ঢাকা, শনিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৮ , ৮ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

উ. কোরিয়ায় হঠাৎ পর্যটকদের ঢল

বিশ্বজুড়ে ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৮ মঙ্গলবার, ০২:৫২ পিএম
উ. কোরিয়ায় হঠাৎ পর্যটকদের ঢল

উত্তর কোরিয়াতে পর্যটকদের আগমন বেড়েছে। এর হারও চোখে পড়ার মতো। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কিম জং উনের সঙ্গে সাক্ষাতে রাজি হওয়ার পর থেকেই দেশটিতে দর্শনার্থীদের আগমন বাড়তে শুরু করে।

পিয়ং ইয়ংয়ে এখন বিভিন্ন দেশের শিল্পীরা আসছেন। তাঁরা সেখানে বিভিন্ন উৎসবে যোগ দিচ্ছেন। সেই সঙ্গে কূটনীতিকরাও উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে উষ্ণ সম্পর্ক গড়তে দেশটিতে যাচ্ছেন। উত্তর কোরিয়ার জাতীয় গণমাধ্যম এই সব কিছুই ফলাও করে প্রচার করছে।

আর এই সকল কিছুর পেছনে রয়েছে উত্তর কোরিয়া ও দেশটির প্রেসিডেন্ট কিম জং উনের সুনাম বৃদ্ধির প্রচেষ্টা। আর দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আসন্ন সম্মেলনের জন্য দেশটি বিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করছে।

চীন সবসময়য়ই উত্তর কোরিয়ার ব্যবসায়ীক সঙ্গী ছিল। এমনকি উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নানা বাণিজ্যিক অবরোধে চীন বিরোধিতা করেছে এবং দেশটির সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক অক্ষুণ্ণ রেখেছে। কিন্তু পিয়ং ইয়ং ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বাড়িয়ে দিলে চীনকে চিন্তিত দেখা গেছে। কিন্তু গত মাসে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন উত্তর কোরীয় নেতা। এরপর থেকেই চীনের দুশ্চিন্তা কমে গেছে।

এরই ধারাবাহিকতায় চীনের শিল্পীরা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সং তাওএর নেতৃত্বে উত্তর কোরিয়া গেছেন। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে গত রোববার কিম জং উনকে তাঁদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে দেখা যায়। ওই প্রতিবেদনে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের নতুন যুগের শুরু হয়েছে বলে জানানো হয়।
কিম জং উনের স্ত্রী রি সোল-জু এক অনুষ্ঠানে চীনের সং তাওকে অভিবাদন জানিয়েছেন। তাঁরা একসঙ্গে থিয়েটারে চীনের জাতীয় বেলে ‘গিসেলে’ দেখেছেন। এই প্রথম রি কে কিমকে ছাড়া একাকী দেখা গেল।

এপ্রিলের শুরুতে দক্ষিণ কোরিয়া পিয়ং ইয়ং এ প্রথমে সাংস্কৃতিক দল পাঠায়। এর মধ্যে কে-পপ ‘রেড ভেলভেট’ও ছিল। এর আগে ক গুজব ছড়িয়েছিল কিম এই রেড ভেলভেটের ভীষণ ভক্ত।
কিম বলেছেন, ‘আমি এখানে আসতে উৎসাহী ছিলাম। সেই সঙ্গে রেড ভেলভেটকে দেখারও ইচ্ছা ছিল। প্রাথমিক ভাবে পারফরমেন্সটি পরশু দেখার কথা ছিল। কিন্তু আজকেই শিডিউল পরিবর্তনে করে আজকেই এসেছি।’ এসময় তিনি দক্ষিণ করিয়াকে এমন উপহারের জন্য ধন্যবাদ জানান।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে বিদেশী দর্শনার্থীদের জন্য ইংরেজিতে অনুষ্ঠান প্রচার করছে। এই অনুষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর্শনার্থীদের ইংরেজিতে সাক্ষাতকারও প্রচারিত হচ্ছে।


বাংলা ইনসাইডার/ডিজি/জেডএ