ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

আত্মহত্যায় শীর্ষে যে দেশগুলো

বিশ্বজুড়ে ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার, ০৩:০৪ পিএম
আত্মহত্যায় শীর্ষে যে দেশগুলো

বিশ্বের প্রায় সবদেশেই আত্মহত্যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কিন্তু যার বাঁচারই ইচ্ছা নেই, তার আবার শাস্তির ভয় কী? এ কারণেই জেল- জরিমানার চোখরাঙানী উপেক্ষা করে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় হাজার হাজার মানুষ। তবে সামাজিক ও ধর্মীয় কারণে বহু পরিবারই তাদের স্বজনদের আত্মহত্যার বিষয়টি প্রকাশ করে না। এজন্য বিশ্বব্যাপী আত্মহত্যার যে সংখ্যাটা উঠে আসে তা প্রকৃত সংখ্যার চেয়ে অনেক কম। চলুন দেখে নিই আত্মহত্যায় বিশ্বের শীর্ষ পাঁচটি দেশ কোনগুলো-

গায়ানা

ক্যারিবীয় দেশ গায়ানায় আত্মহত্যার হার সবচেয়ে বেশি। সেখানকার প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে ৪৪ জনেরও বেশি আত্মহত্যা করে। গায়ানিজরা আত্মহত্যার মাধ্যম হিসেবে তরল বিষকেই বেছে নেয়। দারিদ্র্য ও অ্যালকোহল আসক্তির কারণে তারা আত্মহত্যার পথে পা বাড়ায়।

উত্তর কোরিয়া

আত্মহত্যায় গায়ানার পরেই উত্তর কোরিয়ার অবস্থান। প্রতি বছর সেখানে প্রায় ১০ হাজার মানুষ আত্মহত্যা করে। মানবাধিকার লঙ্ঘন, আর্থিক দৈন্যতা, সরকারি নির্যাতনের ভয়ে উত্তর কোরীয়রা আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

দক্ষিণ কোরিয়া

উত্তর কোরিয়ার প্রতিবেশী এবং সবচেয়ে বড় শত্রু দক্ষিণ কোরিয়াতেও আত্মহত্যার হার খুব বেশি। সেখানে প্রতি এক লাখের মধ্যে ৩০ জনের মতো আত্মহত্যা করছে। চাকরির নিশ্চয়তা না থাকা, বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখপড়ার চাপ এবং নিঃস্বঙ্গতার কারণে তারা আত্মহত্যা করে। বিশেষ করে নভেম্বরে কলেজ ভর্তি পরীক্ষার আগে আত্মহত্যার হার বেড়ে যায় কয়েক গুণ। বিষয়টি এতটাই উদ্বেগজনক হয়ে উঠেছে যে সরকার সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর উপর নজরদারি করে সম্ভাব্য আত্মহত্যা ঠেকানোর পদক্ষেপ নিচ্ছে।

শ্রীলঙ্কা

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে শ্রীলঙ্কাতেই আত্মহত্যার হার সবচেয়ে বেশি। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, সেখানে প্রতি লাখে আত্মহত্যা করে ২৯জন। দারিদ্র্য ও বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা এর কারণ বলে জানা গেছে৷

লিথুয়ানিয়া

ইউরোপের মধ্যে এই দেশটিতেই আত্মহত্যার সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। সেখানে প্রতি লাখে আত্মহত্যা করে প্রায় ২৮ জন। সামাজিক ও আর্থিক সমস্যাই লিথুয়ানিয়ানদের আত্মহত্যার মূল কারণ। তবে সেখানে আত্মহত্যার হার ধীরে ধীরে কমছে বলে জানা গেছে।

বাংলা ইনসাইডার/এএইচসি