ইনসাইড হেলথ

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আরও ২০ জন

প্রকাশ: ০৩:০৫ পিএম, ০২ জুন, ২০২২


Thumbnail ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আরও ২০ জন

দিনের পর দিন বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। আগের দিনের তুলনায় আজকে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। সারাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২০ জন। যা গতদিন ছিলো ৯ জন। বর্তমানে সারাদেশে সর্বমোট ৫৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার  (২ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে পাঠানো ডেঙ্গু বিষয়ক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে সারাদেশে মোট ২০ জন জন নতুন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।  এর মধ্যে ঢাকার হাসপাতালে ১৯ জন এবং ঢাকার বাইরে সারা দেশে নতুন একজন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন।  এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ৫২ জন রোগী ভর্তি রয়েছে এবং ঢাকার বাইরে একজন  ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।    

উল্লেখ্য, এবছর ১ জানুয়ারি থেকে ২ জুন পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা সর্বমোট ৩৮১ জন। একই সময়ে তাদের মধ্য থেকে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩২৮ জন রোগী। এবছরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এখনও কেউ মারা যায়নি।  

ডেঙ্গু   আক্রান্ত   হাসপাতাল   ভর্তি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকীতে বিএসএমএমইউ উপাচার্যের শ্রদ্ধা নিবেদন

প্রকাশ: ০৭:১৫ পিএম, ০৮ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকীতে বিএসএমএমইউ উপাচার্যের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য সহধর্মিণী, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ।

সোমবার (৮ আগস্ট) সকাল ৯টায় বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

এ সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. জাহিদ হোসেন, উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক ডা. একেএম মোশাররফ হোসেন, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমদ, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুর রহমান দুলাল, ফিজিক্যাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. মনিরুজ্জামান খান, সহকারী প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. ফারুক হোসেন, সহকারী প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক ডা. ইন্দ্রজিত কুমার কুন্ডু, হৃদরোগ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. রসুল আমিন, সার্জিক্যাল অনকোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. রাসেল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

কমেছে শনাক্তের হার, মৃত্যু বেড়ে ৩

প্রকাশ: ০৭:০৬ পিএম, ০৮ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail কমেছে শনাক্তের হার, মৃত্যু বেড়ে ৩

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে মোট মৃত্যু দাঁড়াল ২৯ হাজার ৩০৭ জনে। এ সময়ের মধ্যে ২৯৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ লাখ ৭ হাজার ৬৩১ জনে।

সোমবার (৮ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৬৩৮ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৪৮ হাজার ৬৬৫ জন।

২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৯৪১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ৫ হাজার ৯২৯টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৪ দশমিক ৯৯ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭০ শতাংশ।
 
২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। ২০২১ সালের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বাধিক ২৬৪ জন করে মারা যান।

শনাক্ত   মৃত্যু   করোনা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

মাঙ্কিপক্সে ভয় নয়, মেনে চলুন সতর্কতা

প্রকাশ: ০৮:২১ এএম, ০৮ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail মাঙ্কিপক্সে ভয় নয়, মেনে চলুন সতর্কতা

সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী প্রাদুর্ভাব ছড়াচ্ছে নতুন ভাইরাস মাঙ্কিপক্স। খুব দ্রুত সংক্রমিত হওয়া এই ভাইরাসে প্রতিনিয়তই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। মাঙ্কিপক্স আসলে নতুন রোগ নয়, ১৯৫৮ সালে ডেনমার্কে কোপেইনহেগেনের এক ল্যাবরেটরিতে প্রথম বানরকে দিয়ে রিসার্চ করতে গিয়ে বানরের মধ্যে ধরা পড়ে। সেই থেকেই এই রোগের নাম হয় মাঙ্কিপক্স।

মাঙ্কিপক্স আমাদের দেশের জন্য কতটা ঝুকিপূর্ণ এ বিষয় নিয়ে বাংলা ইনসাইডারের সাথে কথা হয় মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহর সাথে। তিনি বলেন, পৃথিবীর প্রায় ৭৮ টা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস। এমনকি আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও ছড়িয়ে পড়েছে। আক্রান্তের পাশাপাশি একজনের মৃত্যুর খবরও পাওয়া গেছে।

এই রোগটি প্রথম ছড়ায় মধ্য আফ্রিকা ও পশ্চিম আফ্রিকতে। তবে চলতি বছরের গত ২-৩ মাসে শুধু আফ্রিকা নয়, বিশ্বের অনেক দেশে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস। এমনকি আমেরিকার মত দেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। দেশটিতে কয়েক হাজার মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। তাই দেশটি জরুরি সতর্কতা জারি করেছে দেশটির সরকার। 

আমাদের দেশে এখনও পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার খবর এখনো পাওয়া যায়নি। তবে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও ছড়িয়ে পড়েছ। দেশটিতে আক্রান্তের পাশাপাশি মিলেছে একজন ব্যক্তির মৃত্যুর খবরও। যেহেতু পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে ছড়িয়ে পড়েছে তাই আমাদের ঝুঁকি তো একটা রয়েছেই। 

আমাদের ভয় হলো যেহেতু পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে তাই ঝুঁকি তো একটা আছেই। একটাই ঝুঁকি রয়েছে আর সেটা হলো আক্রান্ত দেশ থেকে যদি কেউ এই ভাইরাস বহন করে নিয়ে আসে তার মাধ্যমে ছড়ানোর ঝুঁকিটা রয়েছে। যদিও খুব বেশি ঝুঁকি মনে হয় না তারপরেও আমাদের সতর্ক থাকতে হবে সজাগ থাকতে হবে। বিশেষ করে যারাই দেশের বাইরে থেকে বর্ডার ক্রস করে জল পথ থেকে স্থল পথে আসবে  সেখানে একটা স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করে রাখতে হবে। কারণ এই রোগের লক্ষণ সাধারণত শরীর ব্যথা, নাকে পানি, হাচি, কাশি এইগুলাই। এছাড়াও শরীরে দেখা দিতে পারে পানি বসন্ত বা জল বসন্তের মত র‍্যাশ। যা খুব বেশি চুলকায়। তারপর আস্তে আস্তে প্রায় ২-৪ সপ্তাহের মধ্যে রোগী ভালো হয়ে যায়। তাই আমাদের সব থেকে বেশি জরুরি সতর্ক থাকা, সচেতন থাকা, বর্ডার এলাকায় স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করা। 

যদি কারো শরীরে এই রোগের লক্ষণ পাওয়া যায় তাহলে সরকারকে সতর্কতা জারি করে দেওয়া দরকার এবং আক্রান্ত রোগীকে সংক্রামক ব্যধি হাসপাতালে ভর্তি করা। আইসোলেশনে রাখা উচিত৷ প্রায় ২১ দিনের মত আলাদা করে রাখলে আস্তে আস্তে আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আরেকটি কথা হলো এটা কোনো স্পেসিফিক চিকিৎসা নয়, এটি একটি সিমটোমেটিক সাপোর্টিভ। যেমন জ্বর হলে আমরা প্রাথমিকভাবে নাপা, প্যারাসিটামল ইদ্যাদি খাই। 

যদিও এই টিকার কোনো মেডিসিন নেই। তবে ছোট বেলা যারা পক্স বা স্মল পক্সের টিকা দিয়েছে তাদের ক্ষেত্রে প্রায় ৮৫ ভাগ প্রোটেকশন দেয়।  তাদের ক্ষেত্রে সংক্রমণের সম্ভাবনা খুবই কম। তাই আমাদের সকলকেই এ বিষয়ে সচেতন ও সতর্কতা জরুরি।

মাঙ্কিপক্স   সতর্কতা   ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

ডেঙ্গুতে আরও ১ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ৮৭

প্রকাশ: ০৭:২৩ পিএম, ০৭ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail ডেঙ্গুতে আরও ১ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ৮৭

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও একজনের মৃত্যু। একই সময়ে নতুন করে আরও ৮৭ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। 

রোববার (৭ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো ডেঙ্গু বিষয়ক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

এতে বলা হয়, নতুন শনাক্ত ৮৭ জনের মধ্যে ঢাকার বাইরে ১৪ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। বর্তমানে সারা দেশে ৩৮৭ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ৩১৫ জন ও ঢাকার বাইরে ৭২ জন।

এ নিয়ে চলতি বছর দেশে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৩ হাজার ১৮৪ জন। এর মধ্যে ঢাকায় ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২ হাজার ৬৭৭ জন ও ঢাকার বাইরে ৫০৭ জন। পাশাপাশি চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ডেঙ্গু   হাসপাতাল   ভর্তি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

শনাক্ত আরও ২১৬, মৃত্যু শূন্য

প্রকাশ: ০৬:৫৬ পিএম, ০৭ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail শনাক্ত আরও ২১৬, মৃত্যু শূন্য

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যায়নি। ফলে মোট মৃত্যু ২৯ হাজার ৩০৪ অপরিবর্তিত থাকল। এ সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২১৬ জন। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ লাখ ৭ হাজার ৩৩৫ জনে।

রোববার (৭ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৭২০ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৪৮ হাজার ২৭ জন।

২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ২২৯টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ৪ হাজার ২৩৩টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৫ দশমিক ১০ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭১ শতাংশ।
 
২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। ২০২১ সালের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বাধিক ২৬৪ জন করে মারা যান।

শনাক্ত   করোনা   মৃত্যু  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন