ইনসাইড গ্রাউন্ড

প্রথমার্ধ্বে গোলের দেখা পায়নি উরুগুয়ে-দক্ষিণ কোরিয়া

প্রকাশ: ০৮:০৮ পিএম, ২৪ নভেম্বর, ২০২২


Thumbnail

কাতার বিশ্বকাপে 'এইচ' গ্রুপের ম্যাচে মাঠে নেমেছে উরুগুয়ে ও দক্ষিণ কোরিয়া। আল রাইয়ানের এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে দুই দলের ম্যাচটি প্রথমার্ধ্ব শেষ হয়েছে সমতায়।

ম্যাচের কিক অফের পরই আক্রমণে যায় কোরিয়া। দ্বিতীয় মিনিটেই আদায় করে নেয় কর্ণার। আক্রমণাত্নক খেলতে গিয়ে শুরু থেকে শরীরী  ফুটবলের প্রদর্শনী দেখায় দুই দল। তাদের শারিরিক ফুটবলের কারণে বেশ কয়েকবার ফাউলের বাঁশি বাজাতে হয় রেফারিকে। ম্যাচের ১৯ মিনিটে প্রথম সুযোগ তৈরি করে উরুগুয়ে। তবে ফেদেরিকো ভালভের্দে সেখান থেকে দলকে এগিয়ে দিতে পারেন নি। তিন মিনিট বাদে আক্রমণে যায় লুইস সুয়ারেজ। তিনিও ব্যর্থ হন গোল করতে। ফিরতি বল পেয়ে গোলের ভাল সম্ভাবনা ছিলো দারউইন নুনিয়েজের সামনেও। অগ্রজের দেখানো পথে হাঁটেন তিনিও।

উরুগুয়ের রক্ষণে নিয়মিতভাবে হানা দিতে থাকে দক্ষিন কোরিয়া। তবে জমাট রক্ষণের কারণে সুবিধা করে উঠতে পারছিলেন না সন হিউন মিনরা। তবে ম্যাচের ৩৪ মিনিটে লিড নেয়ার দারুণ সুযোগ এসেছিল দলটির সামনে। কর্ণার থেকে ফাঁকা জায়গায় বল পেয়েছিলেন হাং উই–জো। তবে এলেমোলো শটে পোস্টের অনেক উপর দিয়ে বল মাঠের বাইরে পাঠান তিনি। ৩৯ মিনিটে আরো একটি সুযোগ তৈরি করেন হং ইন–বিওম। তবে সেটিও জাল খুঁজে পায়নি উরুগুয়ের ডিফেন্ডারদের দৃঢ়তায়।

৪৩ মিনিটে প্রতিপক্ষের ফুটবলারদের পাশ কাটিয়ে পেনাল্টি বক্সে ঢুকে পড়েন লুইস সুয়ারেজ। তার দিকে এগিয়ে আসা বলটি নিয়ন্ত্রণে নিতে পারলে, নিশ্চিতভাবেই তা জাল খুঁজে পেত। তবে তিনি পা ছোয়ানোর আগেই কর্ণারের বিনিময়ে তা ক্লিয়ার করে দক্ষিণ কোরিয়া। সেই কর্ণার থেকে হেড করেন উরুগুয়ের অধিনায়ক দিয়েগো গডিন। ভাগ্যের নির্মম পরিহাস। গডিনের হেড সেকেন্ড পোষ্টে লেগে ফিরে আসে। এতে আরো একবার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ হারায় লাতিন আমেরিকার দলটি।

নির্ধারিত সময় শেষে গোলশূন্য অবস্থায় বিরতিতে যায় দুই দল।


কাতার বিশ্বকাপ   উরুগুয়ে   দক্ষিণ কোরিয়া   এডুকেশন সিটি স্টেডিয়াম  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

সমতায় ফিরলো ক্রোয়েশিয়া

প্রকাশ: ১০:২৭ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

প্রথমার্ধে মাইয়েদার গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে গিয়েছিল জাপান। তবে বিরতির পর ফিরে দ্রুতই সমতায় ফিরেছে গত আসরের রানার্সআপরা। ৫৩ মিনিটে লভরেনের ক্রস থেকে দারুণ এক হেডে বল জালে জড়ান ইভান পেরেসিচ। স্বস্তি ফেরে ক্রোয়েটদের ডাগআউটে।


কাতার বিশ্বকাপ   জাপান   ক্রোয়েশিয়া  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলে এগিয়ে বিরতিতে গেলো জাপান

প্রকাশ: ১০:০১ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

যে দলটি গ্রুপ পর্বে জার্মানি এবং স্পেনের মতো দলকে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠে এসেছে, সেই দলটি ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ফেবারিট থাকবে এটাই স্বাভাবিক। অবিশ্বাস্য হলেও সেই দলটির নাম জাপান।

এশিয়ার অন্যতম সেরা এই দলটি এবার যেন পুরোপরি ভিন্নরূপে ধরা দিয়েছে কাতার বিশ্বকাপে। সবচেয়ে বড় কথা, কোয়ার্টারে ফাইনালে ওঠার জন্য একধাপ এগিয়ে রয়েছে জাপান।

গতবারের ফাইনালিস্ট ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে সমানতালে খেলে প্রথমার্ধেই ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে জাপান। ৪৩ মিনিটের সময় দাইজেন মায়েদা গোলটি করেন।

বিস্তারিত আসছে...


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

আবারও চমক দিতে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে মাঠে নেমেছে জাপান

প্রকাশ: ০৯:০০ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

গ্রুপ পর্বের চমক দেখিয়ে নকআউট পর্বে জায়গা করে নিয়েছে জাপান। গ্রুপের দুই পরাশক্তি জার্মানি এবং স্পেনকে হারিয়েছে তারা। প্রথম ম্যাচে জার্মানিকে ২-১ গোলে হারিয়েছিলো। পরের ম্যাচেই তারা হেরে যায় ক্রোয়েশিয়ার কাছে। শেষ ম্যাচে স্পেনকে হারয়ে দেয় ২-১ গোলের ব্যবধানে।

গ্রুপের সেরা হয়েই দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠে জাপান। অন্যদিকে ‘এফ’ গ্রুপে বেলজিয়াম এবং কানাডাকে বিদায় করলেও মরক্কোর সঙ্গে পেরে ওঠেনি গত আসরের চ্যাম্পিয়নরা। মরক্কো হয়েছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন এবং ক্রোয়েশিা হলো রানারআপ।

নির্ধারিত সূচি হিসেবে দ্বিতীয় রাউন্ডে মুখোমুখি হলো এশিয়ার অন্যতম প্রতিনিধি জাপান এবং ইউরোপের ক্রোয়েশিয়া। কেমন হবে আজকের এই ম্যাচটি? নকআউট যেহেতু, ক্রোয়েশিয়া মরণপণ চেষ্টা করবে জাপানকে গতিতে পেছনে ফেলতে। অন্যদিকে জাপান গ্রুপ পর্বে যেভাবে খেলেছে, তাতে তাদেরকে পেছনে রাখার কোনো সুযোগনেই।

দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে দুই দল মুখোমুখি হওয়ার আগে দেখে নিন তাদের একাদশ-

জাপান একাদশ: সুইচি গোন্ডা, মায়া ইয়োশিদা, সোগো তানিগুচি, তাকেহিরো তোমিয়াসু, হিদেমাসা মোরিতা, ওয়াতারু এন্ডো, ইয়োতো নাগাতোমো, জুনিয়া ইতো, দাইজেন মায়েদা, দাইচি কামাদা, রিতসু দোয়ান।

ক্রোয়েশিয়া একাদশ: ডোমিনিক লিভাকোভিচ, জসকো জিভার্ডিওল, ডেজান লোভরেন, বোরনা বারিসিচ, জোসিপ জুরানোভিচ, মার্সেলো ব্রোজোভিচ, মাতেও কোভাসিচ, লুকা মদরিচ, ব্রুনো পেটকোভিচ, ইভান পেরিসিচ, আন্দ্রে ক্রামারিক।

কাতার বিশ্বকাপ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

কিংবদন্তি পেলেকে নিয়ে ছড়ানো তথ্য ভুল, জানালেন পেলের মেয়ে

প্রকাশ: ০৮:১১ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

ফুটবল মহাযজ্ঞের সবচেয়ে ব্যয়বহুল আসর বসেছে কাতারে। ফুটবলের জীবন্ত কিংবদন্তি প্রায় সবাইকে দেখা দিয়েছে গ্যালারিতে। কিন্তু ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম তারকা পেলেকে দেখা যায়নি কাতারে। বিশ্বকাপ শুরুর আগেই জানা গিয়েছে কাতার আসার ইচ্ছে থাকলেও শারীরিক অবস্থা ভ্রমণের উপযোগী না হওয়ায় ২০২২ বিশ্বকাপে মাঠের বাহিরে দেখা যায়নি ফুটবলের জীবন্ত কিংবদন্তি পেলেকে। ব্যাক্তিগত চিকিৎসকের পরামর্শে মূলত কাতার আসেননি পেলে। ১৯৪০ সালে জন্ম নেওয়া ব্রাজিল কিংবদন্তি পেলেকে নিয়ে শনিরবার গণমাধ্যম মাধ্যমে গুজব ছড়ানো হয়। গুজবে উল্লেখ করা হয় ব্রাজিলের হয়ে তিন বিশ্বকাপ জেতা পেলের চিরবিদায়। মুহূর্তে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে খবরটি।

পেলের  পরিবার থেকে অভিযোগ করা হয় পেলেকে নিয়ে গনমাধ্যমে আসা খবরটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। পেলের মেয়েদের একজন ফ্লাভিয়া নাসিমেন্তোর দাবি করেন তিনটি বিশ্বকাপ জয়ী ফুটবলার পেলেকে হাসপাতালেই নেওয়া হয়নি।

গতবছর থেকেই বৃহদান্ত্রে টিউমার ধরা পড়ে পেলের। বৃহদান্ত্র টিউমারের জন্য অস্ত্রোপাচারও করা হয় কিংবদন্তিকে। নিয়মিত চলে কেমোথেরাপি। সার্বক্ষণিক তত্বাবধায়নে রেখেছেন পেলের ব্যাক্তিগত চিকিৎসকরা। গত বুধবার  নিয়মিত চিকিৎসার অংশ হিসেবে সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করা হয় পেলেকে। এরপরেও ব্রাজিলের দৈনিক পত্রিকায় চাপা হয় ক্যান্সারের চিকিৎসায় কেমোথেরাপিতে পেলের শরীর এখন আর সাড়া দিচ্ছে না, তাকে প্যালিয়েটিভ কেয়ার ইউনিটে নেওয়া হয়েছে। সাথে সাথে খবরটি নাড়িয়ে দেয় পুরো ক্রীড়াঙ্গনকে। পেলেকে নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে ভক্ত সমর্থকরা। গনমাধ্যমে আসা খবরটির পরেই  

গনমাধ্যমে আসা খবরটির পরেই ওইদিন রাতে হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হয়, শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণের চিকিৎসায় ভালো সাড়া দিচ্ছে পেলের শরীর এবং আপাতত স্থিতিশীল আছেন তিনি। তবে তার চিকিৎসকদের কেউ প্যালিয়েটিভ কেয়ারে রাখার তথ্য নিশ্চিত করেননি। ফলে গনমাধ্যমে আসা তথ্যটি ভুল প্রমাণিত হয়।

এবার পেলের মেয়ে নাসিমেন্তো গ্লোবো টিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বললেন, একটু বেশিই ভুল খবর ছড়ানো হয়েছে তার বাবার শারীরিক অবস্থা নিয়ে।

এটা একদমই ঠিক হয়নি। মানুষ বলছে যে, তিনি শেষ অবস্থায় আছেন, ওনাকে প্যালিয়েটিভ কেয়ারে রাখা হয়েছে। আমাদের বিশ্বাস করুন, তেমনটা ছিল না। পেলের মেয়ে নাসিমেন্তোর কথায় সত্যি হোক এমনটা চায় কোটি কোটি পেলে ভক্ত।

 


ব্রাজিল   পেলে   ফুটবল  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

নেইমার-সনদের ম্যাচের পর ভেঙে ফেলা হবে যে স্টেডিয়াম!

প্রকাশ: ০৭:৩৯ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

কাতারের দোহায় ৮টি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এবারের বিশ্বকাপ ফুটবলের ম্যাচগুলো। এদের একটি স্টেডিয়াম ৯৭৪। এই স্টেডিয়ামটি বানিয়ে অনেকটাই চমক দেখায় কাতার। কারণ পুরো স্টেডিয়ামটাই বানানো হয়েছে শিপিং কন্টেইনার দিয়ে। কাতারের আন্তর্জাতিক ডায়াল কোড ৯৭৪। সেই সমান সংখ্যক শিপিং কন্টেইনার ব্যবহার করে বানানো হয়েছে স্টেডিয়ামটি। তবে বিশ্বকাপ শেষ হলেই এই স্টেডিয়ামটি ভেঙে ফেলা হবে সেটা আগেই জানিয়েছে আয়োজক দেশটি।

সে হিসেবেই আজই পর্দা নামছে স্টেডিয়াম ৯৭৪ এর। রাউন্ড অব সিক্সটিনে ব্রাজিল ও দক্ষিণ কোরিয়ার ম্যাচটি দিয়ে বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করবে এই ভিন্নধর্মী নান্দনিক ফুটবল স্টেডিয়াম। তবে এরপরই খুলে ফেলা হবে স্টেডিয়ামের অবকাঠামো। পুনঃব্যবহারযোগ্য এসব অবকাঠামো অন্য কোন স্থানে বা অন্য কোন দেশে যেখানে স্টেডিয়াম নির্মাণ সম্ভব নয়- তেমন কোথাও পাঠাতে চায় আয়োজক দেশটি। তবে এ বিষয়ে এখনো নির্দিষ্ট করে কিছু জানা যায় নি। আবার পুরো কাঠামো ভেঙে ফেলার পর সেগুলোকে ছোট ছোট মিনি স্টেডিয়ামে রূপান্তর করার পরিকল্পনাও রয়েছে স্বাগতিকদের।

স্টেডিয়ামটিতে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ৭টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্বকাপ শুরুর দুই দিন পর মেক্সিকো-পোল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে যাত্রা শুরু হয় স্টেডিয়াম ৯৭৪ এর। এরপর এই মাঠ দাপিয়ে বেড়িয়েছেন বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, পর্তুগালের মতো দলগুলো। আজ ব্রাজিল-দক্ষিণ কোরিয়ার ম্যাচ দিয়ে যাত্রা শেষ হবে এই স্টেডয়ামের। ফলে এখানে আয়োজিত ম্যাচের সংখ্যা দাড়াবে ৮। শেষবারের মতে সেখানে পা রাখবেন বিশ্বের সবচেয়ে তারকা ফুটবলাররা।


কাতার বিশ্বকাপ   স্টেডিয়াম ৯৭৪   রাউন্ড অব সিক্সটিন   শিপিং কন্টেইনার  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন