ইনসাইড গ্রাউন্ড

যেখানে মেসি থেকে এগিয়ে রোনালদো

প্রকাশ: ০৭:৫৫ পিএম, ১০ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

তাদের মধ্যে কে সেরা, এটা নিয়ে বয়ে যায় বিতর্কের ঝড়। তবে আপাতদৃষ্টিতে পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে লিওনেল মেসি এগিয়ে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো থেকে। সাতটি ব্যালন ডি’অর মেসির ঝুলিতে। তার ব্যক্তিগত ট্রফি কেসে আছে ছয়টি ফিফা বর্ষসেরার পুরস্কারও, জিততে পারেন এবারও। সেখানে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো যেন খানিকটা পিছিয়েই পড়েছেন তার থেকে। গেল ব্যালন ডি’অরে সেরা তিনে ছিলেন না তিনি, নেই ফিফা বর্ষসেরার সেরা তিনেও।

তবু এক জায়গায় মেসি যোজন যোজন ব্যবধানে পিছিয়ে রোনালদো থেকে। সেটা ইনস্টাগ্রামে। অনুসারীসংখ্যার দিক থেকে আগেই পিছিয়ে ছিলেন তিনি, এবার জানা গেল, আয়ের দিক থেকেও মেসি রোনালদো থেকে অনেক পিছিয়ে। সম্প্রতি এক তালিকা প্রকাশ করেছে হুপার্স এইচকিউ। সেখানেই উঠে এসেছে এই তথ্য।

ইনস্টাগ্রামে রোনালদোর অনুসারীর সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। প্রায় ৩০ কোটি ছুঁয়ে ফেলেছে সে সংখ্যাটা। তার ছাপই পড়েছে সেই তালিকায়। সবচেয়ে বেশি অনুসারী থাকার কারণেই রোনালদো বিশ্বের সবার চেয়ে সবচেয়ে বেশি আয় করেন ইনস্টাগ্রাম থেকে। হুপার্স জানাচ্ছে সংখ্যাটা প্রায় ১৪ কোটি ছুঁয়ে ফেলবে।

মেসির অনুসারী রোনালদো থেকে কিছুটা কম। সেখানে রেকর্ড সাত বারের ব্যালন ডি’অর বিজয়ীকে অনুসরণ করছেন ২১.৬ কোটি ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী। সে কারণেই আয়ের দিক থেকে রোনালদোর ধারে কাছেও নেই মেসি। সেই তালিকা বলছে, মেসির আয়টা ১১ কোটি টাকার কাছাকাছি। 


সব মিলিয়ে মেসি আছেন ইনস্টাগ্রাম থেকে সর্বোচ্চ আয়ের তালিকায় সপ্তম অবস্থানে। তার আগে আছেন ডোয়াইন ‘দ্য রক’ জনসন, আরিয়ানা গ্রান্দে, কাইলি জেনার, সেলেনা গোমেজ ও কিম কারদাশিয়ান। 

খেলোয়াড়দের মধ্যে মেসির পরই অবস্থান নেইমারের। প্রায় দেড় কোটি ফলোয়ার নিয়ে তিনি এক ইনস্টাগ্রাম পোস্ট থেকে আয় করেন প্রায় ৭.৫ কোটি টাকার সমপরিমাণ অর্থ। 

মেসি   রোনালদো  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

চিলিতে আর্জেন্টিনার ফুটবলারদের বাথরুমে যেতে দেওয়া হয়নি!

প্রকাশ: ১১:৫১ এএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) স্বাগতিক চিলির বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। যদিও এ ম্যাচে ছিলেন না লিওনেল মেসি। এমনকি ডাগআউটে ছিলেন না কোচ লিওনেল স্ক্যালোনিও। তবুও আন্তর্জাতিক ফুটবলে টানা ২৮ ম্যাচ ধরে অপরাজিত থাকার তকমা ধরে রেখেছে কোপাজয়ীরা।

তবে ম্যাচ জেতার পর গুরুতর এক অভিযোগ করেছেন আর্জেন্টাইন ফুটবলার ডি পল। তিনি বলেন, বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচ খেলতে চিলিতে আসার পর থেকেই তারা আমাদের সঙ্গে খুব বাজে ব্যবহার করেছে।

