ঢাকা, রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

তৃণমূলের ইশতেহারে মোদী সরকারের ব্যর্থতা

বিশ্বজুড়ে ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ মার্চ ২০২১ শুক্রবার, ০২:৫১ পিএম
তৃণমূলের ইশতেহারে মোদী সরকারের ব্যর্থতা

পশ্চিমবাংলায় ভোট প্রচারে এসে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব নরেন্দ্র মোদী থেকে অমিত শাহ, সকলের মুখেই শোনা যাচ্ছে সোনার বাংলা গড়ার কথা। নিজেদের ইশতেহারের মধ্যদিয়ে সেই প্রতিশ্রুতিকেই চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলতে এক বিশেষ উদ্যোগ নিতে চলেছেন তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

গত বুধবার (১০ মার্চ) নন্দীগ্রামে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আহত হওয়ার কারণে বৃহস্পতিবার তৃণমূলের ইশতেহার প্রকাশ করা যায়নি। আনন্দবাজার সূত্রে জানা যায়, গত ৭ বছর নরেন্দ্র মোদী সরকারের কোন কোন সিদ্ধান্তে দেশের অর্থনীতি থেকে সামাজিক ও সম্প্রীতির পরিস্থিতি নষ্ট হয়েছে, সে কথা তুলে ধরা হবে তৃণমূলের নির্বাচনী ইশতেহারে। কেন্দ্রীয় সরকারের ৭ বছরের শাসনকালের সঙ্গে মমতার ১০ বছরের শাসনের তুলনা টানা হয়েছে জোরালো ভাবে। এক তৃণমূল নেতার কথায়, ‘‘যাঁরা সোনার বাংলা গড়ার কথা বলছেন, তাঁরা দু’বার সুযোগ পেয়েও দেশের অর্থনীতি থেকে সার্বভৌমত্ব কী ভাবে নষ্ট করেছেন, তার স্পষ্ট উল্লেখ থাকবে ইশতেহারে।’’

তৃণমূলের এই ইশতেহারে রয়েছে দিল্লিতে কৃষক আন্দোলন এবং ৩ কৃষি আইন দেশের কৃষক সমাজকে চরম অনিশ্চয়তার মুখে ঠেলে দিচ্ছে মোদী সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের জনবিরোধী নীতির মাঝেও তৃণমূল পরিচালিত সরকার মমতার নেতৃত্বে রাজ্যে ১০ বছরে কী কী উন্নয়নমূলক কাজ করেছে, সেটিও তুলে ধরা হয়েছে।

বিদায়ী সরকারের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, ‘‘আমরা গত ১০ বছরে কী উন্নয়ন করেছি, নির্বাচনী ইশতেহারে সে কথাও যেমন থাকবে, তেমন থাকবে আগামী বছরগুলোতে বাংলাতে আমরা কী রকম উন্নয়ন করতে চাই, তার পরিকল্পনাও। ইশতেহারে আমরা আমাদের বক্তব্য জানাব। এরপর মানুষ বিচার করবেন।’’ ইস্তাহার তৈরির দায়িত্বে ছিলেন দমদমের প্রবীণ তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। তিনি এ নিয়ে মুখ খুলতে না চাইলেও জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে বিস্তারিত যা বলার মুখ্যমন্ত্রী বলবেন। শুক্রবার দুপুরে প্রকাশিত হতে পারে তৃণমূলের নির্বাচনী ইশতেহার।