ইনসাইড গ্রাউন্ড

তামিমের জন্য চট্টগ্রামে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৯:০১ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১


Thumbnail

তরুণদের জন্য টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে নিজের স্থান ছেড়ে দিয়েছেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। অটোচয়েজ হয়ে একাদশে ঠাঁই পেতে চাননি। ক্রিকেটের এই খুদে সংস্করণে অনিয়মিত থাকায় বিশ্বকাপ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন।

নিজেকে নেপালে এভারেস্ট প্রিমিয়ার লিগের (ইপিএল) জন্য প্রস্তুত করছেন। 

কিন্তু বিষয়টি মোটেই মানতে পারছেন না তামিম ইকবালের জন্মভূমি চট্টগ্রামের ভক্ত-অনুরাগীরা। তারা চাইছেন যে কোনো উপায়ে তাদের ঘরের ছেলেকে বুঝিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ফেরানো হোক। 

এমন দাবি রেখে মানববন্ধনও করে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাইছেন তারা।

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলে তামিম ইকবালকে অন্তর্ভুক্তির দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে ‘ক্রিকেটপ্রেমী চট্টগ্রামবাসী’ নামে একটি সংগঠন।

মঙ্গলবার  চট্টগ্রামের কাজির দেউড়ী এলাকায় এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 

এসময় বক্তারা দাবি করেন, বাংলাদেশ ক্রিকেটের ওপেনিংয়ে তামিমের বিকল্প নেই। এজন্য তাকে যেন দ্রুত বিশ্বকাপ দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এই ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান। 

তারা সমস্বরে চিৎকার করে বলেন, আমরা তামিমকে ছাড়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মানি না, মানবো না। প্রয়োজনে আমরা আরও কর্মসূচি পালন করব।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া ব্যানারে লেখা ছিল, ‘চাটগাইয়া পোয়া নাই, মানিত না পারির।’আর ফেস্টুনে লেখা ছিল, ‘টি-টোয়েন্টি মঞ্চে তামিমকে চাই।’, ‘বিসিবি সিনিয়র ক্রিকেটারদের সম্মান দাও, চট্টগ্রাম খেলার মাঠ বাঁচাও।’

এ সংগঠনের সদস্যরা আশা প্রকাশ করেন, প্রধানমন্ত্রী, বিসিবি সভাপতি, কোচ, সিনিয়র ক্রিকেটারদের নিয়ে তামিমের সঙ্গে বসে তাকে বিশ্বকাপের দলে ফিরিয়ে আনবেন। তাদের দাবি, বিসিবির সঙ্গে সিনিয়র ক্রিকেটারদের মনোমালিন্য, রাগ অভিমান চলছে। যে কারণে তামিম সরে দাঁড়িয়েছেন। 



মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

যুব বিশ্বকাপ: শ্রীলংকার বিপক্ষে ব্যাটিং বিপর্যয়ে আফগানরা

প্রকাশ: ০৮:১৮ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে আজকে সুপার লিগ কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচে অ্যান্টিগায় মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা এবং আফগানিস্তান। ম্যাচে টসে জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ব্যাট করতে নেমেই বিপর্যয়ে পড়েছে আফগানিস্তান। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১২ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ২৪ রান সংগ্রহ করেছে তারা

যুব বিশ্বকাপ ২০২২  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

পুরনো ছন্দে ফিরতে মরিয়া মুশফিক

প্রকাশ: ০৬:৪৪ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

দীর্ঘদিন ধরেই রানখরায় ভুগছেন মুশফিকুর রহিম। বিপিএলেও ব্যাটে রান নেই খুলনা টাইগার্সের অধিনায়কের। তাই চট্টগ্রামে ব্যাট হাতে রানে ফিরতে ও দলকে জয়ে ফেরাতে চান মুশফিক।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের হয়ে তৃতীয় সেরা রান স্কোরার ছিলেন মুশফিক। ঐ টুর্নামেন্টে বলার মতো স্কোর কেবল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই রয়েছে। ব্যাট হাতে ৫৭ রানের ইনিংসটি ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যক্তিগত সেরা ইনিংস। বিশ্বকাপে ব্যাটিং ব্যর্থতায় বেশ সমলোচিত হয়েছেন মুশফিক।

এমনকি বিপিএলেও প্রথম দুটি ম্যাচে রান পাননি তিনি। মিরপুরের মন্থর উইকেটে রান না পেলেও চট্টগ্রামে বড় রানের প্রত্যাশা করছেন খুলনা টাইগার্সের এই অধিনায়ক। দল যাতে লাভবান হয় ঐরকম ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলতে চান মুশফিক।

“অবশ্যই সবারই চেষ্টা থাকে ম্যাচে অবদান রাখার। আশা করছি তাড়াতাড়ি যেন বড় রান করতে পারি। রান করার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যাতে জয়ে ফিরতে পারে। টপ অর্ডারে যেহেতু খেলি, পরবর্তীতে সুযোগ আসলে অবশ্যই চেষ্টা করব যেন বড় রান করতে পারি এবং তাঁতে দল যেন লাভবান হয়। কাল থেকে এটাই আমার মূল লক্ষ্য।”

উল্লেখ্য, বিপিএলের দ্বিতীয় পর্ব খেলতে বর্তমানে চট্টগ্রামে রয়েছে খুলনা টাইগার্স। মিরপুরে মন্থর উইকেটে খেললেও চট্টগ্রামে ব্যাটিং-বান্ধব উইকেটে নিজের হারানো ছন্দ খুঁজে পেতে মরিয়া মুশফিক। এমনকি দুদিন আগে খুলনা টাইগার্সের ম্যানেজার নাফিস ইকবালও মুশফিকের ফর্মে ফেরা নিয়ে আশার কথা শুনিয়েছেন।

 

মুশফিক   বিপিএল  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

অভিমান নয়, দলের স্বার্থেই এই সিদ্ধান্ত তামিমের

প্রকাশ: ০৬:১৮ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

টি-টোয়েন্টি থেকে তামিম ইকবালের অবসরের গুঞ্জনে গত কিছু দিন ধরেই উত্তপ্ত ছিল দেশের ক্রিকেট অঙ্গন। বোর্ড কর্তারা দফায় দফায় তামিমের সাথে আলোচনা করেছেন। অবশেষে তামিম জানিয়েছেন আগামী ছয় মাস টি-টোয়েন্টি দলে থাকছেন না।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে তামিম জানান, আগামী ৬ মাস তিনি টি-টোয়েন্টি দল থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখছেন। তবে বিশ্বকাপের আগে যদি তাকে দলে প্রয়োজন পড়ে, তাহলে তিনি দলে ফেরার কথা পুনর্বিবেচনা করবেন।

তামিমের দাবি, কোনো মান-অভিমান নয়, দেশের ক্রিকেটের স্বার্থের কথা চিন্তা করেই টি-টোয়েন্টি দলে আপাতত না থাকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

তামিম বলেন, ‘আলোচনা হওয়ার পর বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য সেরা সিদ্ধান্তটা আমি নিয়েছি। মিডিয়াতে তো অনেক ধরনের কথা হয়, মান-অভিমান… আমি সবসময় একটা কথা বলি- আমি বাংলাদেশকে যেকোনো ফরম্যাটে প্রতিনিধিত্ব করতে পারি এরচেয়ে বড় কিছু আমার বা কোনো ক্রিকেটারের নেই। এখানে মান-অভিমান নেই। আমি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি তা শুধুই ক্রিকেটের জন্য।’

তামিমের অবসর ইস্যুতে গত কয়েকদিন দফায় দফায় আলোচনা করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস ও ছায়া দলের জন্য গঠিত বিভাগের চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ। তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তামিম বলেন, ‘জালাল ভাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ দিতে চাই। উনি আমার সাথে বিভিন্নভাবে কয়েকবার বসেছেন। কয়েকবার আমার ভাষ্য শুনেছেন। তাদের ভাষ্য আমি শুনেছি। সভাপতিকেও ধন্যবাদ দিতে চাই কারণ উনিও ২ দিন আগে আমার সাথে কথা বলেছেন, আজকেও কথা হয়েছে। কাজী ইনামও এই আলোচনায় ছিলেন।’







তামিম ইকবাল  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

ছয় মাস আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলবেন না তামিম

প্রকাশ: ০৫:২৭ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

অবশেষে সব আলোচনার অবসান ঘটালেন তামিম ইকবাল। আগামী ছয় মাস তিনি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। 

আজ (২৭ জানুয়ারি) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি।

তামিম ইকবাল টি-টোয়েন্টি খেলবেন কী খেলবেন না, এ নিয়ে গত কয়েকদিন বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছে বাংলাদেশের ক্রিকেটে। তামিমের সঙ্গে আলোচনা করছেন বিবিসি সভাপতি এবং অন্য কর্মকর্তারা।

অবশেষে আজ মিডিয়ার মুখোমুখি হয়েছেন তামিম। সেখানে তিনি বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে বোর্ডের অনেকের সঙ্গে, বিসিবি সভাপতি এবং ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির প্রধান জালাল ইউনুসের সঙ্গে মিটিং হয়েছে, কথাবার্তা হয়েছে। তারা চাচ্ছেন আমি টি-টোয়েন্টি কন্টিনিউ করি। অন্তত বিশ্বকাপ পর্যন্ত।’

‘তবে দুই পক্ষের কথা-বার্তা শেষে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আগামী ৬মাস টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলবো না। টেস্ট এবং ওয়ানডেতে পুরোপুরি মনযোগ থাকবে আমার। ৬ মাস ইন্টারন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি নিয়ে কিছুই ভাববো না।' 

৬ মাস পর কী হবে সেটাও জানিয়েছেন তামিম। তিনি বলেন, ‘৬ মাস পর টিম ম্যানেজমেন্ট মনে করলে, আমি যদি রেডি থাকি, তাহলে তখন তা পুনর্বিবেচনা করবো। তবে এই ছয় মাস আমি টি-টোয়েন্টি নিয়ে একদমই ভাবতে চাইনা।'

তামিমের অনুপস্থিতি দলে প্রভাব ফেলবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, 'আমার জায়গায় যারা খেলবে, ইয়াং ক্রিকেটাররা এত বেশি ভালো খেলবে যে, আমার হয়তো প্রয়োজন পড়বে না। আমাকে নিয়েই আলোচনাই হবেনা’ 

তামিম ইকবাল  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

আফগানিস্তান সিরিজের প্রস্তুতি বিপিএলেই সারতে চান সোহান

প্রকাশ: ০৪:৩৬ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পরপরই আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়বে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলবে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এই দুই সিরিজের প্রস্তুতি হিসেবে বিপিএলকেই আদর্শ মঞ্চ হিসেবে দেখছেন অনেকে। 

এর কারণও আছে। বিপিএল শেষে আফগান সিরিজের আগে ক্রিকেটাররা পৃথক প্রস্তুতির তেমন সময় পাবেন না। আবার সিরিজ দুটি টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে ফরম্যাটের বলে বিপিএল থেকে নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার সুযোগটাও পাচ্ছেন ক্রিকেটাররা।

জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটার ও ফরচুন বরিশালের ক্রিকেটার নুরুল হাসান সোহানও মনে করেন, বিপিএল হতে পারে আফগানিস্তান সিরিজের প্রস্তুতির মঞ্চ। তিনি বলেন, ‘বিপিএলে বাইরের অনেক খেলোয়াড় এসে আমাদের সাথে খেলছে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ের হাইপ ও ইন্টেন্সিটি বিপিএলে পাওয়া যায়। তাই অবশ্যই এক্ষেত্রে বিপিএলের গুরুত্ব আছে।’

‘এ বছর পুরোটাই জাতীয় দলের খেলা আছে, সাদা বা লাল বল যেটাই বলুন। বিপিএলের পর ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ। তাই বিপিএল থেকে আমরা আত্মবিশ্বাস নিয়ে যেতে পারি, তাহলে আফগানিস্তান সিরিজ আমাদের জন্য অনেক ভালো হবে।’

আফগানিস্তানের বোলিং ইউনিটের অন্যতম বড় ভরসা মুজিব উর রহমান। সেই মুজিব আবার বরিশালে সোহানের সতীর্থ। নেটে অনুশীলন থেকে মুজিবকে যতটা সম্ভব আত্মস্থ করে রাখতে চান সোহান।

তিনি বলেন, ‘অবশ্যই চাইব মুজিবকে যেন নেটে বেশি বেশি খেলা যায়। তাহলে আমাদের ব্যাটার যারা সিরিজে থাকবে, তাদের জন্য মুজিবকে মোকাবেলা করা সহজ হবে।’




সোহান   বিপিএল  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন