ইনসাইড গ্রাউন্ড

বর্ষসেরার পুরস্কার জিতলেন মিচেল স্টার্ক

প্রকাশ: ১২:৪৫ পিএম, ২৯ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail বর্ষসেরার পুরস্কার জিতলেন মিচেল স্টার্ক।

অজি ক্রিকেটের ঘটনাবহুল এক বছর শেষে বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে বর্ষসেরা ক্রিকেটারদের পুরস্কৃত করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। সেখানে 'অ্যালান বোর্ডার মেডেল' পেয়েছেন বাঁহাতি পেস বোলার মিচেল স্টার্ক।

অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে বর্ষসেরার পুরস্কারগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কার হিসেবে ধরা হয় ‘অ্যালান বোর্ডার মেডেল’। ক্রিকেট ক্যারিয়ারে এবারই প্রথমবারের মতো অ্যালান বোর্ডার মেডেল জিতলেন স্টার্ক। দুর্দান্ত বোলিংয়ে বছরজুড়ে তিন সংস্করণেই উত্তাপ ছড়িয়েছেন তিনি। ২৪.৪ বোলিং গড়ে স্টার্ক শিকার করেছেন সর্বোচ্চ ৪৩ উইকেট।

শুধু অ্যালান বোর্ডার মেডেলই না, অস্ট্রেলিয়ার বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারও নির্বাচিত হয়েছেন স্টার্ক। ২০২১ সালে অস্ট্রেলিয়া খুব বেশি ওয়ানডে খেলার সুযোগ পায়নি। স্টার্ক মাত্র তিনটি ওয়ানডে ম্যাচে শিকার করেছেন ১১টি উইকেট। সেরা বোলিং ৪৮ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট। বোলিং গড় মাত্র ১০.৬৪ এবং ইকোনমিক রেট ৪.৩১।

বর্ষসেরা টেস্ট ক্রিকেটারের পুরস্কার জিতেছেন ব্যাটার ট্রেভিস হেড। ২০২১ সালে হেড টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন তিনটি। চার ইনিংসে ৬২ গড়ে তার সংগ্রহ ২৪৮ রান। হাঁকিয়েছিলেন একটি শতক ও একটি অর্ধশতক।

২০২১ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। টি-টোয়েন্টি সংস্করণে অস্ট্রেলিয়ার বর্ষসেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন মিচেল মার্শ। অজিদের মধ্যে গত বছর সবচেয়ে বেশি টি-টোয়েন্টি ম্যাচও খেলেছেন এই অলরাউন্ডার। ২১ ম্যাচে ব্যাটিংয়ে ৩৬.৮৮ গড় ও ১২৯.৮১ স্ট্রাইকরেটে মার্শের সংগ্রহ ৬২৭ রান। বল হাতে ১৮.৩৮ গড়ে নিয়েছেন ৮টি উইকেট। এই পারফরম্যান্স তাকে এনে দিয়েছে বর্ষসেরার খেতাব।

একজনকে ২০২১ সালে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে বর্ষসেরার পুরস্কার জিতলেন যারা:

অ্যালান বোর্ডার মেডেল- মিচেল স্টার্ক

বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটার- মিচেল স্টার্ক

বর্ষসেরা টেস্ট ক্রিকেটার- ট্রেভিস হেড

বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার- মিচেল মার্শ

বর্ষসেরা ঘরোয়া ক্রিকেটার- ট্রেভিস হেড

ব্রাডম্যান বর্ষসেরা উদীয়মান ক্রিকেটার- টিম ওয়ার্ড

অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট হল অব ফেম- জাস্টিন ল্যাঙ্গার ও রাইলি থম্পসন।


মিচেল স্টার্ক  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

তামিমের পর মুশফিকের সেঞ্চুরিতে লিডে বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০৩:৫৪ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail তামিমের পর মুশফিকের সেঞ্চুরি লিডে বাংলাদেশ

দল কিংবা নিজের যেকোনো পরিস্থিতিতে এক অনবদ্য দৃঢ় চেতা লড়াকু মুশফিকুর রহিম। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও দলের প্রয়োজনে দেখেশুনে খেলে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন তিনি। তবে সেঞ্চুরির পর তা আর দীর্ঘ করতে পারলেন না বাংলাদেশের এই ডিপেন্ডেবল। 

টেস্টে ম্যাচে অষ্টম সেঞ্চুরির পথে ফার্নান্ডোকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে তিন অংকের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটার। সেঞ্চুরি করার পথে আরো এক অসাধারণ মুহুত উপহার দেন মুশি। প্রথম কোন বাংলাদেশি ব্যাটার হিসেবে টেস্ট ম্যাচে পাঁচ হাজার রানের এলিট ক্লাবে প্রবেশ করেন এই টাইগার ব্যাটার। এই ক্লাবে প্রবেশ করতে তার লাগলো ৮১ টেস্টের ১৪৯ ইনিংস। বিশ্বের ৯৯তম ব্যাটার হিসেবে মুশফিক এই ফরম্যাটে পাঁচ হাজার রান করলেন।

একই ম্যাচে মুশফিকের সাথে সেঞ্চুরির দেখা পান অভিজ্ঞ তামিম ইকবাল। একই টেস্টে মুশফিক-তামিমের সেঞ্চুরি করার ঘটনা এবারই প্রথম। 

৬ উইকেটে ৪৩৬ রান নিয়ে চতুর্থ দিনের চা-বিরতির পর আর বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি মুশফিকুরের ইনিংস। বিরতির পর খেলতে নেমে আর মাত্র এক রান যোগ করে লাসিথ এমবুলডেনিয়া বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন এই ব্যাটার। আউট হওয়ার আগে ২৮২ বলে ৪টি বাউন্ডারিতে ১০৫ রান করেন মুশফিকুর রহিম। 

টেস্ট   শ্রীলঙ্কা   মুশফিকুর রহিম  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লিড নিলো বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০২:০৩ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লিড নিলো বাংলাদেশ

দুর্দান্ত শুরুর পর সেঞ্চুরি, তবে পানি শূন্যতার কারণে হাতের পেশিতে টান লাগায় খেলার মাঝেই বিরতিতে যান তামিম ইকবাল। তামিমের বিরতিতে মাঠে নামেন লিটন কুমার দাস। বাংলাদেশ দলের গত এক বছরের সবচেয়ে ধারাবাহিক ব্যাটার লিটনকে নিয়ে  মুশফিক বাংলাদেশ দলকে শক্ত ভিতে দাঁড় করান। লিটন ৮৮ রানে সাজ ঘরে ফিরে গেলেও ৪ রানে লিড তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। 

চতুর্থ দিনের খেলায় দ্বিতীয় সেশন পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮৩ রান। শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রানের বিপরীতে ৪ রানের লিড নিয়ে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৪০১ রান। 

বর্তমানে ক্রিজে থাকা মুশফিকুর রহিম ২৩২ বলে অপরাজিত আছেন ৮৯ রানে। তিনি বাউন্ডারি মেরেছেন মাত্র ৩টি। সাথে মুশফিককে ২৫ বলে ১১ রান করে যোগ্য সঙ্গ দিচ্ছেন সাকিব আল হাসান।  

বৃষ্টির কারণে আউটফিল্ড কিছুটা ভেজা থাকায় আধা ঘণ্টা পরে খেলা শুরু হলে তৃতীয় দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান দারুণভাবেই মোকাবিলা করেছেন শ্রীলঙ্কান বোলারদের। এই সময়ে বাংলাদেশের প্রথম কোন ব্যাটার হয়ে  ৫০০০ রানের এলিট ক্লাবে প্রবেশ করেন মুশফিকুর রহিম। দুই ব্যাটসম্যানই শতকের স্বপ্ন দেখলেও প্রথম সেশনের বিরতির পর কাসুন রাজিথার বলে সাজঘরে ফিরতে হয় লিটনকে। লিটন ফিরে যাওয়ার পরেই মাঠে নামেন বিশ্রামে যাওয়া তামিম ইকবাল। কিন্তু রাজিথার পরের বলেই সরাসরি বোল্ড আউট হয়ে ফিরে যান সেঞ্চুরি করা এই ব্যাটার। 

চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিন বাংলাদেশ শেষ করে ৩ উইকেটে ৩১৮ রানে। মুশফিক অপরাজিত ছিলেন ১৩৪ বলে ৫৩ করে। লিটনের সংগ্রহ ছিলো ১১৪ বলে ৫৪। ৭৯ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করা বাংলাদেশ হাতে ছিলো ৭ উইকেট।  

চতুর্থ দিন আউটের হওয়া লিটন দাসের সংগ্রহ ১৮৯ বলে, ১০ বাউন্ডারিতে ৮৮ রানে। তামিম ইকবাল করেন ২১৮ বল খেলে ১৫ বাউন্ডারিতে ১৩৩ রান। 

ক্রিকেট   টেস্ট   শ্রীলঙ্কা   বাংলাদেশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে পাঁচ হাজার রানের ক্লাবে মুশফিক

প্রকাশ: ১২:২৫ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে পাঁচ হাজার রানের ক্লাবে মুশফিক

এক অনন্য কীর্তি গড়লেন মুশফিকুর রহিম। প্রথম বাংলাদেশি টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে পাঁচ হাজার রানের এলিট ক্লাবে যোগ দিলেন এই বাংলাদেশি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিনে এই কীর্তি গড়েন মুশফিক। 

চলমান এই টেস্ট শুরুর আগে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রানের মালিক ছিলেন 'মিস্টার ডিপেন্ডেবল' খ্যাত এই ব্যাটসম্যান। তবে টাইগারদের হয়ে প্রথম ইনিংসে ওপেনিংয়ে নেমে ১৩৩ রানের ঝলমলে এক ইনিংস খেলে মুশফিককে টপকে শীর্ষে উঠে যান তামিম ইকবাল। 

ইনিংসের ১২৩তম ওভারে লঙ্কান পেসার অসিথা ফার্নান্দোর বলে উইকেটের পিছনে খেলে দৌড়ে ২ রান নিয়ে এই মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলেন মুশফিক। তার এই অর্জনে সতীর্থ, টিম ম্যানেজমেন্টের সদস্যরা করতালি দিয়ে সাধুবাদ জানিয়েছেন ড্রেসিংরুম থেকে। তামিম শারীরিক অসুস্থতার কারণে ‘রিটায়ার্ড হার্ট’ হয়ে বিশ্রামে গেলে বাঁহাতি ব্যাটসম্যানকে ছাপিয়ে আবার শীর্ষে ওঠেন মুশফিক। 

৪৯৩২ রান নিয়ে খেলতে নামা মুশফিক যখন ব্যক্তিগত রান ৬৮-তে পা দেন, তখনই নাম তোলেন আরেকটি রেকর্ডে। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে সাদা পোশাকে পাঁচ হাজারি ক্লাবে তিনি। এই অর্জনে তার সময় লেগেছে ১৪৯ ইনিংস।
এই দৌড়ে মুশফিকের পিছনেই অবশ্য ছুটছেন তামিম। ১২৬ ইনিংসে তার রান ৪৯৮১। ৪০২৯ রান নিয়ে তালিকার তিনে আছেন সাকিব আল হাসান।

মুশফিক   টেস্ট   ক্রিকেট  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

মুশফিক-লিটনে ভর করে লিডের পথে বাংলাদেশ

প্রকাশ: ১২:০০ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail মুশফিক-লিটনে ভর করে লিডের পথে বাংলাদেশ

দুর্দান্ত শুরুর পর সেঞ্চুরি, তবে পানি শূন্যতার কারণে হাতের পেশিতে টান লাগায় খেলার মাঝেই বিরতিতে যান তামিম ইকবাল। তামিমের বিরতিতে মাঠে নামেম লিটন কুমার দাস। বাংলাদেশ দলের গত এক বছরের সবচেয়ে ধারাবাহিক ব্যাটার লিটনকে নিয়ে  মুশফিকের শুরুটা এখন বাংলাদেশ দলকে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে লিডের আশা যোগাচ্ছে। 

চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিন বাংলাদেশ শেষ করে ৩ উইকেটে ৩১৮ রানে। মুশফিক অপরাজিত ছিলেন ১৩৪ বলে ৫৩ করে। লিটনের সংগ্রহ ছিলো ১১৪ বলে ৫৪। ৭৯ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করা বাংলাদেশর সংগ্রহ ৩ উইকেটেই ৩৬৩ রান। মুশফিক ও লিটন অপরাজিত আছেন ৭২ ও ৭৯ রানে। 

চতুর্থ দিনের খেলায় সর্বশেষ ১৭ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪৫ রান। শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রান থেকে আর মাত্র ৩৪ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ। 

ক্রিকেট   টেস্ট   শ্রীলঙ্কা   বাংলাদেশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

বেঁচে রইল লিভারপুলের চার শিরোপার স্বপ্ন

প্রকাশ: ০৯:০৫ এএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail বেঁচে রইল লিভারপুলের চার শিরোপার স্বপ্ন

এক মৌসুমে চারটি শিরোপা! এই অধরা স্বপ্ন আজো পূরণ করতে পারেনি কোন ইংলিশ ক্লাব। তবে এবার সেই স্বপ্ন পূরণ বেশ আঁটসাঁট বেধেই নেমেছে লিভারপুল। আর সেই স্বপ্ন পূরণে গতকালে ম্যাচটি ছিলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। হিসেবটাও ছিলো সহজ- সাউদাম্পটনের বিপক্ষে জিততে হবে। আর তাতেই বেঁচে থাকবে লিভারপুলের প্রথম ইংলিশ ক্লাব হিসেবে এক মৌসুমে চারটি শিরোপা জয়ের স্বপ্ন। খেলার ভিতর যাই ঘটুক না কেনো ম্যাচটা কিন্তু শেষ মেশ ২-১ গোলে জিতে নেয় লিভারপুল শিবির। 

পয়েন্ট টেবিলের ১৫তম দল হলেও বেশ ভালো রকমের ভুগিয়েছে সাউদাম্পটন। ইয়ুর্গেন ক্লপের দলের জন্য হিসেবটা সহজ হলেও কাজটা ছিল বেশ কঠিন। আর খেলার মাঠেও লিভারপুলের বেশ ভালো পরীক্ষাও নিয়েছে পুচকে সাউদাম্পটন। তবে শেষ পর্যন্ত হাসিটা মলিন হয়নি ইয়ুর্গেন ক্লপের। 

অনেক দিন ধরেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা লড়াইয়ে ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে গায়ে গা ঘেঁষে এগোচ্ছে লিভারপুল। সিটি তাদের সর্বশেষ ম্যাচে ওয়েস্ট হামের মাঠ থেকে ড্র করে ফেরায় আজ সাউদাম্পটনের বিপক্ষে লড়াইটি লিভারপুলের জন্য হয়ে যায় অঘোষিত সেমিফাইনাল। জিতলে শিরোপা চতুষ্টয়ের স্বপ্ন বেঁচে থাকবে, হারলে নয়।

কাজটা যে সহজ নয় তা ম্যাচের ১২ মিনিটেই টের পায় লিভারপুল। মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের দুর্দান্ত এক পাস থেকে বাঁ প্রান্তে বল পেয়ে যান সাউদাম্পটনের নাথান রেডমন্ড। লিভারপুলের চার-পাঁচজন খেলোয়াড়ের মাঝ দিয়ে বাঁকানো এক শট নেন তিনি। দূরের পোস্ট দিয়ে সেই শট আলিসনকে ফাঁকি দিয়ে আশ্রয় নেয় জালে। এগিয়ে যায় সাউদাম্পটন।

লিভারপুলের কোচ ক্লপ অবশ্য গোল নিয়ে ডাগআউটে আপত্তি করেছিলেন। তাঁর দাবি গোলটির বিল্ড আপে ফাউল করেছিলেন এক সাউদাম্পটন খেলোয়াড়। রেফারি ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সাহায্য নিয়েছিলেন, কিন্তু ক্লপের আবেদন ধোপে টেকেনি।

৭ মিনিট পরই সাউদাম্পটনের জালে বল পাঠান ফিরমিনো। কিন্তু ফ্রি-কিক থেকে তাঁর নেওয়া হেড জালে জড়ালেও অফসাইডের বাঁশি বাজান রেফারি।

তবে গোল শোধের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি লিভারপুলকে। ২৭ মিনিটে দিয়োগা জোতার পাস ধরে ডানপ্রান্ত দিয়ে বক্সের মধ্যে ঢুকে যান তাকুমি মিনামিনো। জাপনি খেলোয়াড় অসাধারণ এক শটে লিভারপুলকে সমতায় ফেরান। গোলের পর অবশ্য উদ্্যাপন করেননি তিনি। কারণ কিছুদিন আগেও যে সাউদাম্পটনে ধারে খেলে এসেছেন মিনামিনো। 

প্রথমার্ধে এগিয়ে যাওয়ার আরও সুযোগ পায় লিভারপুল। কিন্তু কখনো রবার্তো ফিরমিনো, কখনো আবার জোতার ভুলের কারণে আর এগিয়ে যাওয়া হয়নি তাদের। সুযোগ পেয়েছিল সাউদাম্পটনও। তবে লিভারপুলের রক্ষণ আর গোল পোস্টের নিচে আলিসনের দৃঢ়তার কারণে এগিয়ে যেতে পারেনি তারা। 

অবশেষে ৬৭ মিনিটে লিভারপুলের সমর্থকদের আনন্দে ভাসার উপলক্ষ এনে দেন জােয়েল মাতিপ। ম্যাচে লিভারপুলের পাওয়া অষ্টম কর্নার কিকটি নেন কনস্টানটিনোস সিমিকাস। সেই কর্নার থেকে হেডে লিভারপুলের জয়সূচক গোলটি করেন মাতিপ। 

এই জয়ের পর ৩৭ ম্যাচে লিভারপুলের পয়েন্ট ৮৯। সমান ম্যাচে শীর্ষে থাকা ম্যান সিটির পয়েন্ট ৯০। লিগের শেষ ম্যাচটি তাই দুই দলের জন্যই 'ফাইনাল'। সিটি আগামী রোববার মুখোমুখি হবে লিভারপুলের সাবেক মিডফিল্ডার স্টিভেন জেরার্ডের দল অ্যাস্টন ভিলার। এই ম্যাচে সিটি যদি পয়েন্ট হারায় আর লিভারপুল নিজেদের মাঠে উলভসকে হারাতে পারে তাহলেই শিরোপা জিতবে ক্লপের দল। লিগ কাপ, এফএ কাপ, লিগ-চার শিরোপার তিনটি জেতা হয়ে যাবে লিভারপুলের। শিরোপা চতুষ্টয় জিততে এরপর শুধু বাকি থাকবে চ্যাম্পিয়নস লিগ। আগামী ২৮ মে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে তারা।

লিভারপুল   ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন