ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

রাশিয়ার নির্বাচনে আবারো জয় পেলো পুতিনের দল

বিশ্বজুড়ে ডেস্ক
প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ সোমবার, ০৪:৪৯ পিএম
রাশিয়ার নির্বাচনে আবারো জয় পেলো পুতিনের দল

রাশিয়ার ২০২১ সালে ফেডারেল নির্বাচনে পুনরায় জয় তুলে নিয়েছে ভ্লাদিমির পুতিনের ইউনাইটেড রাশিয়া পার্টি। দলটি মোট ভোটের ৫০ শতাংশ ভোট পেয়েছে। যদিও এটি গত ২০১৬ সালে নির্বাচনের তুলনায় ৪ শতাংশ কম।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) প্রায় ৮৫ শতাংশ ভোট গণনা শেষ হয়েছে।

তিনদিনের নির্বাচন শেষে আংশিক ভোট গণনায় দেখা গেছে, প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে বিপুল ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে দলটি। অবশ্য আগের তুলনায় তাদের জনপ্রিয়তা অনেকটা কমে গেছে। ইউনাইটেড রাশিয়া পার্টির পক্ষ থেকে জোর দিয়ে বলা হয়েছে, তারা দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা বজায় রাখবে।

দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন নেটওয়ার্ক আরটির একটি প্রতিবেদন থেকে দেখা গেছে রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, এবারের নির্বাচনে ইউনাইটেড রাশিয়া মোট ৫০ শতাংশ ভোট পেয়েছে। আর তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী দল কমিউনিস্ট পার্টি পেয়েছে ২০ শতাংশের কম ভোট। 

ভোটের সর্বশেষ ফলাফল অনুযায়ী, পুতিনপন্থি দলের বড় জয়ের লক্ষণ দেখা গেলেও গত নির্বাচনের তুলনায় তাদের এবারের অবস্থান বেশ খারাপ। ২০১৬ সালের ওই নির্বাচনে ৫৪ শতাংশের বেশি ভোট পেয়েছে ইউনাইটেড রাশিয়া।

জীবনযাত্রার মানে অবনতি ও ক্রেমলিনের সমালোচক আলেক্সেই নাভালনির তোলা দুর্নীতির অভিযোগে ভোটব্যাংকে টান পড়েছে পুতিনপন্থিদের। নাভালনি-মিত্রদের পরিকল্পিত নির্বাচনী প্রচারণাতেও ক্ষতি হয়েছে বেশ।

ক্রেমলিন সমালোচকদের অভিযোগ, এবারের নির্বাচনও ছিল ভুয়া। তাদের দাবি, অবাধ নির্বাচন হলে ইউনাইটেড রাশিয়ার ফলাফল আরও বেশি খারাপ হতো।

তবে জয়ের ব্যাপারে এখনও পুতিন কোনো বক্তব্য দেননি। যতই দিন যাচ্ছে এই রুশ নেতা যেন আরও শক্তিশালী হয়ে উঠছেন। ৬৮ বছর বয়সী পুতিন এখনও বহু রাশিয়ানের কাছে বেশ জনপ্রিয়।

নির্বাচনে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ডানপন্থী এলডিপিআর। তারা ৭ দশমিক ৫৬ শতাংশ ভোট পেয়েছে। চতুর্থ অবস্থানে থাকা কেন্দ্রীয় বামপন্থি ফেয়ার রাশিয়া পেয়েছে ৭ দশমিক ৩৮ ভাগ ভোট।

এর আগেও নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক হয়েছে। এবারও তার বাইরে যেতে পারেনি রাশিয়া। তিনদিন ধরে চলা ভোটের বেশ কিছু ছবি এবং ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে দেখা গেছে ভোটার এবং সরকারি কর্মকর্তারা ব্যালট বাক্সে একের বেশি ভোটার স্লিপ রাখছেন।