ইনসাইড গ্রাউন্ড

আরেকটি মাইলফলক স্পর্শ করলেন সাকিব

প্রকাশ: ০৩:১২ পিএম, ২৯ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail আরেকটি মাইলফলক স্পর্শ করলেন সাকিব

আরেকটি মাইলফলক স্পর্শ করলেন বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে প্রথম অধিনায়ক হিসেবে বল হাতে দেড়শ উইকেট শিকারের রেকর্ড গড়লেন তিনি। এই তালিকায় অনেক আগে থেকে অন্যান্য অধিনায়কদের চেয়ে যোজন যোজন এগিয়ে আছেন সাকিব।

খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে আগে ব্যাটিং করে ১৪১ রান সংগ্রহ করে সাকিবের ফরচুন বরিশাল। বোলিং করতে নেমে প্রথম ওভারেই দুইটি উইকেট পান বরিশালের মুজিব উর রহমান। ইনিংসের সপ্তম ওভারে বোলিং করতে আসেন সাকিব। ছক্কা মেরে তাকে স্বাগত জানান শেখ মেহেদী হাসান। তবে দ্রুতই প্রতিশোধ নেন সাকিব। ওই ওভারের মেহেদী স্টাম্পিং আউট হন এবং সাকিব টি-টোয়েন্টিতে অধিনায়ক হিসেবে পান দেড়শতম উইকেট।

বিশ্ব ক্রিকেটে প্রথম অধিনায়ক হিসেবে দেড়শ উইকেট শিকারের রেকর্ড গড়লেন সাকিব। অর্থাৎ এই বাংলাদেশি ক্রিকেটারের হাত ধরেই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কোনো অধিনায়ক দেড়শ উইকেটের ক্লাব খুললেন। অনেক আগে থেকেই এই তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছিলেন তিনি।

এই তালিকার দ্বিতীয়স্থানটিও বাংলাদেশি ক্রিকেটারের দখলে। ১১৪ উইকেট নিয়ে সাকিবের পরই আছেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। ১১২টি উইকেট নিয়ে মাশরাফির কাঁধে নিঃশ্বাস ফেলে তৃতীয় স্থান দখল করেছেন ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার ডোয়াইন ব্রাভো।

চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে আছেন যথাক্রমে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। লেগ স্পিনার আফ্রিদির শিকার ৮৮টি উইকেট। পেসার স্যামির দখলে আছে ৮৬টি উইকেট।

প্রসঙ্গত, গত ম্যাচেই বল হাতে আরও একটি রেকর্ড গড়েছিলেন সাকিব। প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ৪০০ উইকেটের এলিট ক্লাবে প্রবেশ করেছেন তিনি।

একনজরে টি-টোয়েন্টিতে অধিনায়ক হিসেবে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি :

১. সাকিব আল হাসান- ১৫০ উইকেট
২. মাশরাফি বিন মুর্তজা- ১১৪ উইকেট
৩. ডোয়াইন ব্রাভো- ১১২ উইকেট
৪. শহিদ আফ্রিদি- ৮৮ উইকেট
৫. ড্যারেন স্যামি- ৮৬ উইকেট।

সাকিব  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লিড নিলো বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০২:০৩ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লিড নিলো বাংলাদেশ

দুর্দান্ত শুরুর পর সেঞ্চুরি, তবে পানি শূন্যতার কারণে হাতের পেশিতে টান লাগায় খেলার মাঝেই বিরতিতে যান তামিম ইকবাল। তামিমের বিরতিতে মাঠে নামেন লিটন কুমার দাস। বাংলাদেশ দলের গত এক বছরের সবচেয়ে ধারাবাহিক ব্যাটার লিটনকে নিয়ে  মুশফিক বাংলাদেশ দলকে শক্ত ভিতে দাঁড় করান। লিটন ৮৮ রানে সাজ ঘরে ফিরে গেলেও ৪ রানে লিড তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। 

চতুর্থ দিনের খেলায় দ্বিতীয় সেশন পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮৩ রান। শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রানের বিপরীতে ৪ রানের লিড নিয়ে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৪০১ রান। 

বর্তমানে ক্রিজে থাকা মুশফিকুর রহিম ২৩২ বলে অপরাজিত আছেন ৮৯ রানে। তিনি বাউন্ডারি মেরেছেন মাত্র ৩টি। সাথে মুশফিককে ২৫ বলে ১১ রান করে যোগ্য সঙ্গ দিচ্ছেন সাকিব আল হাসান।  

বৃষ্টির কারণে আউটফিল্ড কিছুটা ভেজা থাকায় আধা ঘণ্টা পরে খেলা শুরু হলে তৃতীয় দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান দারুণভাবেই মোকাবিলা করেছেন শ্রীলঙ্কান বোলারদের। এই সময়ে বাংলাদেশের প্রথম কোন ব্যাটার হয়ে  ৫০০০ রানের এলিট ক্লাবে প্রবেশ করেন মুশফিকুর রহিম। দুই ব্যাটসম্যানই শতকের স্বপ্ন দেখলেও প্রথম সেশনের বিরতির পর কাসুন রাজিথার বলে সাজঘরে ফিরতে হয় লিটনকে। লিটন ফিরে যাওয়ার পরেই মাঠে নামেন বিশ্রামে যাওয়া তামিম ইকবাল। কিন্তু রাজিথার পরের বলেই সরাসরি বোল্ড আউট হয়ে ফিরে যান সেঞ্চুরি করা এই ব্যাটার। 

চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিন বাংলাদেশ শেষ করে ৩ উইকেটে ৩১৮ রানে। মুশফিক অপরাজিত ছিলেন ১৩৪ বলে ৫৩ করে। লিটনের সংগ্রহ ছিলো ১১৪ বলে ৫৪। ৭৯ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করা বাংলাদেশ হাতে ছিলো ৭ উইকেট।  

চতুর্থ দিন আউটের হওয়া লিটন দাসের সংগ্রহ ১৮৯ বলে, ১০ বাউন্ডারিতে ৮৮ রানে। তামিম ইকবাল করেন ২১৮ বল খেলে ১৫ বাউন্ডারিতে ১৩৩ রান। 

ক্রিকেট   টেস্ট   শ্রীলঙ্কা   বাংলাদেশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে পাঁচ হাজার রানের ক্লাবে মুশফিক

প্রকাশ: ১২:২৫ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে পাঁচ হাজার রানের ক্লাবে মুশফিক

এক অনন্য কীর্তি গড়লেন মুশফিকুর রহিম। প্রথম বাংলাদেশি টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে পাঁচ হাজার রানের এলিট ক্লাবে যোগ দিলেন এই বাংলাদেশি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিনে এই কীর্তি গড়েন মুশফিক। 

চলমান এই টেস্ট শুরুর আগে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রানের মালিক ছিলেন 'মিস্টার ডিপেন্ডেবল' খ্যাত এই ব্যাটসম্যান। তবে টাইগারদের হয়ে প্রথম ইনিংসে ওপেনিংয়ে নেমে ১৩৩ রানের ঝলমলে এক ইনিংস খেলে মুশফিককে টপকে শীর্ষে উঠে যান তামিম ইকবাল। 

ইনিংসের ১২৩তম ওভারে লঙ্কান পেসার অসিথা ফার্নান্দোর বলে উইকেটের পিছনে খেলে দৌড়ে ২ রান নিয়ে এই মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলেন মুশফিক। তার এই অর্জনে সতীর্থ, টিম ম্যানেজমেন্টের সদস্যরা করতালি দিয়ে সাধুবাদ জানিয়েছেন ড্রেসিংরুম থেকে। তামিম শারীরিক অসুস্থতার কারণে ‘রিটায়ার্ড হার্ট’ হয়ে বিশ্রামে গেলে বাঁহাতি ব্যাটসম্যানকে ছাপিয়ে আবার শীর্ষে ওঠেন মুশফিক। 

৪৯৩২ রান নিয়ে খেলতে নামা মুশফিক যখন ব্যক্তিগত রান ৬৮-তে পা দেন, তখনই নাম তোলেন আরেকটি রেকর্ডে। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে সাদা পোশাকে পাঁচ হাজারি ক্লাবে তিনি। এই অর্জনে তার সময় লেগেছে ১৪৯ ইনিংস।
এই দৌড়ে মুশফিকের পিছনেই অবশ্য ছুটছেন তামিম। ১২৬ ইনিংসে তার রান ৪৯৮১। ৪০২৯ রান নিয়ে তালিকার তিনে আছেন সাকিব আল হাসান।

মুশফিক   টেস্ট   ক্রিকেট  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

মুশফিক-লিটনে ভর করে লিডের পথে বাংলাদেশ

প্রকাশ: ১২:০০ পিএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail মুশফিক-লিটনে ভর করে লিডের পথে বাংলাদেশ

দুর্দান্ত শুরুর পর সেঞ্চুরি, তবে পানি শূন্যতার কারণে হাতের পেশিতে টান লাগায় খেলার মাঝেই বিরতিতে যান তামিম ইকবাল। তামিমের বিরতিতে মাঠে নামেম লিটন কুমার দাস। বাংলাদেশ দলের গত এক বছরের সবচেয়ে ধারাবাহিক ব্যাটার লিটনকে নিয়ে  মুশফিকের শুরুটা এখন বাংলাদেশ দলকে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে লিডের আশা যোগাচ্ছে। 

চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিন বাংলাদেশ শেষ করে ৩ উইকেটে ৩১৮ রানে। মুশফিক অপরাজিত ছিলেন ১৩৪ বলে ৫৩ করে। লিটনের সংগ্রহ ছিলো ১১৪ বলে ৫৪। ৭৯ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করা বাংলাদেশর সংগ্রহ ৩ উইকেটেই ৩৬৩ রান। মুশফিক ও লিটন অপরাজিত আছেন ৭২ ও ৭৯ রানে। 

চতুর্থ দিনের খেলায় সর্বশেষ ১৭ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪৫ রান। শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রান থেকে আর মাত্র ৩৪ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ। 

ক্রিকেট   টেস্ট   শ্রীলঙ্কা   বাংলাদেশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

বেঁচে রইল লিভারপুলের চার শিরোপার স্বপ্ন

প্রকাশ: ০৯:০৫ এএম, ১৮ মে, ২০২২


Thumbnail বেঁচে রইল লিভারপুলের চার শিরোপার স্বপ্ন

এক মৌসুমে চারটি শিরোপা! এই অধরা স্বপ্ন আজো পূরণ করতে পারেনি কোন ইংলিশ ক্লাব। তবে এবার সেই স্বপ্ন পূরণ বেশ আঁটসাঁট বেধেই নেমেছে লিভারপুল। আর সেই স্বপ্ন পূরণে গতকালে ম্যাচটি ছিলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। হিসেবটাও ছিলো সহজ- সাউদাম্পটনের বিপক্ষে জিততে হবে। আর তাতেই বেঁচে থাকবে লিভারপুলের প্রথম ইংলিশ ক্লাব হিসেবে এক মৌসুমে চারটি শিরোপা জয়ের স্বপ্ন। খেলার ভিতর যাই ঘটুক না কেনো ম্যাচটা কিন্তু শেষ মেশ ২-১ গোলে জিতে নেয় লিভারপুল শিবির। 

পয়েন্ট টেবিলের ১৫তম দল হলেও বেশ ভালো রকমের ভুগিয়েছে সাউদাম্পটন। ইয়ুর্গেন ক্লপের দলের জন্য হিসেবটা সহজ হলেও কাজটা ছিল বেশ কঠিন। আর খেলার মাঠেও লিভারপুলের বেশ ভালো পরীক্ষাও নিয়েছে পুচকে সাউদাম্পটন। তবে শেষ পর্যন্ত হাসিটা মলিন হয়নি ইয়ুর্গেন ক্লপের। 

অনেক দিন ধরেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা লড়াইয়ে ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে গায়ে গা ঘেঁষে এগোচ্ছে লিভারপুল। সিটি তাদের সর্বশেষ ম্যাচে ওয়েস্ট হামের মাঠ থেকে ড্র করে ফেরায় আজ সাউদাম্পটনের বিপক্ষে লড়াইটি লিভারপুলের জন্য হয়ে যায় অঘোষিত সেমিফাইনাল। জিতলে শিরোপা চতুষ্টয়ের স্বপ্ন বেঁচে থাকবে, হারলে নয়।

কাজটা যে সহজ নয় তা ম্যাচের ১২ মিনিটেই টের পায় লিভারপুল। মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের দুর্দান্ত এক পাস থেকে বাঁ প্রান্তে বল পেয়ে যান সাউদাম্পটনের নাথান রেডমন্ড। লিভারপুলের চার-পাঁচজন খেলোয়াড়ের মাঝ দিয়ে বাঁকানো এক শট নেন তিনি। দূরের পোস্ট দিয়ে সেই শট আলিসনকে ফাঁকি দিয়ে আশ্রয় নেয় জালে। এগিয়ে যায় সাউদাম্পটন।

লিভারপুলের কোচ ক্লপ অবশ্য গোল নিয়ে ডাগআউটে আপত্তি করেছিলেন। তাঁর দাবি গোলটির বিল্ড আপে ফাউল করেছিলেন এক সাউদাম্পটন খেলোয়াড়। রেফারি ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সাহায্য নিয়েছিলেন, কিন্তু ক্লপের আবেদন ধোপে টেকেনি।

৭ মিনিট পরই সাউদাম্পটনের জালে বল পাঠান ফিরমিনো। কিন্তু ফ্রি-কিক থেকে তাঁর নেওয়া হেড জালে জড়ালেও অফসাইডের বাঁশি বাজান রেফারি।

তবে গোল শোধের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি লিভারপুলকে। ২৭ মিনিটে দিয়োগা জোতার পাস ধরে ডানপ্রান্ত দিয়ে বক্সের মধ্যে ঢুকে যান তাকুমি মিনামিনো। জাপনি খেলোয়াড় অসাধারণ এক শটে লিভারপুলকে সমতায় ফেরান। গোলের পর অবশ্য উদ্্যাপন করেননি তিনি। কারণ কিছুদিন আগেও যে সাউদাম্পটনে ধারে খেলে এসেছেন মিনামিনো। 

প্রথমার্ধে এগিয়ে যাওয়ার আরও সুযোগ পায় লিভারপুল। কিন্তু কখনো রবার্তো ফিরমিনো, কখনো আবার জোতার ভুলের কারণে আর এগিয়ে যাওয়া হয়নি তাদের। সুযোগ পেয়েছিল সাউদাম্পটনও। তবে লিভারপুলের রক্ষণ আর গোল পোস্টের নিচে আলিসনের দৃঢ়তার কারণে এগিয়ে যেতে পারেনি তারা। 

অবশেষে ৬৭ মিনিটে লিভারপুলের সমর্থকদের আনন্দে ভাসার উপলক্ষ এনে দেন জােয়েল মাতিপ। ম্যাচে লিভারপুলের পাওয়া অষ্টম কর্নার কিকটি নেন কনস্টানটিনোস সিমিকাস। সেই কর্নার থেকে হেডে লিভারপুলের জয়সূচক গোলটি করেন মাতিপ। 

এই জয়ের পর ৩৭ ম্যাচে লিভারপুলের পয়েন্ট ৮৯। সমান ম্যাচে শীর্ষে থাকা ম্যান সিটির পয়েন্ট ৯০। লিগের শেষ ম্যাচটি তাই দুই দলের জন্যই 'ফাইনাল'। সিটি আগামী রোববার মুখোমুখি হবে লিভারপুলের সাবেক মিডফিল্ডার স্টিভেন জেরার্ডের দল অ্যাস্টন ভিলার। এই ম্যাচে সিটি যদি পয়েন্ট হারায় আর লিভারপুল নিজেদের মাঠে উলভসকে হারাতে পারে তাহলেই শিরোপা জিতবে ক্লপের দল। লিগ কাপ, এফএ কাপ, লিগ-চার শিরোপার তিনটি জেতা হয়ে যাবে লিভারপুলের। শিরোপা চতুষ্টয় জিততে এরপর শুধু বাকি থাকবে চ্যাম্পিয়নস লিগ। আগামী ২৮ মে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে তারা।

লিভারপুল   ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

মরণ-বাঁচনের ম্যাচে সানরাইজের বিশাল সংগ্রহ

প্রকাশ: ১০:১৬ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail মরণ-বাঁচনের ম্যাচে সানরাইজের বিশাল সংগ্রহ

ওয়াংখেড়ের মাঠে এবারের আইপিএল মৌসুমের ৬৫তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়ে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। সানরাইজ নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রান তোলে । দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান আসে রাহুল ত্রিপাঠির ব্যাট থেকে। তিনি মাত্র ৪৪ বলে ৯ চার আর ৩ ছয়ে ৭৬ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। ২০ রান দিয়ে তিন উইকেট নিয়ে মুম্বইয়ের সফলতম বোলার রমনদীপ সিং। ২০তম ওভারে মাত্র ৭ রান দিয়ে ইনিংস শেষ করেন বুমরাহ। ওভারের শেষ বলে ওয়াশিংটন সুন্দরকে ৯ রানে আউটও করেন তিনি। ফলে  নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৯৩ রান নিয়ে মাঠ ছাড়ে সানরাইজার্স। 

এদিকে মুম্বাইয়ের কাছে এ ম্যাচে হারানোর কিছুই নেই। তবে প্লে-অফের দৌড়ে টিকে থাকতে সানরাইজার্সের জন্য এটি মরণ-বাঁচন ম্যাচ। এই ম্যাচে হারলেই কার্যত লিগে প্রথম চারে শেষ করার আশা সমাপ্ত হয়ে যাবে সানরাইজার্সের। 


আইপিএল   সানরাইজ  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন