ঢাকা, রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কোভিভ ১৯ মহামারিতে মধ্যবিত্ত পরিবারের আর্থিক সংকট

ফারজানা রহমান (সাদিয়া)
প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ শনিবার, ১১:২৭ এএম
কোভিভ ১৯ মহামারিতে মধ্যবিত্ত পরিবারের আর্থিক সংকট

বিশাল এই বড় শহরের  এক কোণায় বসাবাস করে মধ্যবিত্ত একটি পরিবার। একজন মধ্যবিত্ত পরিবার লোক দেখে কখনো বুঝা যায় না বা বুঝতে দেয়না সে কত কষ্টের মধ্যে আছে। তার পরিবার আর্থিক অবস্থা ভালো নয় সে এতো  কষ্ট লুকিয়ে সবার সাময়ে হাসি-খুশি থাকে। কষ্ট আড়ালে  রাখে যেন কেউ বুঝতে না পারে তার মধ্যবিত্ত পরিবার জীবন। মধ্যবিত্ত পরিবার বেশিরভাগ সদস্য হয় ৫-৬ জন। ইনকাম থাকে একজনের ১২-১৫ হাজার টাকা। মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানরা সপ্ন  দেখে পড়ালেখা শেষ করে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে বাবা-মায়ের পাশে দাঁড়ানোর। মধ্যবিত্ত পরিবার এমন একটি পরিবার তারা কখনো অন্য কারো কাছে হাত পাততে পারে না বা লজ্জায় কাউকে কিছু বলতে পারে না। 

 

সারাবিশ্ব যখন আক্রান্ত করনায় এবং বাংলাদেশেও যখন আস্তে আস্তে আক্রান্ত হতে শুরু করল তখন সরকার সবকিছু বন্ধ করে দিতে শুরু করল। ২৬-৩-২০২০ থেকে সরকার লকডাউন ঘোষণা  করে।  লকডাউনে আর্থিক সংকটে পড়ে যায় মধ্যবিত্ত পরিবার গুল। উপার্জন বন্ধ হয় যায় মধ্যবিত্ত পরিবার গুলর। দীর্ঘদিন লকডাউন থাকার কারণে বন্ধ হয়ে যায় বিভিন্ন ধরনের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান।  হাজার -হাজার  মধ্যবিত্ত পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী চাকরি হারিয়ে বেকারে পরিণত হয়। নেমে আসে মধ্যবিত্ত পরিবার অন্ধকার ছায়া। থমকে যায় মধ্যবিত্ত পরিবারের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। এই শহরের বেঁচে থাকা কঠিন হয় ওঠে তাদের জন্য। মাস শেষের বাড়িওয়ালা বাড়ি ভাড়ার জন্য কড়া নাড়ে ভাড়াটিয়ার দরজায়।  মুদি দোকানদার চাপ দিতে থাকে টাকার জন্য।  এইভাবে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখী হতে হয় মধ্যবিত্ত পরিবার গুলর। স্বপ্ন ভেঙে তছনছ হয়ে যায় এই মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষ গুলর। পরিবার কষ্ট সন্তানরা বুঝতে পারে অনুভব করতে পারে, তারপরও বাইরে লোককে লজ্জায় কিছু বলতে পারে না। বলে আমরা ভাল আছি। 

 

কিছুদিন পর সরকারের নির্দেশনা অললাইনে ক্লাস চালু হয়। তখন মধ্যবিত্ত সন্তানের জন্য বড় ধরণে ধাক্কা শিকার হয় । ক্লাস করা জন্য ভাল মোবাইল সেট ও নেট প্রয়োজন হয়। যেখানে মধ্যবিত্ত দুইবেলা ভালা খাবার খেতে হিমশিম পরিণত হয় সেখানে আবার কিভাবে অললাইন ক্লাস চালিয়ে নিবে। পড়তে হয় নানা ধরনের না বলতে পারা  সমস্যায়। তারপর বাবার -মা কে মিথ্যা কথা বলে সমস্যা নাই অললাইন ক্লাস চালিয়ে নিবে। যখন ক্লাস শুরু হয়  তখন বন্ধুকে ও সহপাঠী কে মিথ্যে বলে বন্ধু নেটে প্রব্লেম দিয়েছ। স্যার কি পড়ায় আমাকে মেসেজ করে দিস। এতো সমস্যা ও কষ্টের মাঝে কাউকে কিছু বুঝতে দেয় না তারা, কিভাবে চলছে তাদের জীবন।  এভাবে প্রতিদিন বিভিন্ন সমস্যার শিকার হয়েছে মধ্যবিত্ত পরিবার গুল।

 

মধ্যবিত্ত পরিবারের শহরের জন্মানো আর সপ্ন দেখানো ছিল সবচেয়ে বড় ভুল। সত্যিকারের ভাল থাকুক প্রতিটা মধ্যবিত্ত পরিবার। 

 

রিপোর্টঃ ফারজানা রহমান (সাদিয়া) 

বয়সঃ ২০

কলেজঃওমর গণি এম.এস.কলেজ।