তিনি জানান, প্লেন থেকে নামার পর আমাদের বাথরুমে পর্যন্ত যেতে দেওয়া হয়নি। এ ছাড়া আমাদের এয়ার কন্ডিশনারের লাইন কেটে দিয়েছে। পানি বন্ধ করে দিয়েছে। এ ছাড়া সারাক্ষণ সাইরেনের শব্দ শুনিয়ে শুনিয়ে বিরক্ত করেছে।

মেসির এ সতীর্থ আরও বলেন, আমি বলছি না এটা ঠিক নাকি ভুল। কিন্তু একজন আর্জেন্টাইন হিসেবে, আমার দেশে আসা প্রতিটি দলই যথাসম্ভব স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। আমরা শুধু খেলায় নয়, আচার-ব্যবহার দিয়ে তাদের মনও জয় করে নেই।

আর্জেন্টিনা   চিলি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

আইপিএলের সব ম্যাচ এক শহরে, শুরু ২৭ মার্চ

প্রকাশ: ১১:২৭ এএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

করোনার ঊর্ধ্বমুখীর মধ্যেই আইপিএল আয়োজনের জোড় প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছে আয়োজকরা। আগামী ২৭ মার্চ থেকে শুরু হতে পারে এবারের আইপিএল। তবে, এবারের আইপিএলে ভেন্যু কমে যাচ্ছে। 

এবারের আইপিএল সম্ভবত পুরোটাই হবে মুম্বাই শহরে। আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না আসলেও বৃহস্পতিবার ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভায় মোটামুটি এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আইপিএলের কেন্দ্র হিসেবে মুম্বাইয়ের কথা ভাবার বড় কারণ, সেখানে কোভিডের সংক্রমণ অনেকটাই কমে গেছে। তাছাড়া মুম্বাইয়ে খেলা হলে একসঙ্গে তিনটি স্টেডিয়াম পাওয়া যাবে।

ওয়াংখেড়ে, ব্র্যাবোর্ন এবং ডিওয়াই পাতিল স্টেডিয়ামে ম্যাচগুলো আয়োজনের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। তেমন হলে দলগুলোকে আর বিমানে যাতায়াত করতে হবে না। প্রয়োজন পড়লে কিছু ম্যাচ পুনেতেও নেওয়া হতে পারে।

আইপিএল  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

অতিরিক্ত খেলোয়াড় না থাকায় উইকেটকিপিং করলেন কোচ!

প্রকাশ: ১১:০৯ এএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

করোনার কারণে দলের এমনই বিপদ যে, উইকেটের পেছনে দাঁড়ানোর মতো কেউ নেই। কিন্তু দলের মুখরক্ষা করতে গিয়ে সহকারী কোচকে প্যাড-গ্লাভস করে উইকেটরক্ষা করতে নেমে পড়তে হলো। খেলোয়াড় হিসেবে দলে ছিলেন না। ফলে খেলার কোনো কথাও ছিল না। নিয়মিত উইকেটকিপার কোভিডে আক্রান্ত হওয়ায় এই কাণ্ড!

ঘটনাটি ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি লিগ বিগ ব্যাশে (বিবিএল)। বিবিএলে সেমিফাইনাল খেলা ছিল সিডনি সিক্সার্স ও অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্সের মধ্যে। কিন্তু ম্যাচের আগে সিডনির উইকেটকিপার জস ফিলিপের কোভিড পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে। বদলি উইকেটকিপার হিসেবে কাউকে না পাওয়ায় সিডনি বাধ্য হয় তাদের সহকারী কোচ জে লেন্টনকে উইকেটকিপার হিসেবে নামাতে।

নিয়মিত উইকেটকিপারকে না পেয়েও সিডনির অবশ্য জিততে কোনও অসুবিধে হয়নি। তারা ৪ উইকেটে হারায় অ্যাডিলেডকে। 

বিগ ব্যাশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

ধোনির ফোন নম্বার জানেন না রবি শাস্ত্রী!

প্রকাশ: ১০:৫৪ এএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

খুব কম মানুষের কাছে মহেন্দ্র সিং ধোনির ফোন নম্বর রয়েছে। ২০১৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত এক সাজঘরে সময় কাটিয়েও রবি শাস্ত্রীর কাছে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়কের নম্বর নেই। ধোনি এমনই মানুষ। তাঁর নাগাল পেতে সাংবাদিকরা যেমন হিমশিম খান, শাস্ত্রীরও নাকি তেমন অবস্থাই হয়।

২০১৯ সালে অবসর নেওয়ার পর ধোনি কোথায় রয়েছেন তা নিয়ে প্রশ্ন ছিল। কিন্তু তাঁর খোঁজ প্রায় কারও কাছেই ছিল না। বেশ কিছু দিন পর তিনি নিজেই জানান খামারবাড়িতে রয়েছেন তিনি। ধোনি না চাইলে তাঁর খোঁজ পাওয়া সত্যিই বেশ মুশকিল। শোয়েব আখতারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে শাস্ত্রী বলেন, “ফোন যাতে হাতে না নিতে হয়, তার জন্য যা যা করা যায়, সব করবে ধোনি। সত্যি বলতে আমার কাছে ওর নম্বর নেই। ওর কাছে ফোন খুব কম থাকে। ধোনি এমনই মানুষ।”

ভারতীয় ক্রিকেটে ধোনিকে ‘ক্যাপ্টেন কুল’ বলে ডাকা হয়। মাঠের মধ্যে কখনও রাগতে দেখা যায়নি ধোনিকে। শাস্ত্রী বলেন, “আমি অনেক ক্রিকেটার দেখেছি। শচীন টেন্ডুলকারকে দেখেছি। কিন্তু ধোনির মতো কাউকে দেখিনি। শূন্য করুক বা ১০০, বিশ্বকাপ জিতুক বা প্রথম পর্বে হেরে যাক, ধোনির কাছে কোনওটাই যেন কোনও ব্যাপার নয়। অনেক সময় শচীনকেও রাগতে দেখেছি, কিন্তু ধোনিকে কখনও না।”

মহেন্দ্র সিং ধোনি   রবি শাস্ত্রী  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

চমক দেখিয়ে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে আফগানিস্তান

প্রকাশ: ১০:২৩ এএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

চমক দেখিয়ে যুব বিশ্বকাপের সুপার লিগ সেমিফাইনালে নাম লেখালো আফগানিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দল। বৃহস্পতিবার রাতে এন্টিগায় শ্বাসরুদ্ধকর এক লড়াইয়ে শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে ৪ রানে হারিয়ে দিয়েছে তারা।

দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে আফগানিস্তানের ইনিংস গুটিয়ে যায় মাত্র ১৩৪ রানে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেন আব্দুল হাদি, ৯৭ বলের মোকাবেলায়। এছাড়া নূর আহমেদ ৩০ ও আল্লাহ নূর ২৫ রান করেন।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে ভিনুজা রানপল একাই শিকার করেন পাঁচটি উইকেট। এছাড়া তিনটি উইকেট শিকার করেন ওয়েল্লালাগে।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ২ রানে প্রথম উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কা পড়ে আরও ভয়ানক ব্যাটিং বিপর্যয়ে। ৪৩ রানের মধ্যেই ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলে দলটি। এরপর হাল ধরেন অধিনায়ক দুনিথ ও রবিন ডি সিলভা।

অষ্টম উইকেটে দুজনে গড়েন ৬৯ রানের পার্টনারশিপ। ৬১ বলে ৩৪ রান করে বিদায় নেন দুনিথ। ৮৪ বলে ২১ রান করা রবিনও সাজঘরে ফেরেন।

এরপর ভিনুজাকে নিয়ে ত্রিভান ম্যাথু আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন। তবে ভুল বোঝাবুঝিতে ম্যাথু রানআউট হলে ৪ ওভার বাকি থাকতেই ১৩০ রানে থামে লঙ্কানদের ইনিংস। ১৪ বলে ১১ রানে অপরাজিত থাকেন ভিনুজা।

আফগানদের পক্ষে জোড়া উইকেট শিকার করেন বিলাল সামি।

যুব বিশ্বকাপ   অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন