ঢাকা, বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

‘হেফাজতকে রাজনৈতিকভাবে প্রতিহত করা হবে’

জুয়েল খান
প্রকাশিত: ০৮ এপ্রিল ২০২১ বৃহস্পতিবার, ০৪:০১ পিএম
‘হেফাজতকে রাজনৈতিকভাবে প্রতিহত করা হবে’

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেছেন, হেফাজতে ইসলাম মানে ইসলামের হেফাজতকারী না। এরা বিএনপি-জামায়াত, স্বাধীনতাবিরোধী এবং সাম্প্রদায়িক শক্তির হেফাজতকারী। ইসলামের অপব্যাখ্যা দিয়ে মানুষকে উস্কে দিচ্ছে, ইসলামের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করছে। আওয়ামী লীগ হেফাজতকে রাজনৈতিকভাবে প্রতিহত করবে।

সরাদেশে হেফাজতের তাণ্ডব এবং চলমান রাজনীতির বিভিন্ন দিক নিয়ে বাংলা ইনসাইডারের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় এসব কথা বলেছেন এসএম কামাল হোসেন। পাঠকদের জন্য এসএম কামাল হোসেনের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন বাংলা ইনসাইডারের নিজস্ব প্রতিবেদক জুয়েল খান।

এসএম কামাল হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে যারা হত্যা করতে চেয়েছিলো তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় বিএনপি-জামায়াত জোটের কিছু মওলানারা মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে কর্মসূচি ঘোষণা করে এবং হেফাজতকে সামনে রেখে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করতেই এই তাণ্ডব চালানো হয়। আর এটি একটি ষড়যন্ত্র এবং দেশ ও দেশের জনগণের বিরুদ্ধে। আওয়ামী লীগ দেশ ও জনগণের জন্য রাজনীতি করে সুতরাং কোনোভাবেই এই ধরনের সহিংসতা করতে দেবে না। 

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধীতা করলো হেফাজত, এখন দেশব্যাপী তাণ্ডব চালালো তারা। কিন্তু আগে তেমন ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি তাহলে এবারও কি তারা পার পাবে এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সরকার সব সময় কঠোর ছিলো ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিয়ে। এবার যেহেতু স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্ত্রীতে দেশের বিদেশি অতিথিরা ছিলেন এজন্য কৌশলগত কারণে সরকার নমনীয় ছিলো এবং কোনো কথা বলেনি। কিন্তু এখন হেফাজতকে রাজনৈতিকভাবেই প্রতিহত করা হবে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে যেখানেই ধর্মীয় উগ্রবাদীরা ধ্বংসলীলা চালাবে সেখানেই প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে। আর এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় টিম নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও গিয়ে সেখানকার নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দিয়েছে। আজ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় টিম ফরিদপুরের সালথায় যাচ্ছে তৃণমূলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মনোবল বাড়ানো, সেকানকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং নেতাকর্মীদের দিক নির্দেশনা দেয়ার জন্য। 

এসএম কামাল হোসেন বলেন, যারা মানুষের ওপর হামলা করবে, রাষ্ট্রিয় স্থাপনায় হামলা করবে, দেশকে অস্থিতিশীল করবে তারা আর যাই হোক ইসলামকে হেফাজত করতে পারে না। ইসলাম শান্তির ধর্ম, মানবতার ধর্ম। মানুষকে আঘাত করা, বাড়িঘর ভাঙচুর করার কথা ইসলাম বলে না সুতরাং যারা ধর্মের দোহাই দিয়ে, রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লীপ্ত তাদের বিরুদ্ধে দেশের মানুষকে সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগ কঠোর অবস্থান নেবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন ধর্ম ব্যবসায়ীরা ষড়যন্ত্রের কাছে আওয়ামী লীগ মাথানত করবে না। আওয়ামী লীগ অবশ্যই এদেরকে প্রতিহত করবে।