ঢাকা, সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

‘আওয়ামী লীগ নেতাদের সতর্ক হয়ে বক্তব্য দিতে হবে’

জুয়েল খান
প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সোমবার, ০৩:৫৯ পিএম
‘আওয়ামী লীগ নেতাদের সতর্ক হয়ে বক্তব্য দিতে হবে’

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেছেন, নৌকার প্রার্থীর জয়ের জন্য জোর করে সিল মারার দরকার নেই। শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড মানুষের কাছে তুলে ধরে ভোট চেয়েই নৌকাকে জেতাতে হবে। 

কিছু নেতার অতি উৎসাহী বক্তব্য এবং আওয়ামী লীগের দলীয় শৃঙ্খলার বিভিন্ন দিক নিয়ে বাংলা ইনসাইডারের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় এসব কথা বলেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন। পাঠকদের জন্য এসএম কামাল হোসেনের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন বাংলা ইনসাইডারের নিজস্ব প্রতিবেদক জুয়েল খান।

এসএম কামাল হোসেন বলেন, স্থানীয় নেতাকর্মীরা যদি কোনো অপরাধ করে থাকেন তাহলে জনগণের কাছে গিয়ে ক্ষমা চেয়ে ভোট নিতে হবে। দলের কিছু নেতাকর্মীর অতি উৎসাহী কথাবার্তায় দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ণ হচ্ছে। যেসব নেতারা বিভিন্ন জনসভায় বক্তব্য দেন তাদের সকর্ত হয়ে কথা বলতে হবে। সরকারের ধারাবাহিত উন্নয়ন এবং শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তার কারণে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জিতবে। এক্ষেত্রে দলের মধ্যে শৃঙ্খলা থাকলে যেকোনো নির্বাচনে জয়লাভ করা সম্ভব। আওয়ামী লীগের প্রার্থী জেতাতে কাউকে হুমকি-ধমকি কিংবা অতিরঞ্জিত বক্তব্যের দরকার নেই। এই সরকার সারাদেশে যে পরিমাণ উন্নয়ন করেছে সেই উন্নয়ন তুলে ধরে মানুষের কাছে ভোট চাইলেই আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়ী হবে। আর যদি কোথাও কোনো প্রার্থী হারেন তাহলে তার দায়ভার স্থানীয় নেতাকর্মী, এমপি ও বড় নেতাদের। যেখানে শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা বাড়ছে সেখানে যদি আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরাজীত হন তাহলে সেই ব্যর্থতা সেখানকার নেতাকর্মীদের। কোথাও যদি নৌকা হারে তাহলে বুঝতে হবে সেখানকার নেতাকর্মীদের ব্যবহারের কারণে হেরেছে। সেক্ষেত্রে সেখানকার নেতাকর্মীদের উচিৎ মানুষের কাছে গিয়ে ক্ষমা চেয়ে বিনয়ের সঙ্গে ভোট চাওয়া। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের ভাই কাদের মির্জা, মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী মাহমুদা বেগম ও লক্ষীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের অতি উৎসাহী কথাবার্তায় আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ণ হচ্ছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এসব নেতাদের অতি উৎসাহী কথার দায় সরকার নেবে না। এসব নেতাদের উচিৎ হবে কথা বলার আগে চিন্তা ভাবনা করে কথা বলা। আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করে জনগণ হচ্ছে ক্ষমতার উৎস। জনগণের ভোট নেয়ার জন্য আওয়ামী লীগের উন্নয়ন ও শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা যথেষ্ট কিন্তু এ ধরনের অসংযত কথাবার্তায় দলীয় ভাবমূর্তিতে প্রভাব পড়বে।

বিষয়: আওয়ামী-লীগ ,