ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

নারী সাংবাদিককে হত্যার ঘটনায় উত্তাল ইউরোপ

বিশ্বজুড়ে ডেস্ক 
প্রকাশিত: ০৯ অক্টোবর ২০১৮ মঙ্গলবার, ০৫:৪৪ পিএম
নারী সাংবাদিককে হত্যার ঘটনায় উত্তাল ইউরোপ

বুলগেরিয়ায় এক নারী সাংবাদিককে যৌন নির্যাতনের পর হত্যার ঘটনায় ইউরোপজুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় সময় গত শনিবার দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় রুজ শহরের একটি পার্কে ভিক্তোরিয়া মারিনোভা নামের ওই সাংবাদিককে হত্যা করা হয়। ওয়াশিংটন পোস্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

মারিনোভা একটি টিভি চ্যানেলের অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিষয়ক টক-শোর উপস্থাপিকা ছিলেন। তাঁকে হত্যার কারণ সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। খুনের সঙ্গে তার পেশার কোনো যোগসূত্র এখনো পাননি বলে জানিয়েছে বুলগেরিয়ার কর্মকর্তারা।

এ নিয়ে গত এক বছরে ইউরোপে অন্তত তিনজন সাংবাদিক হত্যার ঘটনা ঘটল। এর ফলে মহাদেশজুড়ে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

মারিনোভা হত্যার প্রতিক্রিয়ায় ইউরোপিয়ান কমিশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফ্রান্স টিমারমানস বলেন, ‘আবারও একজন সাহসী সাংবাদিক চলে গেলেন। সত্যের জন্য ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মধ্যেই বিদায় নিতে হলো তাকে।’

যে পার্কে মারিনোভাকে হত্যা করা হয় সেটির একেবারে পাশেই একটি পাগলাগারদের অবস্থান। হামলার পেছনে ওই পাগলাগারদের কোনো রোগী জড়িত কি না কর্তৃপক্ষ সে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

৩০ বছর বয়সী মারিনোভা একসময় লাইফস্টাইল বিষয়ক সাংবাদিক ছিলেন বলে জানা যায়। তবে সাম্প্রতিক সময়ে উত্তরপূর্ব বুলগেরিয়ার জনপ্রিয় টেলিভিশন চ্যানেল টিভিএনের উপস্থাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি। গত মাস থেকে মারিনোভা ‘ডিটেক্টর’ নামের রাজনৈতিক অনুসন্ধান বিষয়ক একটি অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা শুরু করেছিলেন। তাঁর মৃত্যুর আগে অনুষ্ঠানটির মাত্র একটি পর্বে তাঁকে দেখা গেছে বলে জানা যায়। বহুজাতিক কোম্পানিগুলোর একটি নেটওয়ার্ক ইইউর তহবিলের অপব্যবহার করছে, এমন অভিযোগ নিয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রসঙ্গে ওই পর্বে আলোচনা হয়েছিল। দিমিতার স্তয়ানোভ ও আতিলা বিরো নামের দুই সাংবাদিক ওই অনুসন্ধান চালাচ্ছিলেন। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে ওই দুই সাংবাদিককে আটকও করেছিল।

মারিনোভার আগে গত এক বছরে ইউরোপে আরও দু’জন সাংবাদিক খুন হন। এদের একজন মাল্টার প্রতিবেদক ডাফনে করুনা গালিজিয়া। দুর্নীতি ও মুদ্রা পাচার বিষয়ে অনুসন্ধান চালানো এই সাংবাদিক গত বছর অক্টোবরে নিজ বাসস্থানের কাছেই একটি গাড়ি বোমা বিস্ফোরণে নিহত হন। এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে খুন হন স্লোভাক সাংবাদিক জান কুচিক ও তার বাগদত্তা মার্টিনা কুসনিরোভা। কুচিক সরকারি দুর্নীতি নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিলেন।

সাংবাদিক হত্যার ঘটনায় বুলগেরিয়া, স্লোভাকিয়া, বেলজিয়ামসহ ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশের নাগরিকরা তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। হত্যাকাণ্ডগুলোর সঠিক তদন্তেরও দাবি জানাচ্ছেন তারা।

বাংলা ইনসাইডার/এএইচসি/জেডএ