ইনসাইড গ্রাউন্ড

‘আমরা বাকি জীবন আপনাকে মিস করব’

প্রকাশ: ১২:০০ এএম, ২৫ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail

ঠিক এক বছর আগে এই দিনে স্তব্ধ হয়েছিল ফুটবল বিশ্ব। সর্বকালের সেরা ফুটবলারকে হারানোর শোক আজও বিমর্ষ করে দেয় ফুটবল ভক্তদের। ২০২০ সালের ২৫ নভেম্বর চলে গিয়েছিলেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা। ম্যারাডোনার মৃত্যু নিয়ে যদিও এখনও অনেক রহস্য রয়েছে। ঠিক কি কারণে, কিভাবে মারা গেলেন সেটাও অনেকটাই অস্পষ্ট। তাঁর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল। এ ছাড়াও নানারকম শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। মাদকাসক্ত হয়ে পড়ায় কিডনি, লিভার নিয়ে জটিলতায় ভুগছিলেন তিনি। তবে অনেককেই পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। এখনও তদন্ত চলমান তার মৃত্যু নিয়ে। আবার মৃত্যুর এক বছর পরও তার নারী কেলেঙ্কারির নানা দিক উঠে আসছে।

আর্জেন্টিনার ঘরোয়া ফুটবলে আজ ম্যাচ শুরুর আগে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হবে। মাঠে খেলোয়াড়েরা ‘১০’ সংখ্যার আদলে দাঁড়াবেন—ম্যারাডোনার বিখ্যাত ১০ নম্বর জার্সিকে সম্মান জানিয়ে। বুয়েনস এইরেসের যে বস্তিতে ম্যারাডোনা বেড়ে উঠেছেন সেখানেও বিশেষভাবে স্মরণ করা হবে কিংবদন্তিকে। শুধু আর্জেন্টিনা কেন, ইতালির নেপলস শহরও প্রস্তুত ম্যারাডোনার মৃত্যুর এক বছর পূর্তি স্মরণীয় করে রাখতে। সেখানকার ক্লাব নাপোলিকে বড় দলগুলোর কাতারে তুলে এনেছিলেন ম্যারাডোনা। তাঁর প্রতি নেপলসবাসীর ভালোবাসা সব সময়ই অতুলনীয়। এদিকে আর্জেন্টাইন ফুটবল লিগ এরই মধ্যে শ্রদ্ধা জানিয়েছে ম্যারাডোনাকে। তাঁর জীবন নিয়ে বানানো ভিডিওচিত্র বলা হয়, ‘আমরা বাকি জীবন আপনাকে মিস করব।’

আর্জেন্টাইনরা তাঁর মৃত্যুর শোক পারেনি। বুয়েনস এইরেসের রাস্তাঘাট থেকে টিভি—কোথায় নেই ম্যারাডোনা! তাঁর দেয়ালচিত্র, মূর্তির অভাব নেই। ৩০ অক্টোবর, ১৯৬০ সালে বুয়েনস এইরেস থেকে যাত্রা শুরু করেছিল ম্যারাডোনা নামক রূপকথাটি। গত বছরের এই দিনে সেটি বিরতি নিয়েছে বটে, তবে খুব দ্রুত থামবে বলে মনে হয় না। এমন রূপকথা এক বছর কেন, হাজার বছরেও যে থামার নয়। 

জীবদ্দশাতেই ম্যারাডোনা হয়ে উঠেছিলেন রূপকথার মহান এক চরিত্র। যিনি সব সময় হয়তো নায়ক নন, কিন্তু নায়কের চেয়েও বেশি কিছু। দেখতে তিনি হয়তো রক্তমাংসের সাধারণ মানুষই ছিলেন। তবে মানুষের মাঝে হয়তো একটু বেশিই মানুষ! বেঁচে থাকতেই তাই স্বর্গ-নরক দুটোই একসঙ্গে দেখে গেছেন। মৃত্যুর পরও কি নয়? ম্যারাডোনা আসলে কেমন, তা জানাতে গিয়ে তাঁর আত্মজীবনী ‘এল ডিয়েগো’র ভূমিকায় মার্সেলা মোরা যা লিখেছেন তা অনেকটা এ রকম—ঈশ্বর থেকে রাজনৈতিক কৌশলী, সন্ত থেকে মাদকসেবনকারী আর ভিলেন থেকে নির্যাতিত সবকিছুই যেন একবিন্দুতে মিলে যায়। ম্যারাডোনা এমনই। ভক্তরা যতই তাঁকে স্বর্গের দূত বানাতে চেয়েছেন, ম্যারাডোনা যেন ততই চেয়েছেন নিজেকে রক্তমাংসের একজন হিসেবে দেখাতে।

ম্যারাডোনার বিদায়ের এই এক ব্ছরে ফুটবল বিশ্বে অনেক কিছুই ঘটে গেছে। সবচেয়ে বড় যেটা, সেটা হচ্ছে আর্জেন্টিনা কোপা আমেরিকার শিরোপা জিতেছে। জীবদ্ধশায় এই একটি শিরোপার জন্য গ্যালারিতে কত যে গলা ফাটিয়েছেন ম্যারাডোনা! ১৯৮৬ সালে তার হাত ধরে বিশ্বকাপ, ১৯৯৩ সালে যে সর্বশেষ কোপা জিতেছিল আর্জেন্টাইনরা, এরপর তো শুধু খালি হাতেই ফিরতে হয়েছিল লা আলবিসেলেস্তেদের।

 

 



মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

মুশফিকের প্রশংসা করে যা বললেন ক্লুজনার

প্রকাশ: ১১:৫৫ পিএম, ১৯ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

২০১৯ সালে রাজশাহী কিংসের প্রধান কোচ হিসেবে বিপিএলে ছিলেন। তিন বছর পর আবারো এই টুর্নামেন্ট দিয়ে ফিরলেন বাংলাদেশে। খুলনা টাইগার্সের প্রধান কোচ হয়ে বাংলাদেশে ফিরে আপ্লুত আফগানিস্তানের সাবেক কোচ ল্যান্স ক্লুজনার। শিরোপা জিততেই এসেছেন বললেন এবং দলের তারকা ও অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে তিনি।

দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অলরাউন্ডার বুধবার অনুশীলন শেষে জানালেন তার বাংলাদেশ প্রীতির কথা, ‘বাংলাদেশে ফিরে আসাটা বিরাট সৌভাগ্যের ব্যাপার। সম্ভবত চার কিংবা পাঁচ বছর আমি বাংলাদেশে ছিলাম না, শেষবার বিপিএলে ছিলাম রাজশাহীর হয়ে। সবসময় আমার হৃদয়ের বিশেষ জায়গায় আছে বাংলাদেশ।’

দলে অভিজ্ঞ তারকা বলতে মুশফিকের সঙ্গে আছেন সৌম্য সরকার। বড় কোনোও বিদেশি ক্রিকেটারও নেই। থিসারা পেরেরা, সিকান্দার রাজারা আছেন। মুশফিকের দিকে বিশেষ নজর ক্লুজনারের, ‘আমি মুশফিকের সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে। আগে কখনো এই সুযোগ পাইনি। তবে সম্ভবত সে বাংলাদেশের সবচেয়ে স্মার্ট ও কঠিন ক্রিকেট মস্তিষ্কের খেলোয়াড়। তার মতো একজনের সঙ্গে কাজ করতে পারা আমার সৌভাগ্যের। আমি এই সম্পর্কের দিকে তাকিয়ে এবং আমি তাকে সমর্থন দিয়ে নিশ্চিত করতে চাই যে আগামী তিন সপ্তাহ শিরোপার জন্য লড়ব আমরা। আমি তার মস্তিষ্কের ব্যবহার পেতে চাই, কারণ আমার কাছে বাংলাদেশই সম্ভবত ক্রিকেট খেলার জন্য সবচেয়ে কঠিন জায়গা। এখানে বিদেশি দেশগুলো আসার পর আমরা সেটা দেখেছি। তাই স্থানীয় খেলোয়াড়দের কাছ থেকে সেরাটা বের করাতেই আমার মনোযোগ।’

ল্যান্স ক্লুজনার   মুশফিকুর রহিম  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

জোড়া শতকে ভারতকে হারালো দক্ষিণ আফ্রিকা

প্রকাশ: ১১:২৬ পিএম, ১৯ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ভারতকে ৩১ রানে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে শতক হাঁকান র‍্যাসি ফন ডার ডুসেন ও টেম্বা বাভুমা। প্রোটিয়াদের ২৯৬ রানের জবাবে ভারত থামে ২৬৫ রানে।

টসে হেরে ভারতকে নামতে হয়েছে ফিল্ডিংয়ে। তবে শুরুটা খারাপ হয়নি ভারতের। পঞ্চম ওভারে যশপ্রীত বুমরাহর কল্যাণে ইয়ানেমান মালানকে ফিরিয়ে শুরু। এরপর কুইন্টন ডি কক ও এইডেন মার্করামও ফেরেন ইনিংসের ১৮তম ওভারের আগেই।

ভারতের দুর্দশার শুরুটা সেখানেই। পরের ৩০ ওভার বোলিং করে যে ডাসেন-বাভুমার কাউকে ফেরাতে পারেননি ভারতীয় বোলাররা। দুজনের চতুর্থ উইকেট জুটিটা যখন ভাঙল, তখন নড়বড়ে শুরু সামলানো তো বটেই, দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোরবোর্ডে লড়াকু পুঁজিও যোগ করার কাজটা সেরে ফেলেছিলেন ডাসেন আর বাভুমা। সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছিলেন দুজনেই, চতুর্থ উইকেটে যোগ করা হয়ে গিয়েছিল ২০৪ রান।

১৪৩ বলে বাভুমা ১১০ রান করে ফেরেন ইনিংসের ৪৯তম ওভারে। আর ডাসেন শেষতক অপরাজিত থাকেন ৯৬ বলে ১২৯ করে। তাতে দক্ষিণ আফ্রিকা পায় ২৯৬ রানের লড়াকু এক পুঁজি।

জবাবে ভারতও শুরুটা ভালোই করেছিল। শুরু থেকেই রান তোলার গতির দিকে মন দিয়েছিলেন অধিনায়ক রাহুল আর শিখর ধাওয়ান। রাহুলের ফেরার পর ধাওয়ানের সঙ্গে জুটি গড়েন কোহলি। দুজনের জুটিতে ভারত এগোচ্ছিল জয়ের দিকেই। তবে ধাওয়ান বিদায় নেন দলীয় ১৩৮ রানে, কোহলি ফেরেন তার একটু পরেই। তার বিদায়ের পরও অবশ্য ভারতকে ম্যাচে রাখছিলেন শ্রেয়াশ আইয়ার ও ঋষভ পান্ত।

তবে আইয়ারের বিদায়ের পরই যেন এক ঝড়ে বিধ্বস্ত হয় ভারত। ৩ উইকেটে ১৮১ থেকে ১৯৯ তুলতেই হারিয়ে বসে আরও চার উইকেট। ম্যাচটা ভারত হেরেছে তখনই। এরপর শার্দুল ঠাকুরের ফিফটি কেবল ব্যবধানটাই কমিয়েছে হারের। শেষমেশ ভারত থামে ২৬৫ রানে। ভারত ম্যাচটা হারে ৩১ রানে। 

ভারত   দক্ষিণ আফ্রিকা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

যুব বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে টসে জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত আয়ারল্যান্ডের

প্রকাশ: ০৬:৪৩ পিএম, ১৯ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে আজকে গ্রুপ 'বি' এর ম্যাচে ত্রিনিদাদের ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত এবং আয়ারল্যান্ড। ম্যাচে টসে জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আয়ারল্যান্ড। 

অন্যদিকে গ্রুপ 'ডি' এর ম্যাচে কোনারি স্পোর্টস ক্লাবে মুখোমুখি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া এবং স্কটল্যান্ড। ম্যাচে টসে জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। 

যুব বিশ্বকাপ ২০২২  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

বর্ষসেরা ব্যাটিং পারফরম্যান্সের জন্য মনোনীত মুশফিক

প্রকাশ: ০৬:২৮ পিএম, ১৯ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

ইএসপিএন ক্রিকইনফো অন্যান্য সেক্টরের মত বর্ষসেরা ব্যাটিং পারফরম্যান্সের জন্যও পুরস্কার প্রদান করে থাকে। বর্ষসেরা ক্রিকেটার, বর্ষসেরা টেস্ট, ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটারের পুরস্কারের পাশাপাশি তিন ফরম্যাটেই সেরা ব্যাটিং এবং সেরা বোলিংয়ের জন্যও পুরস্কার দিয়ে থাকে তারা। সেরা ব্যাটিং পারফরম্যান্সের পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

গত বছর মে মাসে ঢাকায় তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে আসে শ্রীলঙ্কা। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেই লঙ্কানদের বিপক্ষে ১২৫ রানের বিধ্বংসী একটি ইনিংস খেলেন মুশফিক। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অন্যান্য ব্যাটাররা যখন একের পর এক ব্যর্থতার পরিচয় দেন, তখন এক পাশ আগলে রেখে ১২৫ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন মুশফিক।

তার এই ইনিংসের ওপর ভর করে বাংলাদেশ সংগ্রহ করে ২৪৬ রানের লড়াকু সংগ্রহ। যদিও বৃষ্টির কারণে লঙ্কানদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪০ ওভারে ২৪৫ রান। জবাবে লঙ্কানরা ৯ উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ১৪১ রান। বাংলাদেশ জয়লাভ করে ১০৩ রানের ব্যবধানে। মুশফিক হন ম্যাচ সেরা।

যে পরিস্থিতিতে তিনি ১২৫ রানের ইনিংস খেললেন, সেটাকেই বর্ষসেরা পারফরম্যান্সের জন্য মনোনয়ন দেয় ক্রিকইনফো।


মুশফিকুর রহিম  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

গিবসনের নতুন ঠিকানা ইয়র্কশায়ার

প্রকাশ: ০৫:৩৯ পিএম, ১৯ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

বাংলাদেশের সদ্য সাবেক পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন নতুন ক্যারিয়ার গড়লেন কাউন্টিতে। কাউন্টির আলোচিত দল ইয়র্কশায়ারে প্রধান কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন গিবসন। ৫২ বছর বয়সী এই সাবেক পেসার ইয়র্কশায়ারের ইতিহাসে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রধান কোচ হলেন।

চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশ দলের নিউজিল্যান্ড সফরের পর টাইগারদের কোচিং প্যানেল থেকে সরে দাঁড়ান গিবসন। গিবসন নিজেই জানান, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সাথে আর চুক্তি নবায়ন করতে চান না তিনি, খুঁজতে চান নতুন চাকরি।
 
পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) দল মুলতান সুলতান্স গিবসনকে বোলিং ও সহকারী কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়। তবে এই ভূমিকায় গিবসনকে দেখা যাবে অল্প কিছু দিন। ক্যারিবীয় এই কিংবদন্তি থিতু হবেন কাউন্টিতেই, তাও ৩ বছরের জন্য।

আজিম রফিকের করা বর্ণবাদের অভিযোগে গত মাসে চাকরি হারান ইয়র্কশায়ারের সর্বশেষ প্রধান কোচ অ্যান্ড্রু গল। ফাঁকা পড়ে থাকা পদে ইয়র্কশায়ার নিয়োগ দিয়েছে বাংলাদেশে দারুণ সাফল্য পাওয়া গিবসনকে।

নতুন চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে উচ্ছ্বসিত গিবসন বলেন, ‘আমি সম্মানিত বোধ করছি, একইসাথে অনেক রোমাঞ্চিত। ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে অন্যতম সম্মানজনক দায়িত্ব এটা, তাই আমি মেধাবী সব ক্রিকেটারের সাথে কাজ করতে মুখিয়ে আছি।’



ওটিস গিবসন  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন