ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ১ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

খুশি থাকতে চাইলে

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ মে ২০১৮ বুধবার, ০৮:২৯ এএম
খুশি থাকতে চাইলে

মন ভালো থাকলে পুরো পৃথিবীটাই সুখের বলে মনে হয়। তাই খুশি থাকাটা খুবই জরুরি। কিন্তু বর্তমান পৃথিবীতে খুশি থাকা তো খুবই কঠিন ব্যাপার নয়। কিন্তু আমরা চাইলেই নিজেদের ইচ্ছায় খুশি থাকাই যায় এভাবে-

অখুশি করা জিনিস থেকে দূরে থাকুন

সারাদিনে এমন অনেক কাজই করি যা আমাদের কোনো আনন্দই দেয়না। তবে বিভিন্ন কারণে তা করতেই হয়। কিন্তু অপ্রয়োজনীয় যে কাজ আপনাকে আনন্দ দেওয়ার পরিবর্তে আরও ঝামেলায় ফেলে মন খারাপ করে দেয়, তা থেকে অবশ্যই দূরে থাকুন। তাই অযথা মন খারাপ করা জিনিসের দিকে ঝুকতে হবেনা।

দুঃখের দিনে খুশির কোনো ঘটনা ভাবুন

যখন নিতান্তই মন খারাপ হয়ে যাবে, তখন সুখের দিন বা সুখের কোনো ঘটনার কথা ভাবতে থাকুন।  দেখবেন নিমেষে মন ভাল হয়ে যাবে। একা থাকলেই তো মন খারাপ বেশি হয়। তাই ভালো লাগার ঘটনাগুলো মনে করতে থাকুন। ছবির অ্যালবামটা নিয়ে বসুন, চালিয়ে দিন পছন্দের পুরনো কোনো গান। দেখবেন স্মৃতি মনে করতে করতে ঠোঁটের কোণে হাসি ফুটে উঠতে শুরু করেছে।

বেশি কিছু চাইবেন না

কখনো জোর করে ভালো কিছু সন্ধান করতে যাবেন না। এতে হিতে বিপরীত হয়ে যাবে। স্বপ্নের পিছনে ছোটা ভালো, কিন্তু উচ্চাঙ্ক্ষার পিছনে নয়। নিজের যতোটুকু ক্ষমতা, যতোটুক আওতা- তার বাইরে কিছু চাইতে যাবেন না। তাই প্রতিদিনের জিনিসের মধ্যে খুশির সন্ধান শুরু করুন, দেখবেন দুঃখ বা ,মন খারাপ আর আপনাকে কাবু করতে পারবে না।

যে সম্পর্ক ভালো রাখেনা, তা থেকে বের হন

কাজটা বেশ কঠিন হলেও এটা মেনে চলবেন। আশেপাশে যে সম্পর্কগুলো আমাদের জীবনে অপরিহার্য, তাও মাঝে মাঝে দোদুল্যমান অবস্থায় চলে যায়। সেই কাছের সম্পর্কগুলোর কারণে নানা বিপত্তি, মন খারাপের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আর মন খারাপ নিয়ে থাকা বেশ কঠিন। তাদেরকে যে ছেড়ে আসতে হবে, এমনটা নয়। যতটুক সম্ভব খারাপ হয়ে যাওয়া সম্পর্ক থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করুন।

একাই না হয় জীবনকে উপভোগ করুন

একা থাকা কষ্টের কিন্তু দোষের কিছু নয়। যখন দেখবেন আশেপাশের পরিবেশ, পরিস্থিতি আর মানুষ আপনার জন্য সুখকর নয়, তখন কিছুটা একা থাকুন। নিজেকে সময় দিন বেশি করে। যা মন চায় করুন, পছন্দের খাবার খান, বেড়াতে যান কোথাও, গান শুনুন, ছবি আঁকুন- দেখবেন একা থাকা খুব একটা কষ্ট হচ্ছেনা।

যারা কষ্টে থাকে, তাদের থেকে দূরে থাকুন

আনন্দ এবং দুঃখ দুটোই সংক্রামক। কাউকে হাসতে দেখলে আমাদের মনও খুশি হয়ে যায়। আর কারো মুখ ভারি থাকলে আমাদেরও মনটা খারাপ হতে থাকে। এতে দেকা যায় তার সঙ্গে সঙ্গে নিজের কষ্টের কথাও বেশি করে মনে পড়ছে। তাই এইসব ব্যক্তি থেকে অবশ্যই দূরে থাকুন।

না বলতে শিখুন

আশেপাশের সবাইকে ভালো রাখতে গিয়ে নিজের আনন্দগুলোকে বিসর্জন দেবেন না। নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে কোনো কাজ করতে যাবেন না। কারণ এতে করে কখনো মনে শান্তি পাওয়া যায়না। তখন নিজেকে বোঝা মনে হয়। নিজেকে ভারমুক্ত রাখতে সবাইকে না বলতে শিখে নিন।


বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ/জেডএ