ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

অক্সফোর্ডের টিকা নেয়া মানুষের সংক্রমণ হার খুব কম ভারতে

বিশ্বজুড়ে
প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০২১ বৃহস্পতিবার, ০৮:৫৫ এএম
অক্সফোর্ডের টিকা নেয়া মানুষের সংক্রমণ হার খুব কম ভারতে

ভারতে টিকা নেয়ার পর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা কম বলা যায়। বুধবার দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, যারা সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনার টিকা কোভিশিল্ডের একটি ডোজ নিয়েছেন, তাদের মধ্যে দশমিক শূন্য ২ শতাংশ মানুষের নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। আর যারা এই টিকার দুটি ডোজ নিয়েছেন, তাদের মধ্যে এ হার আরও কম, দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ। 

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, দেশটিতে ১০ কোটি ৩ লাখ ২ হাজার ৭৪৫ জন অক্সফোর্ডের টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন। টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার পর তাঁদের মধ্যে নতুন করে ১৭ হাজার ১৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে, যা প্রথম ডোজ টিকাগ্রহীতার দশমিক শূন্য ২ শতাংশ। 

অন্যদিকে, ভারতে এই টিকা দুটি ডোজ নিয়েছেন ১ কোটি ৫৭ লাখ ৩২ হাজার ৭৪৫ জন। টিকা নেওয়ার পর তাঁদের মধ্যে ৫ হাজার ১৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শতাংশের হিসাবে এ হার দশমিক শূন্য ৩।

ভারতের নিজস্ব টিকা কোভ্যাক্সিন। ভারত বায়োটেক করোনার এ টিকা উদ্ভাবন করেছে। এখন পর্যন্ত কোভ্যাক্সিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৯৩ লাখ ৫৬ হাজার ৪৩৬ জন। আর দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১৭ লাখ ৩৭ হাজার ১৭৮ জন। 

সরকারি হিসাব অনুযায়ী, কোভ্যাক্সিনের প্রথম ডোজ নেওয়ার পর ৪ হাজার ২০৮ জনের (দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ) নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। আর দুটি ডোজ নেওয়ার পর করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৬৯৫ জনের। এ ক্ষেত্রেও শনাক্তের হার দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের (আইসিএমআর) মহাপরিচালক বলরাম ভরগাভা বলেন,  ‘প্রতি ১০ হাজার টিকাগ্রহীতার মধ্যে ২ থেকে ৪ জনের নতুন করে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এই সংখ্যা খুবই নগণ্য। তাই আতঙ্কিত হওয়ার মতো কিছু নেই।’

তবে ভ্যাকসিন সংকটের কারণে ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসাব্যবস্থা।