ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

‘নো ব্রেক্সিট’র পথে ব্রিটেন?

বিশ্বজুড়ে ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৯ বুধবার, ০২:০০ পিএম
‘নো ব্রেক্সিট’র পথে ব্রিটেন?

দ্বিতীয় দফার ভোটেও মুখ থুবড়ে পড়েছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র ব্রেক্সিট পরিকল্পনা। ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে দীর্ঘ দেন-দরবার শেষে তিনি যে খসড়া চুক্তি করেছিলেন, পার্লামেন্টের ২৮২ জন এমপিই তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। ব্রিটিশ এমপিদের এই সিদ্ধান্ত কি ব্রিটেনকে ‘নো ব্রেক্সিট’ এর পথেই এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে?

বিশ্লেষকরা বলছেন, ব্রিটেনের সামনে এখন হাতেগোনা কয়েকটি মাত্র পথ খোলা আছে। তাদের এখন সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে, কোনও চুক্তি বা ডিল ছাড়াই তারা ইইউ থেকে বেরিয়ে আসবে কিনা। কিংবা প্রধানমন্ত্রীর খসড়া চুক্তিটি নিয়ে আরেক দফা ভোটাভুটিও হতে পারে।

থেরেসা মে’র সামনে আরেকটি বিকল্প হলো, তিনি আবারও নতুন করে ব্রেক্সিট আলোচনা শুরু করতে পারেন। তবে সেটা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। এই পথে যেতে চাইলে ২৯ মার্চ এর মধ্যে ব্রেক্সিট কার্যকর না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।  

ব্রেক্সিট নিয়ে ব্রিটেনের বিকল্প চিন্তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি আলোচনায় আসছে তা হলো, পুনরায় গণভোট। ব্রিটিশদের কাছে আবারও জানতে চাওয়া হতে পারে যে তারা ব্রেক্সিট চায় কিনা। সেক্ষেত্রে আইনে নতুন সংযোজন প্রয়োজন হবে এবং কারা ভোটার হতে পারবে সেটাও নির্ধারণ করতে হবে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, ব্রেক্সিট ইস্যুতে আগের গণভোটের সময় ব্রিটিশরা হয়তো বুঝতে পারেনি যে, এই প্রক্রিয়াটা এতোটা জটিল হবে। নতুন করে গণভোট আয়োজন করলে অন্যরকম ফলও আসতে পারে। কিন্তু সেটি অত্যন্ত সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। এমনিতেই ব্রেক্সিট ইস্যু নিয়ে যুক্তরাজ্যে এক ধরণের অস্থিতিশীলতার সৃষ্টি হয়েছে। ডলারের বিপরীতে ব্রিটিশ পাউন্ডের দরপতন হচ্ছেই। অন্যদিকে বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণও কমে গেছে।

এই অস্থিতিশীলতা দূর করতে ব্রিটেন চাইলে নো ব্রেক্সিটের পথেই হাঁটতে পারে। ইউরোপীয় আদালতের নির্দেশনা বলছে, ব্রিটেন চাইলেই এককভাবে এই সিদ্ধান্তটি নিতে পারে। দেশের অর্থনীতিতে গতি ফেরাতে ব্রিটেন সেই পথেই হাটবে কি না সেটাই এখন দেখা বিষয়।

বাংলা ইনসাইডার/এএইচসি/এমআর