন