ঢাকা, শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বসবাসযোগ্য বিশ্বসেরা ১০ শহর

বিশ্বজুড়ে ডেস্ক 
প্রকাশিত: ১৮ আগস্ট ২০১৮ শনিবার, ০৩:০১ পিএম
বসবাসযোগ্য বিশ্বসেরা ১০ শহর

‘দাও ফিরে সে অরণ্য, লও এ নগর’ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠকুরের ‘সভ্যতার প্রতি’ কবিতার একটি লাইন। নগর সভ্যতায় হাপিয়ে ওঠা বিশ্বকবি ফিরে চেয়েছেন অরণ্য। আমাদের অনেকেও এমনটাই চাওয়া। নগর মানের যেন বসবাস অযোগ্য। তবে অবাক করা বিষয় হলো পৃথিবীতে যেমন বসবাস অযোগ্য শহর আছে তেমনি আছে প্রকৃতি ও সভ্যতার মেলবন্ধনে স্বপ্নের মতো সাজানো শহর, যা মানুষ বসবাসের স্বর্গ বলে পরিচিত। সম্প্রতি ’দি ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট’ এর বার্ষিক জরিপে ২০১৮ সালে বসবাসের উপোযোগী সেরা শহরের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন শহরের জনগণের নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, জীবনধারার ওপর ভিত্তি করে প্রতি বছর এই তালিকা প্রকাশ করা হয়। আসুন তাহলে জেনে নেই বিশ্বে বসবাসযোগ্য সেরা ১০ শহর সম্পর্কে:

ভিয়েনা, অস্ট্রিয়া

বাসযোগ্য নগরীর মধ্যে তালিকার শীর্ষে রয়েছে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা। এর আগে তালিকার শীর্ষে ছিল মেলবোর্ন শহর। পশ্চিম ইউরোপের শহর ভিয়েনায় অপরাধ সংগঠনের হার কমিয়ে মেলবোর্নকে হটিয়ে শীর্ষে উঠে এসেছে।

মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া

গত সাত বছর ধরে একটানা শীর্ষস্থান দখল করে রাখা মেলবোর্নের স্থান এবার নেমে এসেছে দ্বিতীয়তে। ‘দি গ্লোবাল লিভেবিল্যাটি ইনডেক্স-২০১৮’ অনুযায়ী অস্ট্রেলিয়ার শহর মেলবোর্নের এবারের স্কোর ৯৮.৪, যেখানে ভিয়েনার স্কোর ৯৯.১।

ওসাকা, জাপান

এই তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে জাপানের ওসাকা শহর। চলতি বছর জাপানের পরিবহন ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতির জন্য জাপানের দুইটি প্রধান শহর সেরা ১০ এ অবস্থান করছে। গত বছর ওসাকা নগরীর অবস্থান ছিল ৬ নম্বরে।

ক্যালগারি, কানাডা

কানাডার তিনটি শহর রয়েছে বসবাসযোগ্য সেরা ১০ শহরের তালিকায়, এর মধ্যে ক্যালগারি শহরের অবস্থান চতুর্থ। চারদিকে জলে ঘেরা এই শহরটিতে জনগণের উন্নত জীবনযাত্রার জন্য এই শহরটি উত্তর আমেরিকায় বসবাসযোগ্য শহরগুলোর মধ্যে শীর্ষ স্থান অধিকার করেছে।

সিডনি, অস্ট্রেলিয়া

পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার আরেক শহর সিডনি। সিডনি শহরটি এই শহরটিতে জনসংখ্যার ঘনত্ব তুলনামূলকভাবে কম হওয়ায়, এটি বিশ্বে বাসযোগ্য শহর গুলোর মধ্যে অন্যতম। দুর্নীতি ও সহিংসতার প্রভাব কম হওয়ার কারণে অস্ট্রেলিয়ার শহরগুলো বাসযোগ্য শহরের শীর্ষে।

ভ্যাঙ্কুভার, কানাডা

গত বছর শীর্ষ তিনে থাকা কানাডার শহর ভ্যাঙ্কুভারের অবস্থান এ বছর নেমে এসেছে ৬ নম্বরে। ছবির মতো সাজানো এই শহরটি বিশ্বের পর্যটকদের কাছে ভীষণ জনপ্রিয়। কানাডায় রাজনৈতিক ও সামাজিক স্থিতিশীলতার কারণে শহরটি এখনো শীর্ষ তালিকায় অবস্থান করছে।

টোকিও, জাপান

শীর্ষ সাতে রয়েছে জাপানের রাজধানী ও প্রধান শহর টোকিও। শিক্ষা ও স্বাস্থ্যখাতে নাগরিকদের সর্বোচ্চ সেবা প্রদানে বরাবরই জাপানের শহরগুলো এগিয়ে। বসবাসের জন্য পূর্ব এশিয়ার এই শহরটি সুবিধাজনক, আরামদায়ক ও আকর্ষনীয়।

টরন্টো, কানাডা

জন জীবনের নিরাপত্তা, বাস যোগ্যতার বিবেচনায় শীর্ষ দশ তালিকায় আটে রয়েছে কানাডার গুরুত্বপূর্ণ শহর টরন্টো। ১৮৬৭ সালে কানাডা ফেডারেশন গঠনের সময় টরন্টোকে অন্টারিও প্রদেশের রাজধানীর মর্যাদা দেওয়া হয়।

কোপেনহেগেন, ডেনমার্ক

বিশ্বের সেরা ১০ বাসযোগ্য শহরের তালিকায় এবারই প্রথম জায়গা করে নিয়েছে ডেনমার্কের কোপেনহেগেন শহর। এবার শীর্ষ তালিকায় উঠে এসেছে ইউরোপীয় দুইটি শহর ।এর মধ্যে কোপেনহেগেন রয়েছে নবম স্থানে।

অ্যাডিলেইড, অস্ট্রেলিয়া

সবশেষে রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম আরেক শহর অ্যাডিলেইড। এর আগে অস্ট্রেলিয়ার এই শহরটি টানা ৬ বছর শীর্ষ ৫ এর তালিকায় ছিল। মেলবোর্নের মতো চলতি বছর এটির অবস্থান নেমে একেবারে দশে চলে আসে।


বাংলা ইনসাইডার/জেডআই/জেডএ