ইনসাইড গ্রাউন্ড

লিড তুলতেই নেই ৬ উইকেট, এখনও ৪২ রানে পিছিয়ে টাইগাররা!

প্রকাশ: ০৮:১২ এএম, ২৭ জুন, ২০২২


Thumbnail লিড তুলতেই নেই ৬ উইকেট, এখনও ৪২ রানে পিছিয়ে টাইগাররা!

সেন্ট লুসিয়া টেস্টে আবারও বিপর্যস্ত অবস্থায় টিম টাইগারর্স। অবস্থা এতটাই খারাপ যে, ক্যারিবিয়দের প্রথম ইনিংসে দেওয়া ১৭৪ রানের লিড তুলতেই দ্বিতীয় ইনিংসে দিন শেষে পড়ে গেছে ৬ উইকেট। কেই যেনো উইকেটে থিতু হতে পারছেন না। স্কোরবোর্ড দেখলে অবশ্য তাই অনুমান করা যায়।

তামিম ইকবাল ৪ (৮), মাহমুদুল হাসান জয় ১৩ (২১), নাজমুল শান্ত ৪২ (৯১), এনামুল বিজয় ৪ (৭), লিটন দাস ১৯ (৩২), সাকিব আল হাসান ১৬ (৩২), নুরুল হাসান সোহান ১৬(১৪)*, মেহেদী মিরাজ ০(১৩)*। সেন্ট লুসিয়া টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে, বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস সামারিটা এমনই।

এখনও ক্যারিবীয়দের থেকে ৪২ রানে পিছিয়ে আছে সাকিব আল হাসানের দল। এখন শেষ ভরসা হয়ে সলতেতে প্রদীপ জ্বেলে আছেন সোহান আর মিরাজ। তারপর আছেন তিন পেসার খালেদ আহমেদ, এবাদত হোসেন আর শরীফুল ইসলাম।

কেমার রোচ আর আলজারি জোসেফের তোপে দ্বিতীয় ইনিংসে এখন পর্যন্ত সাকিব আল হাসানের দল তুলতে পেরেছে ১৩২, হারিয়েছে ৬ উইকেট।
এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৪০৮ রানে অলআউট হয়েছে ক্যারিবিয়ানরা, বাংলাদেশের হয়ে খালেদ আহমেদ নিয়েছেন ৫ উইকেট।

অন্যদিকে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৩৪ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সবমিলিয়ে চতুর্থ দিনে কতোটা প্রতিরোধ গড়তে পারবে বাংলাদেশ এখন সেটাই দেখার অপেক্ষা।

টাইগার   ব্যাটিং ব্যর্থতা   সেন্ট লুসিয়া টেস্ট  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

অধিনায়ক হয়ে অনুশীলনে আরও মনোযোগী সাকিব

প্রকাশ: ০৯:৩৪ পিএম, ১৬ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail অধিনায়ক হয়ে অনুশীলনে আরও মনোযোগী সাকিব

আচরণ এবং কর্মকাণ্ডের সমালোচনা হয়; কিন্তু ক্রিকেটার সাকিবের মাঠের পারফরম্যান্স নিয়ে সামান্যতম তীর্যক কথাও বের হয়না কারও থেকে। মাঠের পারফরম্যান্সে বড় বড় সমালোচকদেরও চুপ করিয়ে দেন সাকিব।

বেখেয়ালি আচরন, শৃঙ্খলা বিরোধী কর্মকান্ড, ব্যবসায়ীক মনোভাব এবং মাঠ ও মাঠের বাইরে নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়ার পরও তাই পারফরমার সাকিব সব বিতর্কের উর্ধে। সময়ে-অসময়ে নানা বিতর্কে জড়িয়েও মাঠে ফিরে সেই চিরচেনা সাকিবের দেখাই মেলে।

ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্টে বল হাতে নিয়েই ৫ উইকেট শিকার করেন এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার। দেখিয়ে দিয়েছেন যে এই ফরম্যাটে তার বল এখনো আগের মতই কার্যকর। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজে সফরে গিয়ে কোন ম্যাচ জেতাতে না পারলেও টি-টোয়েন্টি সিরিজে দ্বিতীয় ম্যাচে ৫২ বলে ৬৮ রানের হার না মানা ইনিংস উপহার দিলেন। আবারও প্রমাণ দিলেন, তারব্যাট এখনো বিশ্বস্ত, নির্ভরযোগ্য।

যখনই দলের প্রয়োজন হয়েছে, ব্যাট ও বল হাতে প্রতিবার সাকিব ‘সাকিবে’র মতই জ্বলে উঠেছেন। প্রতিপক্ষর কাছ থেকে সর্বাধিক সমীহ আদায় করে নিয়েছেন।

ক্রিকেট অঙ্গনে এতটা সমাদৃত হলেও লক্ষ্যনীয় ছিল যে, মাঠের সাকিব সব সময় আগের রূপে ফিরলেও মাঠে নামার আগে কখনোই কঠোর অনুশীলন করেন না সাকিব। বাকিরা রুটিন করে অনুশীলনে নিয়ে সিরিয়াস, ঠিক তার বিপরীত সাকিব।

মুশফিকের মত হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করা, অনুশীলনে বাকিদের চেয়ে বেশি সময় দেয়া কিংবা সবার আগে প্র্যাকটিসে এসে সবার পরে ড্রেসিং রুমে ফেরার মত নজির নেই সাকিবের। এক কথায় যতটুকু না করলে নয় ঠিক ততটুকুই করতেন।

এবার যেনো এই অনুশীলন বিতর্কেও সবাইকে পিছে ফেলে দিবেন বলে প্রতিজ্ঞা করেছেন তিনি। দেখা দিয়েছে ব্যতিক্রমী সাকিবের। বেটউইনার ইস্যুতে অনেক জলঘোলার পর টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হয়ে একরকম বদলে গেছেন সাকিব। অনুশীলনে মনোযোগি হয়েছেন। আগের চেয়ে বেশি একাগ্রতা দেখা দিয়েছে। একা একা বাড়তি সময় নিয়ে নিজেকে তৈরির চেষ্টা করছেন।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফিরে ঠিক পরদিন সকাল সকাল শেরে বাংলায় ছুটে এসেছিলেন অনুশীলনে। মাঝখানে গতকাল ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে বন্ধ ছিল তার অনুশীলন। আজ মঙ্গলবার ঘড়ির কাটা সকাল ১০টা ছোঁয়ার একটু আগে আবার হোম অব ক্রিকেটে দেখা মিললো সাকিবের।

যেহেতু অফিসিয়াল প্র্যাকটিস ক্যাম্প নেই। তাই ব্যক্তিগত পর্যায়ের অনুশীলন করাই লক্ষ্য। সাকিবও তাই করলেন। এদিনও নিজের মত করে প্র্যাকটিসে এসেছিলেন। ব্যাটিং আর বোলিং করলেন একা একা। প্রায় ২ ঘণ্টা গভীর মনোযোগ দিয়ে ব্যাটিং-বোলিং প্র্যাকটিস করে নিরবে-নিভৃতে মাঠ ছাড়লেন যথারীতি কারো সঙ্গে কোন কথা না বলে।


এশিয়া কাপ   টি-টোয়েন্টি   ক্রিকেট   বাংলাদেশ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

করে দেখানোর জেদ থাকতে হবে, বললেন এবাদত

প্রকাশ: ০৮:৫৭ পিএম, ১৬ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail করে দেখানোর জেদ থাকতে হবে, বললেন এবাদত

লাল বলে দ্যুতি ছড়ানোর পর এবার সাদা বল হাতে চ্যালেঞ্জ এবাদত হোসেনের সামনে। জিম্বাবুয়ে সিরিজে ওয়ানডে অভিষেকে দ্যুতি ছড়ানোর পর প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টিতে ডাক পেলেন এই পেসার। ওয়ান ডে ক্যারিয়ারের শুরুটা ভালো হলেও আরও বড় চ্যালেঞ্জ সামনে রেখে দোহার বিমানে উঠবেন এই ক্রিকেটার। সাদা বলেন নতুন এই চ্যালেঞ্জে জয়ী হতে চেষ্টা নয়,বরং করে দেখানোর জেদ নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে যাবেন তিনি।

এশিয়া কাপের সর্বশেষ চার আসরের তিনটিতেই ফাইনাল খেলেছে টাইগাররা। এর মধ্যে ২০১৬ সালে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হওয়া আসরটিও আছে। যদিও সম্প্রতি সংক্ষিপ্ত এই ফরম্যাটের পরিসংখ্যান খুব একটা ভালো নেই লাল-সবুজের দলটির। সর্বশেষ ১৯ ম্যাচে জিতেছে কেবল চারটিতে।

এমন অবস্থায় আসন্ন টুর্নামেন্ট নিয়ে দল কতটা আশাবাদী? লক্ষ্যটাই বা কি থাকছে? আজ (১৬ আগস্ট) মিরপুরে এমন সব প্রশ্নের মুখোমুখি হন এবাদত। বলেন, ‘আমি মনে করি চেষ্টা এক জিনিস আর আমি করে দেখাবো আরেক জিনিস।'

'আমার জীবন থেকে আমি চেষ্টা করবো এই জিনিসটা শেষ, আমি করে দেখাবো, আমরা করবো ইন শা আল্লাহ। আমরা দল হিসেবে ভালো খেলছি না মানে এই না যে আমরা টি-টোয়েন্টি খেলতে পারি না। আমরা অদূর ভবিষ্যতে ভালো দল হয়ে দাঁড়াবো ইন শা আল্লাহ। আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

২৭ আগস্ট থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে পর্দা উঠবে এশিয়া কাপের। শারজাহ ও দুবাইতে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচগুলো। বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ ৩০ আগস্ট আফগানিস্তানের বিপক্ষে, বি গ্রুপে টাইগারদের সঙ্গী শ্রীলঙ্কাও। আরব আমিরাতের গরম কোনো সমস্যা হবে কীনা জানতে চাওয়া হয় এবাদতের কাছে।

অবশ্য এসব অজুহাতে একদমই যেতে চাননি টাইগার পেসার। তিনি বলেন, ‘গরম কোনো এক্সকিউজ না, আমাদের দেশেও অনেক গরম। গরম আমার কাছে তেমন কিছু মনে হচ্ছে না। উইকেটটা ওখানে ভালো থাকবে বুদ্ধি করে বল করতে হবে।’


এশিয়া কাপ   বাংলাদেশ   টি-২০  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

এশিয়া কাপের স্কোয়াড ঘোষণা করলো আফগানিস্তান

প্রকাশ: ০৮:১২ পিএম, ১৬ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail এশিয়া কাপের স্কোয়াড ঘোষণা করলো আফগানিস্তান

আসন্ন এশিয়া কাপকে সামনে রেখে ১৭ সদস্যের শক্তিশালী দল ঘোষণা করেছে আফগানিস্তান। ট-২০ সংস্করণে হতে যাওয়া এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে স্কোয়াডে ফিরিছেন অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার সামিউল্লাহ শেনওয়ারি। সেই সঙ্গে দলে ফিরেছেন চায়নাম্যান স্পিনার খ্যাত নূর হোসেন।

আফগানিস্তানের হয়ে শেনওয়ারি সর্বশেষ খেলেছেন ২০২০ সালের মার্চে। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ছিলো সেটি। নিয়মিত ক্রিকেটারদের মধ্যে রশিদ খান, হজরতউল্লাহ জাজাই, নাজিবউল্লাহ জাদরান ও মুজিব উর রহমানকে নিয়ে দল সাজিয়েছে আফগানরা।

স্কোয়াডে জায়গা হয়নি লেগ স্পিনার কাইস আহমেদের। তার সঙ্গে স্ট্যান্ডবাই হিসেবে রাখা হয়েছে নিজাত মাসুদ ও শরাফউদ্দিন আশরাফকে।

আফগানিস্তান বর্তমানে আয়ারল্যান্ড সফরে রয়েছে। প্রথম ম্যাচে হারের পর টানা দুই ম্যাচে জিতে আবারও সিরিজে ফিরে এসেছে আফগানরা। আগামী ১৭ আগস্ট সিরিজের শেষ ম্যাচে মাঠে নামবে দুই দল। এদিকে আগামী ২৭ আগস্ট শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের এশিয়া কাপের মিশন শুরু করবে আফগানরা।

আফগানিস্তান স্কোয়াড-

মোহাম্মদ নবি (অধিনায়ক), নাজিবুল্লাহ জাদরান, আফসার জাজাই, আসমতউল্লাহ ওমরজাই, ফরিদ আহমদ মালিক, ফজলহক ফারুকী, হাসমতউল্লাহ শাহিদি, হযরতউল্লাহ জাজাই, ইবরাহিম জাদরান, করিম জানাত, মুজিব উর রহমান, নাভিন উল হক, নূর আহমদ, রহমানুল্লাহ গুরবাজ, রশিদ খান ও সামিউল্লাহ শেনওয়ারি।

স্ট্যান্ডবাই-

নিজাত মাসুদ, কায়েস আহমেদ ও শরাফউদ্দিন আশরাফ।


এশিয়া কাপ   আফগানিস্তান   টি-২০  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

ভারত নিষিদ্ধ হওয়ায় কেন খুশি সাবেক অধিনায়ক ভূটিয়া

প্রকাশ: ০৭:৪৩ পিএম, ১৬ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail ভারত নিষিদ্ধ হওয়ায় কেন খুশি সাবেক অধিনায়ক ভূটিয়া

আন্তর্জাতিক ফুটবলে অনির্দিষ্টকালের জন্য ভারতকে নিষিদ্ধ করেছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। দেশটির ফুটবলীয় কার্যক্রমে তৃতীয় পক্ষের প্রভাব খাটানোর অভিযোগে এই শাস্তির মুখে পড়েছে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন (এআইএফএফ)। সেখানে এই খবরে কীনা খুশি দেশটির ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক, যিনি এক নামে পরিচিত ভাইচুং ভুটিয়া।

ভারতীয় ফুটবলের জন্য দুঃসময় হলেও হলেও একদিক দিয়ে দেশের ফুটূবলীয় কার্যক্রমের জন্য ভাল হয়েছে বলে মনে করছেন ভুটিয়া। ফুটবল প্রশাসনকে পুরোপুরি বদলে ফেলার এটাই বড় সুযোগ বলে মনে করছেন তিনি।

আজ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ভারতকে নিষেধাজ্ঞার আওতায় ফেলার কথজা জানিয়েছে ফিফা। নিষেধাজ্ঞার পর এই প্রসঙ্গে ভাইচুং ভুটিয়া বলছিলেন, ‘দেখুন, ভারতীয় ফুটবলকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নির্বাসিত করার ঘোষণা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। খুব কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফিফা। কিন্তু এটার একটা ভাল দিকও রয়েছে। আমরা ফুটবল প্রশাসনকে ফের ঠিক পথে ফেরানোর সুযোগ পেয়েছি। তার জন্য ফুটবল ফেডারেশন, সব রাজ্যের ফুটবল সংস্থাগুলোকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে হবে।’

এদিকে ফিফার এমন সিদ্ধান্তে হতবাক ভারতের সাবেক ফুটবলার সাবির আলি। বলছিলেন, ‘এটি ভারতীয় ফুটবলের জন্য খুব খারাপ। আশা করছি এই নির্বাসন তাড়াতাড়ি উঠে যাবে। ভারতে নারীদের অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবল বিশ্বকাপ হওয়ার কথা। আশা করছি সেই প্রতিযোগিতা হবে।’

নিষেধাজ্ঞার বিবৃতিতে সংস্থাটি বলেছে, ‘ব্যুরো অব ফিফা কাউন্সিল সর্বসম্মতভাবে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনকে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কারণ এই সংস্থায় তৃতীয় পক্ষের অনুচিত প্রভাবের ফলে ফিফা সনদের পরিস্কার লঙ্ঘন হয়েছে।’

মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও ফেডারেশনের সভাপতি পদে বসেছিলেন প্রফুল্ল প্যাটেল। এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা হয়। দেশের সর্বোচ্চ আদালত এই বছরের মে মাসে ফেডারেশনের কার্যকরী কমিটিকে ভেঙে দিয়েছে। ভারতীয় ফুটবলের দায়িত্ব তিন সদস্যের কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্সকে (সিওএ) করেছে। বলা হয়েছে যত দ্রুত সম্ভব ফেডারেশনের নির্বাচন করতে হবে। এমন সময়ে এসেছে এই নিষেধাজ্ঞা।

নিষেধাজ্ঞার ফলে ভারতের জাতীয় দল, ইন্ডিয়ান সুপার লিগ (আইএসএল) এবং আই-লিগ ক্লাবগুলো ফিফা অনুমোদিত কোনো প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে না।


ফুটবল   ভারত   নিষেধাজ্ঞা   ফিফা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

এশিয়া কাপে স্বরূপে ফিরবেন কোহলি, প্রত্যাশা সৌরভের

প্রকাশ: ০৭:০১ পিএম, ১৬ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail এশিয়া কাপে স্বরূপে ফিরবে, প্রত্যাশা সৌরভের

ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসে এক অনন্য নাম ভিরাট কোহলি। দলের সবচেয়ে আগ্রাসী খেলোয়াড় বলেন অথবা রান স্কোরিং মেশিন, দুই পরিচয়ে বোলার ও মাঠে প্রতিপক্ষের জন্য সমুহ আতঙ্ক তিনি। সম্প্রতি অফ ফর্মে থাকায় বিভিন্ন মহলে সমালোচিত হচ্ছেন তিনি। আসন্ন এশিয়া কাপে তিনি স্বরূপে ফিরবেন, এমনটাই প্রত্যাশা বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলির।  এজন্য তার সমর্থকদের ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক।

২০১৯ সালের নভেম্বরে বাংলাদেশের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করার পর থেকেই ছন্দ হারান কোহলি। এরপর আর একটা ম্যাচেও তিন অঙ্কের ম্যাজিকাল ফিগার ছোঁয়া হয়নি তার। সেঞ্চুরির কজরায় এখন তিনি ঘুরপাক খাচ্ছেন অফ-ফর্মের টর্নেডোতে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের পর এখন পর্যন্ত ৭৮টি আন্তর্জাতিক ইনিংসে তিন অঙ্ক ছোঁয়া হয়নি ভারতের সাবেক এই অধিনায়কের। এইতো কিছুদিন আগে ইংল্যান্ড সফরে পাঁচটি ম্যাচ খেলে মোটে ৭৬ রান করেছেন কোহলি।

কোহলি প্রসঙ্গে সৌরভ বলেন, 'তাকে অনুশীলন করতে দিন, ম্যাচ খেলতে দিন। সে অনেক বড় মাপের ক্রিকেটার এবং অনেক অনেক রান করেছে। আমি আশা করি, সে ফিরে আসবে। সে শুধু সেঞ্চুরিটাই করতে পারছে না। আমি বিশ্বাস করি, এশিয়া কাপেই সে তার ফর্ম খুঁজে পাবে।'

আর কিছুদিন পরই সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হবে এশিয়া কাপ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ে সফরে বিশ্রামে থেকে এশিয়ার এই মেগা ইভেন্টে ভারতীয় দলে ফিরবেন কোহলি।

২৮ আগস্ট চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে এশিয়া কাপে যাত্রা করবে ভারত। পাকিস্তান ছাড়াও ভারতের গ্রুপে থাকবে কোয়ালিফায়ার খেলে আসা আরেকটি দল। এশিয়া কাপের আরেকটি গ্রুপে খেলবে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা এবং আফগানিস্তান।


এশিয়া কাপ   ভারত   বিসিসিআই   কোহলি   সৌরভ গাঙ্গুলি  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন