ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

রক্তচাপ কমাতে খান এই মৌসুমি ফল

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৮ মঙ্গলবার, ০১:৪১ পিএম
রক্তচাপ কমাতে খান এই মৌসুমি ফল

দুশ্চিন্তা, অবসাদ মোটামুটি আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী। এই দুশ্চিন্তা থেকে উৎপত্তি হয় নানা কঠিন রোগব্যাধির। শরীর সুস্থ রাখার প্রধান শর্তই হলো দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকা। কিন্তু সেটা তো আর অতো সহজ না। আস্তে আস্তে এই সমস্যা বাড়ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গবেষণায় দেখা গেছে, সারাবিশ্বে প্রতি বছর ১২ দশমিক ৮ শতাংশ মানুষের মৃত্যু হয় হাইপারটেনশন এবং এর দ্বারা হওয়া রোগবালাইয়ের কারণে। চাইলেই হাইপারটেনশন এবং রক্তচাপ কমিয়ে আনা যায় বলে মনে করেন পুষ্টিবিজ্ঞানীরা। এজন্য খান পুষ্টিকর মৌসুমি এই ফলগুলো-

কলা

আমাদের সবার কাছে কলা অতি সুপরিচিত প্রিয় একটি ফল। কলা প্রায় সারাবছরেই পাওয়া যায়, এছাড়া এটি সহজলভ্য এবং দামেও সস্তা। কলাতে সোডিয়াম কম থাকলেও পটাশিয়াম বেশি থাকে। এই পটাশিয়াম রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। কেক, মিল্কশেক,স্মুদি, ব্রেড, কর্নফ্লেক্স- যেমনভাবে ইচ্ছা সেভাবে কলা খাওয়া যায়। সব বয়েসিদের কাছেই এই ফল যথেষ্ট পছন্দের।

বেদানা

বেদানার মধ্যে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকায় উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। রক্ত চলাচল সবসময়ের জন্য স্বাভাবিক থাকে। এছাড়া বেদানায় প্রচুর পরিমানে অ্যামাইনো অ্যাসিড, ভিটামিন সি, পটাশিয়াম থাকে। যা হাইপারটেনশন কমায়।  

তরমুজ

গরমকালের ফলের মধ্যে তরমুজ বেশ লোভনীয় ফল। তরমুজের মধ্যে প্রচুর ফাইবার, পটাশিয়াম, ভিটামিন এ, অ্যামাইনো অ্যাসিড থাকে। যা হৃদপিণ্ড ভালো রাখতে সাহায্য করে। তরমুজ ফ্রুট সালাদ বা জুস বানিয়ে খাওয়া যায়।

বিট

বিটকে নাইট্রেটস এর খনিজঘর বলা হয়। এই বিট রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। যদি হঠাৎ করে রক্তচাপ কমে যায় তাহলে  বিটের জুস খেতে পারেন। এতে করে রক্তচাপের সামঞ্জস্য রক্ষা হবে।  

কমলালেবু

কমলালেবুতে প্রচুর ভিটামিন সি, ফাইবার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট  থাকে। এই উপাদান শরীরে যাবতীয় মানসিক এবং শারীরিক চাপ, অবসাদ কমায়। পাশাপাশি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে, ত্বক ভালো রাখে। সাহায্য করে কমলালেবু। জুস, ফ্রুট সালাদ বা এমনিতে যেভাবে ইচ্ছা কমলালেবু খাওয়া যায়।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ/জেডএ